গুগল প্লে স্টোর থেকে এই ১৫ টি অ্যাপকে কখনো ডাউনলোড করেননি তো ?

এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো এতদিন অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের ঠকিয়ে টাকা উপার্জন করছিলো

এই মাসের শুরুতেই প্লে স্টোর থেকে ৮৫ টি ম্যালওয়্যার প্রভাবিত অ্যাপকে সরিয়ে দিয়েছিলো গুগল। এই অ্যাপগুলোকে আমরা মূলত গেমিং ও রিমোট কন্ট্রোলার হিসেবে ডাউনলোড করতাম।প্লে স্টোরে ওই ৮৫ টি অ্যাপ্লিকেশনকে প্রায় ৯ মিলিয়ন অর্থাৎ ৯০ লক্ষ মানুষ ডাউনলোড করেছিল।এই খবরের এক মাস যেতে না যেতেই আবার ১৫ টি ম্যালওয়্যার প্রভাবিত অ্যাপের খোঁজ পেয়েছে প্লে স্টোর।এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো এতদিন গুগলের গাইডলাইন ভেঙেই প্লে স্টোরে ছিল। সম্প্রতি ESET ম্যালওয়্যার রিসার্চাররা ১৫ টি জিপিএস অ্যাপ্লিকেশনের সন্ধান দিয়েছে,যেগুলো ম্যালওয়্যার প্রভাবিত।এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো এতদিন অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের ঠকিয়ে টাকা উপার্জন করছিলো।
জানুন এই ১৫ টি অ্যাপ সম্পর্কে :
এই ১৫টি অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে GPS Route Finder, GPS Live Street Maps এবং Maps GPS Navigation এর মতো জনপ্রিয় অ্যাপও ছিল। এই অ্যাপগুলো ব্যবহারকারীকে কোনো নিজস্ব পরিষেবা দিতো না।কেবলমাত্র গুগল ম্যাপের API এর সাহায্য নিয়ে মানুষকে বোকা বানাতো।এরা ব্যবহারকারীর কন্টাক্ট,মেসেজ ও কল ডিটেইলসের অনুমতি নিতো এবং সমস্ত তথ্য হ্যাকারদের কাছে পৌঁছে দিতো।শুধু তাই নয়,পরিষেবা দেওয়ার নাম করে এই অ্যাপগুলো মাত্রাতিক্ত বিজ্ঞাপন ব্যবহারকারীকে দেখাতো।গুগল থেকে জানানো হয়েছে প্রায় পাঁচ কোটি মানুষ এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো ডাউনলোড করেছিল।ফলে এই পাঁচ কোটি মানুষের সমস্ত ডেটা হ্যাকারদের কাছে চলে গেছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
আপনাদের জানিয়ে রাখি গুগল গত অক্টোবর মাসে সমস্ত ফোন কল এবং এসএমএসের অনুমতি চাওয়া অ্যাপ ডেভেলপারকে ৯০ দিনের সময় দিয়েছিলো তাদের অ্যাপকে নতুন করে সাজানোর জন্য বা পারমিশন ডিক্লারেশন ফর্ম জমা দেওয়ার জন্য।গুগল আরো জানিয়েছিল তারা অনেক অ্যাপের খোঁজ পেয়েছে যেগুলোর ফোন কল এবং এসএমএসের অনুমতির কোনো প্রয়োজন নেই। কিন্তু তবুও তারা কেন পারমিশন চাইছে সে বিষয়ে সঠিক তথ্য তাদেরকে দিতে হবে, অন্যথায় ওই অ্যাপকে ডিলিট করা হবে।
অ্যাপ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন গুগলের এই পদক্ষেপের ফলে অনেক ভুল ও ম্যালওয়্যার প্রভাবিত অ্যাপ প্লে স্টোর থেকে রিমুভ হয়ে যাবে।

পড়ুন : এবার ফোন কল এবং এসএমএসের অনুমতি চাওয়া অ্যাপকে সরানো হবে গুগল প্লে স্টোর থেকে

সমস্ত খবরের আপডেট পেতে এখানে লাইক দিন!