পরিষেবা ভালো পেলে প্রথম বছরে ৪ কোটি ভারতীয় গ্রাহক ব্যবহার করবেন 5G নেটওয়ার্ক

40 million users in India can use 5g in first year report

ভারতে কবে ৫জি আসবে সেই নিয়ে এখনো পর্যন্ত ধোঁয়াশার অন্ত নেই। সমগ্র ভারতবাসী অধীর আগ্রহে ৫জির অপেক্ষায় দিন গুনছেন। তবে এবার ভারতে ৫জি এলে কতজন এই নেক্সট জেনারেশন নেটওয়ার্ক ব্যবহার করবেন, সেই নিয়েও জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে গেল। সম্প্রতি Ericsson ConsumerLab-এর একটি সমীক্ষায় জানা গেছে যে, ভারতে ৫জি পরিষেবা চালু হওয়ার এক বছরের মধ্যেই ৪ কোটি (৪০ মিলিয়ন) স্মার্টফোন ইউজার এই পরিষেবার আওতায় আসবেন। সমীক্ষায় আরও দেখা গেছে যে, বর্তমানে প্রায় ৬৭ শতাংশ স্মার্টফোন ইউজার ৫জি ব্যবহার করার জন্য উদগ্রীব হয়ে রয়েছেন, যা ২০১৯ সালের তুলনায় ১৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়াও, কীভাবে এই নেটওয়ার্ক ইতিমধ্যেই নতুন ব্যবহারকারীদের আচরণকে ট্রিগার করতে শুরু করেছে, সেকথাও সমীক্ষা থেকে জানা গেছে।

Ericsson India- এবং Network Solutions Ericsson (দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, ওশিয়ানিয়া ও ভারত)- এর প্রধান নিতিন বনসল জানিয়েছেন, আপাতত ভারতের বিভিন্ন সার্ভিস প্রোভাইডাররা ৫জি পরিষেবা চালু করার জন্য উদ্যোগ নিয়েছে। এই অবস্থায় আগ্রহী গ্রাহক সম্পর্কে নতুন যে তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে, তা ওইসব সার্ভিস প্রোভাইডারদের উৎসাহ দেবে এবং গ্রাহকদের প্রত্যাশা পূরণে সহায়তা করবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি ওয়াই-ফাইয়ের ব্যবহার কমানোর জন্য ৪জি ব্যবহারকারীদের তুলনায় ৫জি ইউজারদের প্রতি সপ্তাহে (প্রাথমিক পর্যায়ে) গড়ে ক্লাউড গেমিংয়ে ২ ঘণ্টা এবং অগমেন্টেড রিয়ালিটি (AR) অ্যাপসের ক্ষেত্রে এক ঘণ্টা অতিরিক্ত সময় ব্যয় করতে হবে।

তবে ইন্টারনেট স্পিড নিয়ে ৫জি ইউজাররা খুশি হলেও, প্রায় ৭০ শতাংশ ইউজার উন্নত মানের সার্ভিস পাওয়ার বিষয়ে অসন্তুষ্ট রয়েছেন। গ্রাহকরা বলেছেন যে, ডিজিটাল সার্ভিস ব্যবহারের ক্ষেত্রে উন্নত মানের ৫জি পরিষেবা পাওয়ার জন্য তাঁরা ২০ থেকে ৩০ শতাংশ বেশি টাকা দিতেও রাজি। তবে পরিষেবা প্রাথমিক অবস্থায় খারাপ থাকবে বলে তাদের অভিমত।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, ভারতে ৫জি-র ১০ জন সম্ভাব্য প্রাথমিক গ্রহীতাদের মধ্যে কমপক্ষে ৭ জন ৪জি-র চেয়ে অনেক বেশি হাই-স্পিড ইন্টারনেট পাবেন বলে মনে করছেন। আর প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৬ জন ভাবছেন যে ৪জি-র তুলনায় খরচ অনেকটা বেড়ে যাবে। এর পাশাপাশি তাঁরা কমিউনিকেশন সার্ভিস প্রোভাইডারদের (CSP) কাছ থেকে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ৫জি ডেটা শেয়ারের অপশন বা একাধিক ডিভাইসের মধ্যে ইন্টারনেট শেয়ারিংয়ের অপশন পাওয়া যাবে বলে আশা করছেন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।