মনের মানুষ খুঁজতে ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করেন? এই কাজগুলি করা থেকে বিরত থাকুন

বর্তমান সময়ে মনের মানুষ খুঁজে নিতে অনেকেই বিভিন্ন ডেটিং অ্যাপ (Dating Apps) ব্যবহার করছেন। মাত্র কয়েক মিনিটেই এই ভার্চুয়াল অ্যাপগুলি, ইউজারদের নতুন বন্ধু খুঁজে দেয়। এই অ্যাপগুলি নিঃসন্দেহে মজাদার বটে, কিন্তু অন্যান্য সমস্ত অনলাইন সার্ভিসের মতই এগুলিরও কিছু ক্ষতিকারক দিক রয়েছে। যার মধ্যে সবচেয়ে বিপজ্জনক হল বিভিন্ন স্ক্যামার এবং স্টকারের ফাঁদে পড়া। অনেকেই, অচেনা ব্যক্তির সাথে ব্যক্তিগত তথ্য সরবরাহ করায় তেমন কোনো ক্ষতি নেই ভেবে নিশ্চিন্তে এই সমস্ত অ্যাপ ব্যবহার করেন। কিন্তু ইউজারদের অজান্তেই তাদের ডেটা বিভিন্ন উদ্দেশ্যে ব্যবহার হতে পারে। আজ আমরা এই পোস্টে জানাবো ডেটিং অ্যাপ ব্যবহারের সময় আপনার কোন কোন বিষয় মাথায় রাখার দরকার।

১. ডেটিং অ্যাপগুলির সাথে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের সংযুক্তি

অনেক ইউজারই ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করার সময় সেগুলির সাথে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলি সংযুক্ত করে রাখেন। কিন্তু এই বিষয়টি একেবারেই নিরাপদ নয়, বিশেষত ইউজাররা যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই সক্রিয় থাকেন। এক্ষেত্রে স্ক্যামাররা খুব সহজেই আপনার ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম পেজগুলি ট্র্যাক করে ফিশিং মেসেজ কাস্টমাইজ করতে পারে। যেমন, আপনি যদি পশুপ্রেমী হন এবং আপনার ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে বিভিন্ন পশুর ছবি ভিডিও ভর্তি থাকে তাহলে স্ক্যামাররা কোনো অসহায় পশুকে বাঁচানোর অনুরোধ করে অনুদান চেয়ে ফিশিং ম্যাসেজ পাঠাতে পারে।

২. একই প্রোফাইল ফটো সব জায়গায় ব্যবহার করা

এক্ষেত্রে আমরা পরামর্শ দেব ডেটিং অ্যাপ্লিকেশনগুলির জন্য সবসময়ই আলাদা প্রোফাইল ফটো ব্যবহার করুন। কারণ কোনো স্টকার, গুগল ইমেজ রিভার্স সার্চ ফিচারের মাধ্যমে, আপনার অনলাইন অ্যাক্টিভিটি ট্র্যাক করতে পারে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, আপনি যদি একই প্রোফাইল ফটো সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল, লিংকডইন এবং অন্যান্য ওয়েবসাইটগুলিতে সেট করে রাখেন, আবার সেই ছবিটিই ডেটিং অ্যাপ্লিকেশনে দিয়ে রাখেন সেক্ষেত্রে দুরাভিসন্ধীরা কেবলমাত্র আপনার ছবি গুগলিং করে আপনার লিঙ্কডইন প্রোফাইল বা অন্যান্য তথ্য ব্রাউজ করতে পারবেন।

৩. একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা

ডেটিং অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে প্রাইমারি ইমেল আইডি, ফোন নম্বর বা একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা ডেটা সুরক্ষার ক্ষেত্রে নিরাপদ নয়। ডেটিং অ্যাপগুলিতে সাইন-ইন করার জন্য অন্য কোনো ইমেল আইডি ব্যবহার করা এবং ফোন নম্বর ব্যবহার না করাটাই শ্রেয়। এছাড়া, ডেটিং অ্যাপের জন্য সবসময় আলাদা পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন যা সাধারণত অন্য কোনো অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করেননা।

৪. অত্যধিক ব্যক্তিগত শেয়ার করা

ডেটিং অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে নিজের স্কুলের নাম, কলেজ, অফিস, পদবি, কাজের প্রোফাইল ইত্যাদি ব্যক্তিগত তথ্য বেশি শেয়ার করবেন না। কারণ স্ক্যামাররা এই তথ্যগুলি সংগ্রহ করে আপনাকে ট্র্যাক করতে পারে। পাবলিক প্রোফাইলে নিজের জন্ম তারিখ এবং ঠিকানা শেয়ার করা থেকেও বিরত থাকুন। এই তথ্য ব্যবহার করে সহজেই আপনার পরিচয় চুরি করা যেতে পারে। এছাড়া, ডেটিং অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে আপনার আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে কোনোরকম আপডেট দেবেন না।

৫. প্রোফাইল ভেরিফিকেশন

অনেক ডেটিং সাইট বা বিবাহ বিষয়ক ওয়েবসাইটগুলি ইউজারের প্রোফাইল ভেরিফিকেশন করার জন্য পাসপোর্ট, ভোটার আইডি কার্ড, আধার কার্ডের মতো সরকারী নথির আপলোড করার জন্য অনুরোধ করে। মনে রাখবেন, এই ডেটাগুলি ওয়েবসাইট বা অ্যাপ স্রষ্টাদের কাছে সেভ থাকে। কোনোভাবে এগুলি হ্যাকিংয়ের শিকার হলে ইউজারের সরকারী আইডি ডিটেইলস সহজেই অ্যাক্সেস করা যাবে।