সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টে বসলো 5G টাওয়ার, ১ সেকেন্ডে স্পিড ২ জিবির কাছাকাছি

বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টে এবার 5G নেটওয়ার্ক পৌঁছে গেল। হিমালয়ের এই সবচেয়ে উঁচু পর্বত শৃঙ্গে চীনা মোবাইল অপারেটর চায়না মোবাইল এবং হুয়াওয়ে যৌথভাবে ৫জি টাওয়ার বসিয়েছে। এই টাওয়ার লাগানোর কারণে এবার এখানে খারাপ আবহাওয়াতেও ভালো নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি পাওয়া যাবে। এখানে লাগানো এই টাওয়ার থেকে ১.৭জিবিপিএস পর্যন্ত পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে। চায়না মোবাইল এর তরফে বলা হয়েছে, আমরা চীনের দুটি গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য কে স্মরণ করে রাখতে এই টাওয়ার লাগিয়েছি। যার একটি হল এবছর সফল এভারেস্ট মিশনের ৬০ বছর পূর্ণ হচ্ছে, অন্যটি এই শিখরের উচ্চতার পরিমাপের ৪৫ বছর পূর্ণ করছে চীন।

Huawei Mobile সবচেয়ে উঁচুতে এই 5G মোবাইল টাওয়ারকে পাঁচটি বেস স্টেশনে তৈরি করেছে। একে বেস ক্যাম্প (৫,৩০০ মি), ট্রানজিশন ক্যাম্প (৫,৮০০ মি) এবং ফরোয়ার্ড ক্যাম্প (৬,৫০০ মিটার) এর উপর লাগানো হয়েছে। হুয়াওয়ের জানিয়েছে, তারা একটি ইউনিক কেস স্টাডি করার জন্যও এই সাইটটি তৈরি করেছে। হুয়াওয়ের দাবি, এই বেস স্টেশনটির ক্ষমতা সাধারণ বেস স্টেশনের থেকে ২০ গুণ বেশি। এই বেস স্টেশনে ১.৭জিবিপিএস পর্যন্ত ডাউনলোডিং স্পিড এবং ২১৫ এমবিপিএস পর্যন্ত আপলোড স্পিড পাওয়া যাবে।

আপনাকে জানিয়ে রাখি হুয়াওয়ে ছাড়াও সারা বিশ্বে ৫জি নেটওয়ার্ক বসানো নিয়ে টেলিকম কোম্পানিগুলির সাথে কাজ করছে Nokia, Ericsson, Cisco এর মত কোম্পানি। 5G অর্থাৎ পঞ্চম জেনারেশন নেটওয়ার্ক টেকনোলজি বর্তমানে উপলব্ধ 4G এর তুলনায় ১০ গুন ভালো নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি প্রদান করে।

যদিও এই নেটওয়ার্ক বসানো নিয়ে অনেকেই অখুশি। অনেকের অভিমত ৫জি নেটওয়ার্ক পরিবেশের ক্ষতি করবে। এমনকি এর কারণে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে বলেও অনেকে জানিয়েছে। যদিও এসবই ভিত্তিহীন অভিযোগ। ৫জি এর কারণে এধরণের কোনোসমস্যার প্রমান এখনও মেলেনি।

WhatsApp এ সব খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন।