বেসরকারি কর্মচারীদের জন্যও এবার আরোগ্য সেতু ব্যবহার বাধ্যতামূলক করলো কেন্দ্র সরকার

কয়েকদিন আগেই সরকারি কর্মচারীদের জন্য করোনা ভাইরাস ট্র্যাকিং অ্যাপ আরোগ্য সেতুকে বাধ্যতামূলক করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। যার পরে দেশজুড়ে বিতর্ক ও শুরু হয়। এবার শুক্রবার সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, বেসরকারি কর্মচারীদের ও Aarogya Setu ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হল। এছাড়াও কর্মচারীদের এই অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করা সুনিশ্চিত করার দায়িত্ব আরোপ করা হয়েছে সেই সংগঠনের মুখপাত্রদের ওপর।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে আজ একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে করোনা ভাইরাস কনটেইনমেন্ট জোনে থাকা ব্যক্তিদের জন্য এই অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে,” উপরিউক্ত অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করা প্রাইভেট এবং পাবলিক দুই ধরনের কর্মচারীদের জন্যই বাধ্যতামূলক। এবং আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহার সমস্ত সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে বাধ্যতামূলক করা সেই সংগঠনের মুখপাত্রদের নিজেদের দায়িত্ব হওয়া উচিত।”

গত ২ এপ্রিল ভারত সরকার করোনা ভাইরাস ট্র্যাকিং অ্যাপ হিসাবে একটি অ্যাপ লঞ্চ করেছিল যার নাম আরোগ্য সেতু। এই অ্যাপটি ব্যবহার করা হচ্ছে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে দেশকে সুরক্ষিত করার জন্য। এই অ্যাপ্লিকেশনটি ব্লুটুথ এবং লোকেশন ডাটা ব্যবহার করে ব্যবহারকারীর ডিভাইসকে ট্র্যাক করে এবং তাদের চলাচল পর্যবেক্ষণ করে।

যদি কোনো ব্যক্তির কখনো করোনাভাইরাস পজিটিভ এসে থাকে তাহলে, গত ১৪ দিন ধরে যারা তার সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদেরকে নোটিফাই করা হয়। এছাড়াও এই অ্যাপ্লিকেশনে কাছাকাছি থাকা টেস্টিং সেন্টার এবং কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ডিটেইলসও রয়েছে। শুধু তাই নয় এটি একটি চ্যাটবট এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত থাকার পরামর্শ দেয়।