লকডাউনে রাস্তায় বেরোতে ই-পাস হিসাবে কাজ করবে আরোগ্য সেতু

বর্তমানে ভারত সরকারের তরফ থেকে করোনা। ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া পর্যবেক্ষণ করার জন্য প্রত্যেক ভারতবাসীকে আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করার অনুরোধ করা হচ্ছে। তবে শুধুমাত্র এই কাজেই নয়, এবার থেকে আরোগ্য সেতু অ্যাপটিকে একটি ই-পাস হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে, যাতে আপনারা লকডাউনের সময় বাড়ি থেকে বেরিয়ে কাজ করতে পারেন।

এই পদক্ষেপের ফলে অনেক বেশি পরিমাণে এই অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড হবে এবং সরকারের কাছে আরো বেশি করে করোনাভাইরাস জড়িত ডেটা পৌঁছবে বলে ধারণা ভারত সরকারের। এর সাথে ডেলিভারি বয় বা জরুরি কাজে নিযুক্ত মানুষরা ই-পাস নিয়ে বাইরে বার হতে পারবে।

যদিও এখনও ভারত সরকারের তরফ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ঘোষণা করা হয়নি। তবে সূত্রের খবর আর কিছুদিনের মধ্যে এই অ্যাপ্লিকেশনটি ভারতের জনগণের জন্য ই-পাস হিসেবে কাজ করবে। এপ্রিল মাসে লঞ্চ হওয়া এই অ্যাপ্লিকেশনটি স্মার্ট ফোনের লোকেশন ডেটা এবং ব্লুটুথ কানেকশনের মাধ্যমে আপনাকে জানায় যে, আপনি কোন কারণে আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি আছেন কিনা। এছাড়াও এই অ্যাপ্লিকেশনে আপনি সারা ভারতের করোনাভাইরাস ডেটাবেস দেখতে পারবেন। ইতিমধ্যেই গুগল প্লে স্টোরে, এই অ্যাপ্লিকেশনটির ১০ মিলিয়ন ডাউনলোড হয়ে গিয়েছে। অ্যাপেল এর তরফ থেকে এখনো ডাউনলোড সংখ্যা জানানো হয়নি, তবে বর্তমানে আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনটি অ্যাপল অ্যাপ স্টোরের ১ নম্বর হেল্থ এবং ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশন হয়ে উঠেছে।

আসুন দেখে নিই এই অ্যাপটি চালানোর জন্য আপনাকে কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে-

• অ্যাপটি ডাউনলোড করা মাত্রই প্রথমে আপনার কাছে একটি পপ আপ আসবে যেখানে আপনাকে আপনার ডিভাইসের লোকেশন অ্যালাউ করতে হবে।

• তারপর আপনার কাছে একটি ওটিপি পাঠানো হবে যা আপনাকে ওই অ্যাপে বসাতে হবে।

• এরপর আপনাকে আপনার লিঙ্গ বেছে নিতে হবে এবং তারপর নিজের পুরো নাম বয়স এবং আপনার পেশা লিখতে হবে।

• তারপর আপনার কাছে আপনার বিগত এক মাসের বিদেশযাত্রার নথি চাওয়া হবে। যদি আপনার বিদেশযাত্রার কোন ইতিহাস থাকে তাহলে আপনার ডাটা ম্যাচ করানো হবে এখনও অবধি ভারতে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের সাথে। এভাবেই আপনারা জানতে পারবেন যে আপনি কোন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন কিনা।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।