১৯ বছর পর আজ আকাশে দেখা যাবে নীল চাঁদ, হ্যালোইনের রাতে দুর্লভ দৃশ্য

সেই ২০০১ সালের পর আবারও আজ অর্থাৎ ৩১শে অক্টোবর আকাশে ব্লু মুনের দেখা মিলবে। আসলে যখন একমাসের মধ্যে দুটি পূর্ণিমা পড়ে, ঠিক তখনই দ্বিতীয় পূর্ণচন্দ্রটিকে ব্লু মুন বলা হয়। আরেকটি লোককথা অনুযায়ী একটি মরশুমের মধ্যে চারটি পূর্ণিমা হলে, তৃতীয় চাঁদটিকে ব্লু মুন বলা যেতে পারে। তবে ব্লু মুনে ইতিহাস আলোচনার জন্য এই প্রতিবেদন নয়। আজ একটি দুর্লভ মুহূর্ত, যা আমাদের দৃষ্টিকে সার্থক করবে, তার কথাই এখানে আমরা আলোচনা করবো।

নাসার রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রতি তিনবছর অন্তর এই ব্লু-মুন আমাদের দেখা দেয়। অর্থাৎ পরবর্তী ব্লু-মুন আমরা দেখতে পাবো ২০২৩ সালে। কিন্তু হ্যালোইনের রাতে ব্লু-মুন? উনিশ বছরের ব্যাবধানে মাত্র একটিবার নাকি তার দেখা মেলে! এই ঘটনা Metonic Cycle নামে পরিচিত। আজ থেকে ১৯ বছর আগে শেষ এই বিরল মুহূর্তটি তৈরী হয়েছিল। তবে বিশ্বের সর্বত্র সেটি দেখা যায়নি। আজ বিশ্বের সব অঞ্চল থেকে এই ব্লু-মুন দেখা যাবে। পূর্বে এটি সম্ভব হয়েছিল ৭৬ বছর আগে ১৯৪৪ সালে! হ্যাঁ, সত্যিই দুর্লভ বৈকি!

ব্লু-মুন নাম হওয়ার মানে এই নয় যে সম্পূর্ণ নীল রঙের চাঁদ দেখা যাবে। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে থাকা ধুলো ও ধোঁয়ার কণার ফলেই চাঁদকে আমরা নীল দেখি। মহাকাশ বিজ্ঞানীরা এরজন্য পৃথিবীর কৌণিক অবস্থানের ভূমিকাকে দায়ী করেন।

এদিকে পশ্চিমের দেশগুলিতে আগামীকাল গা ছমছমে ভয়ের পরিবেশ তৈরীতে এই নীলাভ চাঁদের বিশেষ ভূমিকা থাকবে। আসলে সাধারণভাবে সমস্ত মানুষই প্রায় ভয় পেতে ভালোবাসেন। হ্যালোইন এমনই একটি ভয়ের উৎসব, যেখানে পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশের মানুষ ভৌতিক সাজে সেজে সারা রাত ধরে ‘ভয়’ উপভোগ করেন! আমরা বাঙালিরাও ভূতচতুর্দশীর রাতে ঠিক এভাবেই পৃথিবীতে পূর্বপুরুষের প্রেতের অস্তিত্বের কথা কল্পনা করে শিহরিত হই, তাদের উদ্দেশ্যে দীপ জ্বালাই।

আজকের পর হ্যালোইনের রাতে ব্লু-মুন আবার দেখা যাবে উনিশ বছর বাদে ২০৩৯ সালে। উনিশ বছর মানে দুটি দশক। দুই দশকে ঘটে যায় একাধিক উত্থান-পতন। বেঁচে থাকাকে কেন্দ্র করে নতুন নতুন আতঙ্ক ও আশ্বাসের মুখোমুখি দাঁড়ান সাধারণ মানুষ। ভবিষ্যতের কথা কেউ বলতে পারেনা। তাই আজ আকাশে চোখ রাখুন, বিরল মুহূর্তে বিগত উনিশ বছর বা আরো পিছনের দিনগুলিকে স্মরণ করুন। দেখুন কি কি হারিয়ে এসেছেন। পেয়েছেনই বা কতটুকু। আরো উনিশ বছর কেটে যাওয়ার আগে‌‌‌‌‌‌ আপনার এই অভিজ্ঞতার সাক্ষী থাকবেন শুধুমাত্র আপনি আর ব্লু-মুন।

One of the newest members of the Techgup Family. Soumo grew his liking for gadgets almost a decade back while searching for his first smartphone, and started writing about tech recently in 2020