রেল 35 টাকা দেয়নি, 2 বছরের লড়াইয়ে 33 টাকা ফেরত পেল যুবক

আপনাদের মধ্যে অনেকেই আইআরসিটিসি থেকে অনলাইনে টিকিট বুক করেন। কখনো টিকিট যদি ওয়েটিংএ থাকে তাহলে আমরা সেই টিকিট ক্যানসেল করি। এরপর রেলওয়ে ক্যান্সেলেশন চার্জ কাটার পর বাদবাকি টাকা ফেরত দেয়। আমরা মাঝেমাঝে খোঁজও করিনা রেল কত টাকা ফেরত দিলো।

আপনি ও আমার মতোই ভারতীয় রেলের আইআরসিটিসি থেকে অনলাইনে টিকিট কেটেছিল রাজস্থানের এক ইঞ্জিনিয়ার। কিন্তু তার টাকা ফেরত দেওয়ার সময় রেল 65 টাকার বদলে 100 টাকা কেটে নেয়। এই ইঞ্জিনিয়ারের নাম সুজিত স্বামী।

ঘটনা হলো সুজিত 2017 সালে গোল্ডেন টেম্পল ট্রেনে কোটা থেকে দিল্লি যাওয়ার টিকিট 765 টাকায় বুক করেছিল। এরপর কনফার্ম না হওয়ার জন্য সে সেই টিকিট ক্যানসেল করে। এরপর সুজিত রেলওয়ে থেকে 665 টাকা ফেরত পায়। যদিও তার পাওয়ার কথা ছিল 700 টাকা। রেলওয়ে ক্যান্সেলেশন চার্জ হিসাবে 100 টাকা কেটে নেয় যেখানে নিয়ম অনুযায়ী 65 টাকা কাটার কথা।

এরপর সুজিত রেলওয়েকে এই বিষয়ে অভিযোগ জানিয়েও কোনো সমাধান পাইনি। কোনো পথ খোলা না পেয়ে সুজিত একটি আরটিআই দাখিল করে, যেখানে আইআরসিটিসি থেকে বলা হয় জিএসটি লাগু হওয়ার আগে বুক করা সমস্ত টিকিটে ক্যান্সেলেশন চার্জ ছাড়াও সার্ভিস ট্যাক্স ফেরত দেওয়া যাবেনা। এই জন্য 65 টাকা ক্যান্সেলেশন চার্জ বাবদ এবং 35 টাকা সার্ভিস ট্যাক্স বাবদ কাটা হয়েছে।

এরপর অন্য একটি আরটিআই এর জবাবে আইআরসিটিসি জানায় 1 জুলাই 2017 আগে বুক করা সমস্ত টিকিটের সার্ভিস ট্যাক্স ফেরত দেওয়া হবে। এরফলে 35 টাকা সুজিতের ফেরত পাওয়া উচিত। সুজিত এই অভিযোগে আদালতে কেস করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু আদালত জানায় এটি তাদের ক্ষেত্রের বাইরে। এভাবে 2 বছর কেটে যায়। সম্প্রতি 4 মে, 2019 আইআরসিটিসি সুজিতের অ্যাকাউন্টে 33 টাকা ফেরত দিয়েছে। কিন্তু দুইবছর পর টাকা ফেরত দিলেও 35 টাকার বদলে 33 টাকা কেন দেওয়া হলো সুজিতের কাছে সে উত্তর নেই। সুজিত জানিয়েছে এই 2 টাকার জন্যও সে নতুন লড়াই লড়বে।

সব খবর পড়তে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন

পড়ুন : ঘুমের মধ্যে যুবক গিলে ফেললেন AirPods, পেটে শুনলেন আওয়াজ, তারপর ?

Last Updated on