এক সেকেন্ডে ডাউনলোড হবে ১ জিবি! বিমানে ব্যবহার শুরু হলো Li-Fi এর

Air France বিশ্বের প্রথম কমার্শিয়াল ফ্লাইট অপারেটর হিসাবে উঠে এলো, যারা বিমানের মধ্যেও যাত্রীদের ইন্টারনেট কানেক্টিভিটি অফার করছে। এই পরিষেবা দেওয়ার জন্য কোম্পানি Oledcomm এর সাথে হাত মিলিয়েছে। এই পরিষেবায় Li-Fi এর মাধ্যমে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটি উপলব্ধ করা হবে। এবার আপনি প্রশ্ন করতেই পারেন এ আবার কেমন Li-Fi যে বিমানের মধ্যে ইন্টারনেট পৌঁছাবে। তো আপনাকে বলি এটি একটি লাইট ভিত্তিক ওয়্যারলেস ইন্টারনেট সিস্টেম, যেটি ১০০ এমবিপিএস থেকে ১ জিবিপিএস পর্যন্ত ইন্টারনেট স্পিড অফার করে। এই প্রযুক্তির মাধ্যমে, এলইডি বাল্ব থেকে নির্গত হালকা বিমের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেট সংযোগ সরবরাহ করা যেতে পারে।

১০০ এমবিপিএস থেকে ১ জিবিপিএস পর্যন্ত ইন্টারনেট স্পিড :

এয়ার ফ্রান্স এবছরই তাদের বিমানে এই প্রযুক্তি কাজে লাগিয়েছে। এরজন্য তারা এরোপ্লেনের যন্ত্রাংশ তৈরী কোম্পানি Latécoère গ্রুপ এবং Oldecomm এর সাথে মিলে কাজ করেছে। ওল্ডকোম বর্তমানে ১০০ এমবিপিএস গতির সাথে LiFiMax প্রযুক্তি সরবরাহ করে। তবে কোম্পানি জানিয়েছে খুব শীঘ্রই তারা ১ জিবিপিএস ইন্টারনেট স্পিড অফার করবে।

Li-Fi কিভাবে কাজ করে :

Li-Fi হলো Light Fidelty এর শর্ট ফর্ম। এই প্রযুক্তি ২০০৫ সালে প্রথম ডেভেলপ করা হয়েছিল। ২০১২ থেকে ওল্ডকোম এই প্রযুক্তির স্পিড ও নির্ভরযোগ্যতা নিয়ে টেস্ট করছে। কোম্পানির LiFiMax সিস্টেম একধরণের মডেম যেটিকে ঘরের সিলিংএ সেট করা হয়। এটি লাইটের রশ্মি নির্গত করে, যার মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপন করা হয়। এই মডেমটি ইউএসবি ডঙ্গলের মাধ্যমে সংযুক্ত করা যেতে পারে। Li-Fi সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো এটি একটি খুব সুরক্ষিত সিস্টেম।

এয়ার ফ্রান্স এই প্রযুক্তিটি পরীক্ষা করতে বিমানের ১২টি আসনে লাগিয়েছিল। এর পরে, নির্বাচিত যাত্রীদের এটি পরীক্ষা করার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। বিমানটির ভিতরে একটি ই-গেমিং টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছিল, যেখানে এই প্রযুক্তির মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগ উপলব্ধ করা হয়েছিল। যাত্রীরা একটি দল তৈরী করে এবং টুর্নামেন্টটি খেলে এটিকে পরীক্ষা করেছে।

সমস্ত খবরের আপডেট পেতে এখানে লাইক দিন!