৩ হাজার টাকায় ঘরে নিয়ে যান স্মার্টফোন, ১০ মাসের লোন দিচ্ছে Airtel ও ICICI ব্যাংক

Airtel এবং ICICI ব্যাংক যৌথভাবে গ্রাহকদের জন্য লকড ডিভাইস নির্ভর ঋণদানের পরিষেবা নিয়ে এলো। সম্ভবত Nokia C3 হ্যান্ডসেটের সঙ্গে এই পরিষেবা মিলবে। এই স্কীম অনুযায়ী এয়ারটেল গ্রাহকেরা স্মার্টফোন কেনার জন্য ঋণ পেতে পারেন। এর বদলে তাদেরকে এয়ারটেলের সিম ব্যবহার করতে হবে। আসুন এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

ICICI ব্যাংকের সাথে গাঁটছড়া বেঁধে Airtel এই অফারে গ্রাহকদের 4G স্মার্টফোন কেনার জন্য ৬০৯৯ টাকা লোন প্রদান করবে। স্মার্র্টফোন কেনার সময় গ্রাহককে ২,৯৯৯ টাকা ডাউন-পেমেন্ট করতে হবে। লোনের বাকি অংশ পরিশোধ করার জন্য ১০ মাসের EMI ব্যবস্থা আছে, যার সাথে রিচার্জ প্ল্যানও যুক্ত থাকবে।

জানিয়ে রাখি, প্রাথমিকভাবে ডাউন-পেমেন্ট হিসেবে ২,৯৯৯ টাকা না দিলে আপনি এয়ারটেল কানেকশনটি ব্যবহার করতে পারবেন না। ডাউন পেমেন্ট বাদে ঋণের বাকি অংশ পরিশোধের ক্ষেত্রে ইন্টারেস্ট রেট নির্দিষ্ট। অর্থাৎ, ১৯ শতাংশ সুদ সহ দশ মাসের মধ্যে এই অর্থ গ্রাহক সংস্থাকে ফিরিয়ে দেবেন। এর জন্য এয়ারটেল আপনাকে নির্দিষ্ট ট্যারিফ প্ল্যান রিচার্জ অপশন দেবে।

এছাড়া ইএমআই শোধ করতে দেরী হলে এয়ারটেল জিএসটি সহ মাসিক ২৫ টাকা চার্জ করবে। এমনকি চাইলে তারা ফোনকে লক পর্যন্ত করে দিতে পারেন। Airtel এর তরফে আরও জানানো হয়েছে যে, লোন দেওয়ার সময় প্রসেসিং ফি হিসেবে গ্রাহকদের থেকে ৮৫ টাকা নেওয়া হবে, যার সঙ্গে যুক্ত হবে জিএসটি মূল্য।

মনে রাখা প্রয়োজন, স্কীমের সময়সীমার মধ্যে গ্রাহককে ইএমআইয়ের মাধ্যমে পুরো ঋণ শোধ করতে হবে। এই দশ মাস এয়ারটেলের নির্ধারিত রিচার্জ প্ল্যান ছাড়া গ্রাহক অন্য কোন প্ল্যান ব্যবহার করতে পারবেন না। এমনকি তারা প্রিপেড থেকে পোস্টপেড কানেকশনেও আসতে পারবেনা। আবার ওই সময়ের মধ্যে কোনো স্পেশাল রিচার্জ প্ল্যানও কাজ করবেন। তবে স্কীমের চুক্তির সময়কাল ফুরোলে আপনি যে কোন রিচার্জ অপশন বেছে নিতে পারেন। এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

One of the newest members of the Techgup Family. Soumo grew his liking for gadgets almost a decade back while searching for his first smartphone, and started writing about tech recently in 2020