ফের বাড়তে চলেছে মোবাইল ব্যবহারের খরচ, ১৬০ টাকায় ১.৬ জিবি ডেটা দিতে চায় এয়ারটেল

মিত্তাল, এয়ারটেল ইউজারদের "প্রিপেয়ার টু পেমেন্ট মোর" অর্থাৎ আরো বেশি খরচের জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন।

airtel-subscribers-get-ready-price-hike
airtel-subscribers-get-ready-price-hike

বিগত এক বছরে মোবাইল নেটওয়ার্কিংয়ের খরচা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। প্রতিমাসে মোটা অঙ্কের টাকা খরচ হচ্ছে শুধু মাত্র মোবাইল রিচার্জের জন্য। তবে ইউজারদের হতাশা আরো বাড়তে চলেছে, শোনা যাচ্ছে খুব শিগগিরই বাড়তে পারে ট্যারিফ শুল্ক। সম্প্রতি Bharati Airtel সংস্থার চেয়ারম্যান সুনীল ভারতী মিত্তাল এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন। একটি ইভেন্টে মিত্তাল, এয়ারটেল ইউজারদের “প্রিপেয়ার টু পেমেন্ট মোর” অর্থাৎ আরো বেশি খরচের জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন।

মিত্তাল মনে করেন, ইউজাররা ১৬০ টাকার বিনিময়ে ১৬ জিবি ডেটা পান, কিন্তু ওই টাকায় তাদের কেবল ১.৬ জিবি ডেটা পাওয়া উচিত। যার মানে, Airtel, তার গ্রাহকদের কাছে প্রতি ১ জিবি ডেটা পিছু ১০০ টাকা চার্জ দাবি করতে পারে। তিনি আরো বলেন, ইউজাররা যদি প্রতি মাসে ১.৬ জিবির বেশি ডেটা চায় তবে তাদের আরও বেশি টাকা ব্যয় করতে হবে। তবে মিত্তাল সাফাই দিয়েছেন, “আমরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা ইউরোপের মতো ৫০-৬০ ডলার চাইনা, তবে ২ ডলারের (প্রায় ১৬০ টাকা) বিনিময়ে ১৬ জিবি ডেটা দেওয়া সংস্থার জন্যে মোটেও ভালো চুক্তি নয়।”

পিটিআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যে এয়ারটেলের ARPU (অ্যাভারেজ রেভেনিউ পার ইউজার) বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৭ টাকায়। এদিকে মিত্তাল মনে করেন, ব্যবসায় লাভের জন্য তাদের প্রতিমাসে ইউজার পিছু ৩০০ টাকা গড় রেভেনিউ দরকার।

বর্তমানে এয়ারটেল, ১৯৯ টাকার বিনিময়ে দৈনিক ১ জিবি দৈনিক ডেটা অফার করে, প্ল্যানটির বৈধতা ২৪ দিন। তবে আগামী দিনে এয়ারটেল এই প্ল্যানে দৈনিক ১০০ এমবি করে মোট ২.৪ জিবি ডেটা দিতে পারে। ইউজাররা যদি নেটওয়ার্ক থেকে ফোন, এসএমএস এবং নির্দিষ্ট ডেটা লিমিটের বাইরে বিশেষ পরিষেবা চায়, তবে এর জন্য অবশ্যই তাদের বেশি টাকা দিতে হবে।