কেবল এয়ারটেল গ্রাহক নন, সবার জন্য হাজির Airtel Xstream টিভি পরিষেবা

ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম সংস্থা Airtel এবার সমস্ত গ্রাহকদের জন্য তাদের Airtel Xstream পরিষেবা উপলব্ধ করল। এতদিন পর্যন্ত কেবলমাত্র এয়ারটেল গ্রাহকরাই এক্সস্ট্রিম পরিষেবা উপভোগ করতে পারতেন। কিন্তু দীর্ঘ অপেক্ষার পর সংস্থাটি এয়ারটেল গ্রাহক ছাড়াও অন্যান্যদের জন্যেও এক্সস্ট্রিম পরিষেবা ব্যবহারের সুবিধা নিয়ে এসেছে। ফলে এবার থেকে যে কোন টেলিকম অপারেটরের উপভোক্তা এয়ারটেল এক্সস্ট্রিম সাবস্ক্রিপশন করতে পারবেন। এর জন্য তাকে মাত্র ৪৯৯ টাকা ব্যয় করতে হবে। Airtel Xstream পরিষেবায় আপনি ৩৫০ -এর বেশি লাইভ টিভি চ্যানেল, জনপ্রিয় টিভি শো, অসংখ্য ব্লকবাস্টার সিনেমা এবং অরিজিনালসের স্বাদ উপভোগ করতে পারবেন। সুতরাং দেরী না করে আসুন এই বিষয়ে বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

এতদিন পর্যন্ত এয়ারটেল এক্সস্ট্রিম পরিষেবা অ্যাক্সেস করার সুযোগ পেতেন শুধুমাত্র এয়ারটেল প্রিপেড, পোস্টপেড, ডিটিএইচ ও ব্রডব্যান্ড ব্যবহারকারীরা। অনেক পোস্টপেড ও ব্রডব্যান্ড প্ল্যানের সঙ্গে বিনামূল্যে এয়ারটেল এই পরিষেবা প্রদান করতো। যদিও বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশনের জন্য গ্রাহককে ৪৯৯ টাকা খরচ করতে হত। এবার সমপরিমাণ টাকার বিনিময়ে Vi বা BSNL গ্রাহকেরাও এয়ারটেল এক্সস্ট্রিমের প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন কেনার সুযোগ পাবেন। এই সাবস্ক্রিপশনটি পুরো এক বছর বৈধ থাকবে।

জানিয়ে রাখি, এয়ারটেল এক্সস্ট্রিম পরিষেবাটি ইংরেজি, হিন্দী, তামিল, তেলেগু, বাংলা, কন্নড়, মালয়ালাম, মারাঠি, ওড়িয়া, অসমীয়া, পাঞ্জাবি, ভোজপুরি, গুজরাটি এবং উর্দুর মত একাধিক ভাষায় উপলব্ধ। এর ৪৯৯ টাকার প্রাথমিক মূল্যের সাবস্ক্রিপশন গ্রহণ করলে একজন গ্রাহক মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ৩৫০টি লাইভ টিভি চ্যানেল দেখতে পাবেন। অন্যদিকে এয়ারটেল এক্সস্ট্রিমের ওয়েব ভার্সনে ১০০ টিরও বেশি লাইভ চ্যানেল সাপোর্ট রয়েছে। তবে এয়ারটেল জানিয়েছে সম্প্রতি তারা স্পোর্টস, এন্টারটেইনমেন্ট সহ বিভিন্ন জনরার আরো ৭৩টি চ্যানেল সম্প্রতি যোগ করেছে।

লাইভ টিভি ছাড়াও এয়ারটেলের স্ট্রিমিং পরিষেবার মাধ্যমে গ্রাহক প্রায় ১০,০০০ সিনেমা এবং ১০০টি জনপ্রিয় টিভি শো অ্যাক্সেসের সুযোগ পাবেন। আবার ক্যাচ-আপ টিভি সাপোর্ট থাকায় এর মাধ্যমে আপনি পছন্দের টিভি শো’র বিগত সাত দিনের সম্প্রচার গুলি দেখতে পারবেন। সর্বোপরি এয়ারটেলের এই স্ট্রিমিং পরিষেবাটি আপনাকে Voot, Zee5, Hungama, Eros Now, Youtube, ShemarooMe, ShareIt সহ একাধিক প্ল্যাটফর্মের কনটেন্ট অ্যাক্সেস করার সুবিধা এনে দেবে।

এয়ারটেল এক্সস্ট্রিম পরিষেবার সবথেকে বড় সুবিধা হল এটি ক্রোমকাস্ট সাপোর্টের সঙ্গে এসেছে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে আপনি নিজের টেলিভিশন স্ক্রিনেই পছন্দের কনটেন্টটি পাবেন। উল্লেখ্য, টেলিকম জগতে এয়ারটেলের প্রধানতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিলায়েন্স জিও’র লাইভ টিভি পরিষেবাও বেশ জনপ্রিয়। তবে এক্ষেত্রে উপভোক্তাকে আলাদা আলাদা অ্যাপের শরণাপন্ন হতে হয়। এয়ারটেল এক্সস্ট্রিমে এই সমস্যা নেই, তাই এটির ব্যবহার সম্পূর্ণরূপে ঝঞ্ঝাটবিহীন।