বিদেশে নয়, এবার ভারতেই তৈরী হবে Amazon Fire TV stick

amazon-fire-tv-stick-productions-make-in-india.jpg

‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের হাত ধরে এবার ভারতে বড় রকমের বিনিয়োগের পথে হাঁটতে চলেছে অ্যামাজন (Amazon)। বহুজাতিক সংস্থাটির পাশাপাশি কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের পক্ষ থেকেও এই বিষয়ে প্রকাশ্যে মন্তব্য করা হয়েছে। ভারতীয় বাজারের বিরাট চাহিদাকে অনুমান করে Amazon তাদের টেলিভিশন স্ট্রিমিং ডিভাইস, Fire TV stick এদেশেই উৎপাদনের করবে। তবে সরাসরি অ্যামাজন নয়, বরং তাদের সহায়ক উৎপাদনকারী সংস্থা ফক্সকন টেকনোলজি গ্রুপ (Foxconn Technology Group & Production) এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কার্যভার গ্রহণ করবে। অ্যামাজনের এই বিনিয়োগের ফলে যে দেশীয় উৎপাদন অনেকটাই চাঙ্গা হবে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রক সে ব্যাপারে অনেকটাই আশাবাদী।

ফায়ার টিভি স্টিক হোক বা অন্যান্য প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক্স দ্রব্য – উৎপাদন ক্ষেত্র হিসাবে বহুজাতিক সংস্থাগুলির প্রথম পছন্দ আজ ভারত। এর রহস্যটা ঠিক কোথায়? আসলে সস্তা শ্রম আর ঢালাও সরকারী ভর্তুকি – দেশে বিনিয়োগ আকর্ষণের এটাই এখন মূল চালিকাশক্তি। এই পথে অগ্রসর হয়েই যে আমরা একদিন আত্মনির্ভর ভারতের লক্ষ্যে পৌঁছতে পারবো – বিভিন্ন প্রিন্ট এবং ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমের আলোচনায় বারবার সেই কথাটিই উঠে আসছে।

ভারতে অ্যামাজনের বিনিয়োগের কথা বলতে গিয়ে কেন্দ্রীয় বৈদ্যুতিন ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন – “বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অধিকাংশ বিনিয়োগকারীরাই এখন গন্তব্য হিসেবে ভারতকে বেছে নিচ্ছেন। বিশেষত বৈদ্যুতিন দ্রব্য এবং আইটি প্রোডাক্ট সরবরাহকারী হিসেবে আমরা আগামী বিশ্বের নির্ভরযোগ্য দেশে পরিণত হতে পারি। এজন্য কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে আমরা প্রোডাকশন লিঙ্কড ইনসেনটিভ বা পিএলআই (Production Linked Incentive/PLI) স্কীম নিয়ে এসেছি। ইতিমধ্যেই স্কীমটি সারা বিশ্বজুড়ে বিনিয়োগকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। ভবিষ্যতে আত্মনির্ভর দেশ হিসেবে উঠে আসার পথে আমাদের আরো এমন অনেক সরকারী পরিকল্পনা রয়েছে।”

ভারতীয় বাজারের চাহিদাপূরণের জন্য অ্যামাজন এখনই যথেষ্ট সংখ্যায় ফায়ার টিভি স্টিক উৎপাদনের কথা ঘোষণা করেছে। তাছাড়া সরবরাহ অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য তারা যে নিয়মিতভাবে শহরের স্থানীয় বাজারগুলিতে লক্ষ্য রাখবে, সেই বিষয়টিও তাদের পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে।

Amazon India-র অধিকর্তা অমিত আগরওয়াল জানিয়েছেন – ” আত্মনির্ভর ভারতের লক্ষ্যে প্রতিটি পদক্ষেপে ভারতীয় সরকারকে সাহায্য করতে আমরা প্রস্তুত। আগামী প্রকল্পটির জন্য আমরা ভারতে মোট ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করতে চলেছি। এর ফলে প্রায় দশ লক্ষ ভারতীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ী উপকৃত হবেন, যারা সহজেই নিজস্ব দ্রব্যগুলিকে আন্তর্জাতিকভাবে বিপণন করতে পারবেন। তাছাড়া এই বিনিয়োগের ফলে দেশে প্রায় দশ লক্ষ নতুন কর্মসংস্থানের ক্ষেত্র প্রস্তুত হবে।”

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন