হ্যাকারদের নতুন চাল! চুটকি তে ফোনে ঢুকে যাবে ভাইরাস

পেগাসাস এবং ভুয়ো মেসেজের পরে স্মার্টফোন হ্যাকারদের নতুন হাতিয়ার হয়ে উঠেছে এনএফসি বা নিয়ার ফিল্ড কমিউনিকেশন। যদিও এই NFC ফিচার ভারতের সমস্ত স্মার্টফোন ব্যবহারকারী ব্যবহার করেন না তাও এর মাধ্যমে আপনার ফোন হ্যাক করা সম্ভব। তাহলে আসুন জেনে নিই কি এই NFC এবং এর মাধ্যমে কিভাবে স্মার্ট ফোন হ্যাক করা সম্ভব হচ্ছে।

এনএফসি হলো আসলে একটি শর্ট রেঞ্জ হাই ফ্রিকোয়েন্সি কমিউনিকেশন সিস্টেম যা সর্বাধিক চার সেন্টিমিটার দূরত্বে থাকা দুটি ডিভাইসকে কানেক্ট করতে পারে। মূলত এনএফসি ডিভাইসের ব্যবহার কন্টাক্টলেস পেমেন্ট সার্ভিস এর জন্য করা হয় এবং ধীরে ধীরে সাধারণ মানুষের মধ্যে এই ফিচারটির ব্যবহার বাড়ছে।

এর মাধ্যমে কিভাবে স্মার্টফোন হ্যাক করা হচ্ছে-

সাধারণত এনএফসি সিস্টেমের মাধ্যমে কোন অ্যাপ শেয়ার করা হলে অন্য ফোনে অ্যাপটি আননোন সোর্সেস অপশনে গিয়ে পৌঁছায়। তারপর সেখান থেকে পারমিশন দিয়ে তারপর ইন্সটল করতে হয় অ্যাপটিকে।কিন্তু অ্যান্ড্রয়েড ওরিওতে একটি বাগ থাকার দরুন সেই সময় এনএফসি এর মাধ্যমে আসা যেকোনো অ্যাপ সরাসরি ইন্সটল হয়ে যাচ্ছিল অন্য ফোনে।

গুগলের তরফ থেকে দেওয়া হয় সতর্কবার্তা-

গুগল সাধারণত প্লে স্টোর ছাড়া অন্য যেকোন সোর্স থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করার সময় সতর্কবার্তা দেখায়। সেই সোর্সগুলি থেকে অ্যাপ ইন্সটল করা সর্বদা সঠিক নাও হতে পারে। তবে ড্রপবক্স এবং গুগল ক্রোম কে এই তালিকার বাইরে রেখেছে গুগল। এই দুটি সোর্সকে হোয়াইটলিস্টেড সোর্সও বলা যেতে পারে।

গত মাসেই ফিক্স করা হয়েছে এই বাগটিকে-

অ্যান্ড্রয়েড ওরিওতে চলে আসা এই বাগটিকে গতমাসেই ফিক্স করা হয়েছে। এই বাগটির কারণে যে সমস্ত অ্যাপগুলি এনএফসি বিমিং এর মাধ্যমে অন্য ফোনে পাঠানো হতো সেগুলি সরাসরি কোন সতর্কবার্তা ছাড়াই ইন্সটল হয়ে যাচ্ছিল ফোনগুলিতে। এই সমস্যার শুরু হয় তখন থেকে যখন গুগল এনএফসি বিমিংকে অ্যাপ ট্রান্সফারের ছাড়পত্র দেয়। তাই সমস্যা এটাই হচ্ছিল যে এই এনএফসি বিমিং এর মাধ্যমে যদি কোনরকম ভাইরাস ফাইল অথবা অ্যাপ আপনার ফোনে প্রবেশ করিয়ে দেওয়া হয় তাহলে আপনার ফোন খুব সহজেই হ্যাক করা সম্ভব হবে।

আর কোন সমস্যা হবে না বলে গুগলের দাবি-

গুগলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এনএফসি বিমিং এর এই সমস্যাটিকে সম্পূর্ণরূপে নির্মূল করে ফেলা হয়েছে। তাই এখন থেকে আর কোন অ্যাপ আপনার ফোনে ইন্সটল হয়ে যাবে না, তবে আপনি যদি আপনার ফোনের এনএফসি বিমিং ফিচারটি বন্ধ করে রাখেন তাহলে ভালো হয়। এছাড়াও এই ফিচারটিকে হোয়াইটলিস্টেড সোর্সের তালিকা থেকেও তুলে দেওয়া হয়েছে এখনও সমস্যার কোন কারণ নেই। এছাড়াও গুগল পরামর্শ দিয়েছে যদি আপনারা বহুদিন আপনার ফোন আপডেট না করে থাকেন তাহলে এক্ষুনি আপডেট করে নিন।