অ্যান্ড্রয়েড ইউজাররা এক্ষুনি ডিলিট করুন এই ৮টি অ্যাপ, হ্যাকারদের হাতে পৌঁছে যাচ্ছে সব তথ্য

Android users immediately uninstall these 8 apps McAfee warns

অ্যাপ ডাউনলোডের ক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড ইউজাররা Google Play Store এর ওপরেই বেশি ভরসা দেখান। কিন্তু গুগলের এই অ্যাপ স্টোরটিও যে পুরোপুরি সুরক্ষিত নয় তার প্রমাণ প্রায়শই পাওয়া যায়। সম্প্রতি একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, গুগল প্লে স্টোরে ক্ষতিকারক ম্যালওয়্যারযুক্ত বেশ কিছু ছদ্মবেশী অ্যাপ আপলোড করা হয়েছে, যেগুলি ডাউনলোড করা মাত্রই ফোনে ভাইরাস ঢুকিয়ে ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাকারদের হাতে পৌঁছে দিচ্ছে।

সাইবার-সুরক্ষা সংস্থা ম্যাকফি (McAfee) -এর রিপোর্ট অনুসারে, গুগল প্লে স্টোরে আটটি নতুন প্রতারণামূলক অ্যাপকে খুঁজে পাওয়া গেছে। এই ভুয়ো অ্যাপগুলি প্রায় ৭০০,০০০ বারেরও বেশিবার প্লে স্টোর থেকে ইনস্টল করেছে ইউজাররা। ম্যাকফি সংস্থাটির দাবি, মূলত দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়া এবং আরব উপদ্বীপের অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ইউজাররা অত্যাধিক ডাউনলোড করেছে। সংস্থার তরফে অনুরোধ করা হয়েছে, অ্যাপগুলি ইউজারের ফোনে থাকলে তা তৎক্ষণাৎ আনইন্সটল করতে।

অ্যাপগুলির লিঙ্ক :

— d37i64jgpubcy4.cloudfront.net
— d1ag96m0hzoks5.cloudfront.net
— dospxvsfnk8s8.cloudfront.net
— d45wejayb5ly8.cloudfront.net
— d3u41fvcv6mjph.cloudfront.net
— d3puvb2n8wcn2r.cloudfront.net
— d8fkjd2z9mouq.cloudfront.net
— d22g8hm4svq46j.cloudfront.net
— d3i3wvt6f8lwyr.cloudfront.net
— d1w5drh895wnkz.cloudfront.net

গুগল প্লে স্টোরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তারা এই ম্যালওয়্যারযুক্ত অ্যাপগুলিকে তাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে সরিয়ে ফেলার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে।

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম বা অনলাইন সাইট গুলিতে প্রায়ই আমরা – ফটো এডিটিং, মোবাইল ও কী-বোর্ড ওয়ালপেপার, গেম বা ক্যামেরা-সম্পর্কিত বেশ কিছু অ্যাপের বিজ্ঞাপন দেখতে পাই, যা আমাদের যথেষ্টই দৃষ্টি আকর্ষণ করে। কিন্তু অননুমোদিত এই সব থার্ড-পার্টি অ্যাপগুলিই কিন্তু হয়ে উঠতে পারে এক একটা ফাঁদ ! জানা যাচ্ছে, হ্যাকররা গুগল প্লে স্টোরে এই ভুয়ো অ্যাপগুলির পর্যালোচনার জন্য প্রথমে স্ট্রেন বিহীন সংস্করণ পাঠাচ্ছে এবং একবার ওই অ্যাপগুলি মান্যতা পেয়ে গেলেই আপডেটের মাধ্যমে চতুরতার সাথে ম্যালিশিয়াস কোড প্রেরণ করছে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে। যা ইউজারদের ফোন নম্বর, এসএমএস, আইপি অ্যাড্রেস, দেশের নাম, নেটওয়ার্ক ও সাবস্ক্রিপশন সংক্রান্ত খুঁটিনাটি তথ্যগুলিকে প্রতি সেকেন্ডে চুপিসারে চুরি করে নিচ্ছে।

এই বিষয়ে অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের সতর্ক করে ম্যাকফি সংস্থাটি তাদের ব্লগে লিখেছে, “কোনো অ্যাপ যদি আপনার এসএমএস বা মোবাইল নোটিফিকেশন অ্যাক্সেস করার অনুমতি চায়, তবে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেবেন।” কারণ মোবাইল ও কী-বোর্ড ওয়ালপেপারের মতো অ্যাপগুলি চালনা করতে কখনোই এই তথ্যগুলির প্রয়োজন নেই। তাই আপনার ডাউনলোড করা অ্যাপে সন্দেহজনক কোনো কার্যকলাপ দেখলে সেটিকে তৎক্ষণাৎ সরিয়ে ফেলুন।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন