বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী প্রসেসর হবে অ্যাপেলের A14 বায়োনিক, আসছে সেপ্টেম্বরে

apple-a14-bionic-5nm-chip-will-be-almost-40-faster-than-a13

এতদিন অ্যাপেলের A13 বায়োনিককে স্মার্টফোনে ব্যবহৃত প্রসেসরের মধ্যে অন্যতম শক্তিশালী হিসাবে গণ্য করা হয়। এমনকি বর্তমান ফ্ল্যাগশিপ অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলিতে ব্যবহৃত স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস চিপটিও পারফরম্যান্সের নিরিখে অ্যাপেলের A13-এর তুলনায় বেশ খানিকটা পিছিয়ে। এবার চলতি বছরে অ্যাপেল, iPhone 12-এর চারটি মডেল বাজারে আনবে। যার প্রত্যেকটিতে A13 এর আপগ্রেড, A14 Bionic চিপ ব্যবহার করা হবে বলে জানা গিয়েছে। যদিও সেপ্টেম্বরে লঞ্চ হতে চলা এই চিপটির স্পেসিফিকেশন নিয়ে সংস্থার পক্ষ থেকে এখনো পর্যন্ত বিস্তারিত কিছু ঘোষণা করা হয়নি।

তবে ফাঁস হওয়া বিভিন্ন তথ্য থেকে জানা গেছে, CPU ও GPU পারফরম্যান্সের নিরিখে অ্যাপেলের A13 বায়োনিকের তুলনায় A14 বায়োনিক চিপটি হবে যথাক্রমে ৪০ ও ৫০ শতাংশ বেশী শক্তিশালী। জানিয়ে রাখি কোয়ালকমের ফ্ল্যাগশিপ চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্লাস সিঙ্গল কোর পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে অ্যাপেলের A13 বায়োনিকের তুলনায় ২৫% পিছিয়ে। ফলে ফাঁস হওয়া তথ্যগুলি যদি A14 বায়োনিকের আসল স্পেসিফিকেশনের সাথে মিলে যায়, তাহলে কোয়ালকমকে অ্যাপেলের সামনে বেশ কঠিন প্রতিযোগিতার মধ্যে পড়তে হতে পারে।

mspoweruser-এর রিপোর্টে বলা হয়েছে, A14 বায়োনিকের ক্লকস্পিড ৩.১ গিগাহার্জ পর্যন্ত হতে পারে। যেখানে অ্যাপেলের A13 চিপের ক্লকস্পীড ছিল ২.৭ গিগাহার্টজ। A14 Bionic ৫ ন্যানোমিটার বেসড চিপ হবে। যেহেতু A13 বায়োনিক চিপটি ৭ ন্যানোমিটারের, তাই স্বাভাবিকভাবেই ৫ ন্যানোমিটারের A14 চিপটি বেশী শক্তিশালী হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত Kirin 1000 প্রসেসরেও ৫ ন্যানোমিটার নোড ব্যবহার করা হবে। এই প্রসেসরটি অক্টোবর মাসে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। এদিকে মনে করা হচ্ছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭৫ চিপটিও ৫ ন্যানোমিটার টেকনোলজির ওপর বানানো হবে। যদিও ৫ ন্যানোমিটার বেসড Samsung এর কোনো Exynos প্রসেসর আসবে কিনা এখনও জানা যায়নি।