iPhone সহ অন্যান্য হারানো ডিভাইস সহজেই খুঁজে দেবে Apple, জানুন কিভাবে

Apple find my network can use third party users to track lost device

নামজাদা প্রযুক্তি সংস্থা Apple, ২০০৯ সালে তার iPhone 3GS সিরিজের পাশাপাশি ‘Find My App’ নামের একটি অ্যাপ্লিকেশনও নিয়ে এসেছিল, যা Apple ইকোসিস্টেমের অন্তর্গত গ্রাহকদের হারিয়ে যাওয়া আইফোন, ম্যাক ডিভাইস, অ্যাপল ওয়াচ এবং এয়ারপডের মতো প্রোডাক্টগুলি সহজে খুঁজে দেওয়ার দাবি করে। সেক্ষেত্রে অ্যাপ্লিকেশনটি লঞ্চের পর প্রায় ১০ বছর কেটে গেলেও, এটির পরিষেবা এখনো অক্ষুন্ন রয়েছে। এদিকে বর্তমানে জানা গিয়েছে, Apple, তাদের এই অ্যাপটির ‘Find My Network’ প্রোগ্রামটির মাধ্যমে প্রোডাক্ট অনুসন্ধানের সুবিধা বিস্তৃত করতে চলেছে; এর জন্য সংস্থাটি Belkin, Chipolo ও VanMoof সহ অন্যান্য কিছু থার্ড-পার্টি সংস্থাকে এই পরিষেবাটি ব্যবহার করার অনুমতি প্রদান করেছে বলেও একটি রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

অ্যাপল (Apple) নিউজরুমের অফিসিয়াল পোস্ট অনুযায়ী, এখন যে কোনো হার্ডওয়্যার নির্মাতারা অ্যাপলের ‘ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক’ প্রোগ্রামটির পরিষেবাটি ব্যবহার করে তাদের প্রোডাক্ট তৈরী করতে পারবেন, যাতে অ্যাপল ছাড়াও থার্ড-পার্টি ডিভাইস ইউজাররা, ‘ফাইন্ড মাই অ্যাপ’-এর নেটওয়ার্কের সাহায্যে সহজেই তাদের গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইসগুলিকে ট্র্যাক বা সন্ধান করতে পারেন।

কী ভাবে কাজ করবে এই ‘ফাইন্ড মাই অ্যাপ’ ?

জানিয়ে রাখি, ‘ফাইন্ড মাই অ্যাপ’ পরিষেবাটি অ্যান্ড্রয়েডের ‘ফাইন্ড মাই ডিভাইস’ অপশনটির মতই কাজ করে; তবে ফাইন্ড মাই অ্যাপ, হারিয়ে যাওয়া বা দৃষ্টির অগোচরে থাকা ডিভাইসগুলিকে শনাক্ত করার জন্য ডিভাইসের ব্লুটুথ ওয়্যারলেস প্রযুক্তির সাহায্য নেয়। অর্থাৎ, অ্যাপল, ব্লুটুথ সিগন্যাল ব্যবহার করে হারিয়ে যাওয়া ডিভাইসের সাথে একটি নেটওয়ার্ক তৈরী করবে যা ডিভাইসটির আনুমানিক অবস্থানকে শনাক্ত করে ম্যাপের মাধ্যমে সেই তথ্য তার মালিকের কাছে পৌঁছে দেবে। এরই সাথে অ্যাপটি, কোনো ডিভাইসের নির্দিষ্ট অবস্থানটি আরো দ্রুত খুঁজে পেতে একপ্রকার শব্দ করে ইউজারকে ডিভাইসটি সম্পর্কে জানান দিতে থাকবে।

এছাড়া ডিভাইসটি হাতের নাগালের বাইরে চলে গেলে, অবিলম্বে সেটিকে লক করতে ‘লস্ট মোড’ সক্রিয় করে, ডিভাইসের স্ক্রিনে যোগাযোগের জন্য একটি নম্বরকে বারংবার দেখাতে থাকবে এই পরিষেবাটি। আর যদি কোনো ভুল হাতে ডিভাইসটি পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে, তার জন্য এটি গ্রাহককে ডিভাইসের মেমরি ডিলিট করারও বিকল্প দেবে। তবে এই পুরো প্রক্রিয়াটি অজ্ঞাতভাবে থাকবে এবং এতে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে অ্যাপল। ফলে, অ্যাপল নিজে বা অন্যান্য থার্ড-পার্টি সংস্থাগুলি কোনো ভাবে ইউজারের ডিভাইস সংক্রান্ত তথ্য বা অবস্থান দেখতে পাবেনা।

ঠিক কারা ‘ফাইন্ড মাই অ্যাপ’ প্রযুক্তিটিকে ব্যবহার করতে পারবে ?

এই বিষয়ে আমেরিকান বহুজাতিক প্রযুক্তি সংস্থাটি জানিয়েছে – যে সকল সংস্থাগুলি অ্যাপলের ‘ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক’ প্রযুক্তিটি তাদের বিদ্যমান বা নতুন প্রোডাক্টের সাথে সংযোগ করাতে চায়, তারা ‘মেড ফর আইফোন’ বা MFI প্রোগ্রামে অংশ নিতে আবেদন করতে পারে। তবে এর জন্য, গ্রাহকদের নির্ভরযোগ্যতা বজায় রাখতে থার্ড-পার্টি সংস্থার পণ্যগুলিকে ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্কের সুরক্ষা সংক্রান্ত সমস্ত গোপনীয়তা মেনে চলতে হবে বলেও শর্ত দিয়েছে অ্যাপল বিজ্ঞপ্তিতে।

বলে রাখি, যেসব প্রোডাক্টগুলিকে এই প্রোগ্রাম ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে, সেগুলিকে ‘Works with Apple Find My’ নামক ট্যাগের মাধ্যমে নতুন একটি আইটেম ট্যাবের মধ্যে যুক্ত করে দেবে অ্যাপল। এতে গ্রাহকরা, যে ডিভাইসগুলি ব্যবহার করছেন তা, ‘ফাইন্ড মাই অ্যাপ’ ও ‘ফাইন্ড মাই নেটওয়ার্ক’ অ্যাপ দুটির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা তা সহজেই জানতে পারবেন। সেক্ষেত্রে ইতিমধ্যেই এই প্রোগ্রামের অংশ হিসাবে Belkin-এর ট্রু ওয়্যারলেস ইয়ারবাডকে সামিল করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।