চিন নয়, এবার কর্নাটকে iPhone SE 2020 বানাচ্ছে Apple

রতে আইফোন এসই ২০২০ এর উৎপাদন শুরু হওয়ায়, ফোনটির দাম কমার বিরাট সম্ভাবনা আছে।

Apple iPhone SE 2020 is now being assembled in India

কয়েকমাস জানা গিয়েছিল এবার থেকে ভারতে তৈরী হবে iPhone SE 2020 ও iPhone 11। এবার কর্ণাটকের উইস্ট্রন প্ল্যান্টে আইফোন এসই ২০২০ এর উৎপাদন শুরু হল। আপনাকে জানিয়ে রাখি এবছরের প্রথম কোয়ার্টারে এই ফোনটিকে লঞ্চ করেছিল Apple। কয়েকদিন আগেই উইস্ট্রন এর তরফে বলা হয়েছিল তারা ভারতে ১০,০০০ নতুন লোক নিযুক্ত করবে আইফোনের লোকাল ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের জন্য। আজ নতুন রিপোর্ট থেকে পরিষ্কার তারা iPhone SE 2020 উৎপাদনের জন্যই কোম্পানিটি এত লোক নিযুক্ত করার কথা ভাবছে।

এদিকে ভারতে আইফোন এসই ২০২০ এর উৎপাদন শুরু হওয়ায়, ফোনটির দাম কমার বিরাট সম্ভাবনা আছে। কারণ লোকাল ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের জন্য সরকারকে আর ২০ শতাংশ ইম্পোর্ট চার্জ দিতে হবেনা কোম্পানিকে। যদিও ভারতে তৈরী আইফোন এসই ২০২০ কবে থেকে পাওয়া যাবে তা Apple এর তরফে জানানো হয়নি। আশা করা যায় আগের স্টক শেষ হতেই, ভারতে তৈরী হওয়া ফোনটি কিনতে পারবেন ইচ্ছুক ক্রেতারা।

ভারতে আইফোন এসই ফোনটির দাম শুরু হয়েছে ৪২,৫০০ টাকা থেকে। এই দাম ফোনটির ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের। আবার ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট যথাক্রমে ৪৭,৮০০ টাকা ও ৫৮,৩০০ টাকায় পাওয়া যাবে। যদিও আগামীকাল অর্থাৎ ২৫ আগস্ট পর্যন্ত এই ফোনটির তিনটি ভ্যারিয়েন্ট Flipkart থেকে Apple Days Sale এ যথাক্রমে ৩৫,৯৯৯ টাকা, ৪০,৯৯৯ টাকা ও ৫০,৯৯৯ টাকায় কেনা যাবে।

iPhone SE 2020: স্পেসিফিকেশন

ডুয়েল সিমের এই ফোনে ৪.৭ ইঞ্চি রেটিনা এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ফোনটি মেটাল বডির সাথে এসেছে। ডিসপ্লেতে ডলবি ভিশন ও এইচডিআর ১০ প্লেব্যাক সাপোর্ট করবে। দ্রুত কাজ করার জন্য এখানে হেপটিক টাচ ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফোনে পাবেন এ ১৩ বায়োনিক প্রসেসর। এছাড়াও আছে ৩ জিবি র‌্যাম। তবে ফোনটি ৬৪ জিবি, ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে।

ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনের পিছনে এলইডি ফ্ল্যাশ সহ ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর সহ সিঙ্গেল ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এর অ্যাপারচার এফ/১.৮। আবার সামনে এফ/২.২ অ্যাপারচার সহ ৭ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। ওয়াই-ফাই ৬ সহ ফোনটি আইওএস ১৩ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। কোম্পানি তরফে জানানো হয়েছে এতে ১,৮২১ এমএএইচ বিল্ট ইন ব্যাটারি ব্যবহার করেছে। যার দ্বারা ৪০ ঘন্টা অডিও শোনা যাবে বলে দাবি করা হয়েছে।