নতুন iPhone কিনতে চাইলে অপেক্ষা করুন, কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই কমতে পারে দাম

apple-may-cut-iphone-11-and-iphone-se-2020-price-soon

বর্তমান সময়ে নতুন স্মার্টফোন কিনতে পকেটে একটু বেশি টান পড়ছে, আগের মত নতুন ফোনে খুব বেশি অফার বা ছাড় পাওয়া যাচ্ছেনা। তবে আমরা দেখেছি স্মার্টফোন কোম্পানিগুলি যখনই কোনো নতুন সিরিজ লঞ্চ করে, তার কিছুদিন আগে পুরানো সিরিজের দাম কমিয়ে দেয়। তাই আপনি যদি এই মুহূর্তে নতুন iPhone কেনার কথা ভাবেন তবে দাঁড়ান! কয়েক সপ্তাহের মধ্যে নতুন iPhone 12 সিরিজ বাজারে আসবে। আর এই সিরিজ বাজারে আসার আগে iPhone 11 সিরিজের বেশ খানিকটা দাম কমাতে পারে অ্যাপল – এমনটাই মনে করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, অনেকে বলছেন দাম কমতে পারে iPhone SE 2020 এরও।

সম্প্রতি একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে আইফোনের সামগ্রিক বিক্রয় উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পাচ্ছে। বিশেষত iPhone 11 এবং iPhone SE 2020 ফোনগুলির বিক্রি কমেছে। কয়েকমাস আগেও iPhone SE 2020 বেশ ভালো বিক্রি হয়েছে। তবে বিগত কয়েক মাসে লো-এন্ড রেঞ্জের আইফোনের বিক্রয় অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে। কারণ হিসেবে মার্কিন ইনভেস্টর জেপি মরগান চেজ জানিয়েছে, বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে কেবল ৫৮% মার্কিন অ্যাপল রিটেল স্টোর খোলা রয়েছে।

এছাড়াও মনে করা হচ্ছে, যারা আইফোন কেনার পরিকল্পনা করছেন তারা এখনই টাকা খরচ করতে চাইছেন না, বরঞ্চ নতুন ফোনের জন্য অপেক্ষা করছেন। অর্থাৎ, আসন্ন আইফোন কেমন দেখতে হবে এবং তারপর উপর ভিত্তি করে পুরনো মডেলগুলি কেনা যাবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নিতে চাইছেন। আর এই সমস্যার সমাধান করতে Apple পুরানো মডেলের দাম আরও কমাতে পারে বলে মনে হচ্ছে। ইতিমধ্যেই ৪২,৯৯৯ টাকার পরিবর্তে ৩৭,৯৯৯ টাকায় বিক্রি হচ্ছে iPhone SE 2020। আশা করা হচ্ছে এই দাম আরও কমবে।

আপাতত যা খবর তাতে অ্যাপল এই বছর মোট চারটি iPhone 12 মডেল লঞ্চ করবে। যার মধ্যে ৫.৪ ইঞ্চি সাইজের iPhone 12, ৬.১ ইঞ্চি ডিসপ্লে সাইজের iPhone 12 Plus ও iPhone 12 Pro, এবং ৬.৮ ইঞ্চি সাইজের iPhone 12 Pro Max দেখা যেতে পারে। রিপোর্ট অনুযায়ী, এই ফোনগুলিতে 5G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট এবং OLED ডিসপ্লে থাকতে পারে।