Apple Store: দুই শহরে শীঘ্রই খুলছে অ্যাপল স্টোর, বহু মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ

LinkedIn-এ অ্যাপল দিল্লি বা মুম্বাই কে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকটি কর্মী নিয়োগের পোস্ট করেছে

apple-store-in-delhi-and-mumbai-opening-soon-company-hiring-retail-employees

যত দিন যাচ্ছে, ভারতে Apple-এর বিভিন্ন প্রোডাক্টের চাহিদা যেন ততোই বাড়ছে। তাই দীর্ঘদিন ধরে ভারতীয় Apple-প্রেমীরা সংস্থার রিটেল স্টোর এদেশে খোলার আশায় অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে রয়েছে। তবে এবার হয়তো তাদের অপেক্ষার অবসান ঘটতে চলেছে। কারণ সম্প্রতি পাওয়া খবর অনুযায়ী, ভারতে খুব শীঘ্রই Apple Store খুলবে বলে জানা গেছে। এর ফলে খুব স্বাভাবিকভাবেই ভারতের একাধিক মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ মিলবে, যা এই করোনা আবহে চাকরি খোয়ানো বিপুল সংখ্যক মানুষের জন্য নিঃসন্দেহে এক দারুণ সুসংবাদ।

এমনিতেই অ্যাপলের যে কোনো প্রোডাক্ট কিনতে গেলে মানুষকে কোম্পানির অনলাইন স্টোর অথবা ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মগুলির দ্বারস্থ হতে হয়। সেই কারণে গত বছর সংস্থার সিইও, টিম কুক নিশ্চিত করেছিলেন যে, ভারতে আগামী বছর, অর্থাৎ ২০২১ সালে তারা মুম্বাইয়ে প্রথম রিটেল স্টোর খুলতে চলেছে। কিন্তু বিশ্বকে প্রায় ছারখার করে দেওয়া কোভিড-১৯ মহামারী এই পরিকল্পনাকে বেশ খানিকটা পিছিয়ে দেয়। তবে এবার সত্যিই ভারতে অ্যাপল স্টোর খুললে ভক্তরা তো ভীষণরকম খুশি হবেনই, পাশাপাশি কিছু মানুষের কর্মসংস্থান হবে।

সম্প্রতি LinkedIn-এ অ্যাপল দিল্লি বা মুম্বাই কে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকটি কর্মী নিয়োগের পোস্ট করেছে, যার সবগুলিই মূলত অ্যাপল স্টোরে কাজের জন্য। ইউজাররা অ্যাপল স্টোরে এলে কীভাবে তাদের সাথে সহযোগিতা করতে হবে, সেই সংক্রান্ত কাজই মূলত এই স্টোরগুলির কর্মীদের করতে হবে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের প্রথম অ্যাপল স্টোর খুলতে পারে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা-কুরলা কমপ্লেক্সে। এর পরে কোম্পানিটি দিল্লিতে আরেকটি অ্যাপল স্টোর ওপেন করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

Nuclear Bits-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, সংস্থাটি জিনিয়াস, স্পেশাল, টেকনিক্যাল স্পেশাল এবং ম্যানেজেরিয়াল পদের জন্য আবেদন নিচ্ছে, যেমন – স্টোর লিডার, সিনিয়র ম্যানেজার, ম্যানেজার, অপারেশন এক্সপার্ট, মার্কেট লিডার এবং এক্সপার্ট। অন্যান্য কিছু কাজের তালিকার মধ্যে রয়েছে ক্রিয়েটিভ, বিজনেস প্রো, বিজনেস এক্সপার্ট সহ আরও অনেক কিছু। তবে এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে, Apple Store-এ আংশিক সময়ের বা চুক্তিভিত্তিক কর্মসংস্থানের কথা উল্লেখ করে কর্মীদের চাকরি দেওয়া হবে। এমনকি কেউ সপ্তাহ ভিত্তিক বা সীমিত ঘন্টার জন্যও এই স্টোরগুলিতে কাজ করার অনুমতি পেতে পারে। পাশাপাশি সাম্প্রতিক কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে কিছু কর্মীদের জন্য ওয়ার্ক ফ্রম হোমেরও সুযোগ দেবে Apple।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।