চীন নয়, ভারতের তামিলনাড়ু থেকে বিশ্ব বাজারের জন্য প্রোডাক্ট উৎপাদন করবে Apple

apple-to-make-products-manufacturing-hum-in-tamilnadu

গত বছর থেকে বিশ্ব বাজারে বেশ খানিকটা কোণঠাসা অবস্থায় পৌঁছেছে আমাদের পড়শি দেশ চীন। ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের একাধিক বড় মার্কেটে চীনা পণ্য, অ্যাপ্লিকেশন ইত্যাদির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে; বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে বহু চীনা কোম্পানির ওপরেও। সেক্ষেত্রে ২০২০ সালের দ্বিতীয়ার্ধ থেকেই শোনা যাচ্ছে অ্যাপল (Apple)-এর মত বৃহৎ টেক জায়ান্ট তার ম্যানুফ্যাকচারিং সিস্টেম, চীন দেশ থেকে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলে স্থানান্তরিত করার কথা ভাবছে। এর জন্য সংস্থাটি ইতিমধ্যে একাধিক ইতিবাচক পদক্ষেপও নিয়েছে। এখন সাম্প্রতিক রিপোর্ট বলছে, অ্যাপল, ভারতের তামিলনাড়ুতে বৈশ্বিক বাজারের জন্য প্রোডাক্ট উৎপাদন করতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে; এমনকি মার্কিনি সংস্থাটি ওই অঞ্চলে প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো বা সম্পুর্ণ ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতেও প্রস্তুত। উল্লেখ্য, তামিলনাড়ুতে আগে থেকেই স্যালকম্প (Salcomp) ও ফক্সকন (Foxconn), অ্যাপলের প্রোডাক্ট বা কম্পোনেন্ট তৈরি করে এবং সেগুলি বাজারে সরবরাহ করে।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, শুক্রবার সন্ধ্যায় তামিলনাড়ুর রাজ্য মন্ত্রিসভা একটি বৈঠক করেছে যেখানে প্রায় ৩৪টি শিল্প প্রকল্পকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সূত্র অনুসারে, এই প্রকল্পে প্রায় ৫২,২৫৭ কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে; বিনিয়োগকারীদের মধ্যে রয়েছে পেগাট্রন কর্পোরেশন, ফক্সকন, টাটা ইলেকট্রনিক্স এবং তাইওয়ানের লাক্স শেয়ারের মত অ্যাপলের মূল সাপ্লায়ার কোম্পানিগুলি। এদিকে রাজ্যের মন্ত্রিসভা জানিয়েছে যে, তামিলনাড়ুর জন্য একটি নতুন শিল্প নীতি অনুমোদন করা হয়েছে যা আগামী ফেব্রুয়ারিতে প্রকাশিত হবে।

উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে বিশ্ব বাজারে ভারতের কদর তো বাড়বেই, একই সাথে রাজ্যের প্রায় ৯৪,০০০ মানুষের কর্মসংস্থান হবে বলেও আশা করছে তামিলনাড়ু সরকার। সেক্ষেত্রে তামিলনাড়ুতে সংস্থার উৎপাদন বাড়ানোর জন্য এবং উক্ত প্রকল্পের জন্য পেগাট্রন কর্পোরেশন প্রথম পর্যায়ে প্রায় ১,১০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে প্রস্তুত, যাতে রাজ্যের ১৪,০০০ এরও বেশি লোকের কর্মসংস্থান হবে। এছাড়া টাটা ইলেকট্রনিক্স, রাজ্যের কৃষ্ণগিরি জেলায় প্রায় ৫,৭৬৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে বলে জানা গিয়েছে, যার ফলে ১৮,২৫০ জন মানুষের কাজের সুযোগ তৈরি হবে।

তদুপরি, রাজ্যে লাক্স শেয়ারের ৭৪৫ কোটি টাকা বিনিয়োগের পরিকল্পনা রয়েছে যা প্রায় ৪,০০০ কর্মসংস্থান তৈরি করবে। জানিয়ে রাখি, লাক্সশেয়ার তাইওয়ানের একটি সংস্থা যা অ্যাপলের জন্য পরিধেয় আনুষঙ্গিক এবং অন্যান্য বৈদ্যুতিন উপাদানগুলি উৎপাদন ও সরবরাহ করবে। শোনা যাচ্ছে, এটি আগামী দিনে চেন্নাইয়ের কাছে অবস্থিত শ্রীপেরুম্বুদুর অঞ্চলে মটোরোলার (Motorola) উৎপাদন ইউনিট কব্জা করবে।

সুতরাং, অ্যাপল এবং তামিলনাড়ু সরকারের উদ্যোগে ভারতের খ্যাতি যে আরও ছড়িয়ে পড়বে সে কথা নিশ্চিত। আশা করা যায়, এদেশে অ্যাপলের প্রোডাক্টগুলি উৎপন্ন হলে ভারতীয় গ্রাহকরা তুলনামূলক কম দামে সেগুলি কিনতে পারবেন। তাছাড়া দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাও কিছুটা চাঙ্গা হয়ে উঠবে। সেক্ষেত্রে বলে রাখি, শুধু অ্যাপল নয়, দক্ষিণ কোরিয়া ভিত্তিক ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট স্যামসাং (Samsung)-ও আগামী দিনে তার ডিসপ্লে ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্টটিকে চীন থেকে ভারতে স্থানান্তর করতে চলেছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন