দাম অধিক হলেও বিক্রিতে কমতি নেই, Apple Watch ব্যবহার করেন ১০ কোটি মানুষ

apple-watch-selling-unit-cross-100-million-report.jpg

২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে অ্যাপলের সিইও টিম কুক ওয়্যারেবেল ডিভাইস হিসাবে Apple Watch এর ওপর থেকে পর্দা সরিয়েছিল। যদিও এই ডিভাইসটির বিক্রি শুরু হয় ২০১৫ থেকে। এরপর থেকেই অ্যাপল ওয়াচ জীবনের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হয়ে গিয়েছে। হার্ট রেট মনিটরিং সহ এই স্মার্টওয়াচে এমন কিছু ফিচার রয়েছে যা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর সেইজন্যই হয়তো এর বিক্রি দিন দিন বাড়ছে।

সম্প্রতি অ্যাবোভ অ্যাভালন এর একটি রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, ২০১৫ থেকে এই পর্যন্ত ১০০ মিলিয়ন (১০ কোটি) Apple Watch বিক্রি হয়েছে। পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি বিক্রিত ওয়্যারেবেল ডিভাইসের মধ্যে এটি অন্যতম। শুধু তাই নয়, স্মার্টওয়াচের বাজারেও এর দাম অন্যান্য কোম্পানির ডিভাইসগুলি থেকে অনেক বেশি। যদিও দামের কারণে এর বিক্রিতে কখনও ভাঁটা পড়েনি।

এদিকে এই রিপোর্টে আরও জানানো হয়েছে যে, সারা পৃথিবীতে iPhone ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১ হাজার মিলিয়ন। তাদের মধ্যে মাত্র ১০% মানুষ অ্যাপল ওয়াচ ব্যবহার করেন।

গতবছর একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছিল, ২০২০ সালে প্রায় ৩০ মিলিয়ন অ্যাপল ওয়াচ বিক্রি হয়েছে, যা ২০১৫, ২০১৬, ও ২০১৭ সালের থেকে অনেক বেশি। আবার আমেরিকানরাই সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন Apple Watch। এখানকার স্মার্টওয়াচ ব্যবহারকারীদের ৩৫ শতাংশ অ্যাপল ওয়াচ কেনেন। অ্যাপলের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া প্রোডাক্টের তালিকায় তাদের স্মার্টওয়াচ এখন চতুর্থ নম্বরে। মনে করা হচ্ছে, ২০২২-এ Apple Watch এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে এসে যাবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন