ইন্দোরের ৬১ বছরের বৃদ্ধের প্রাণ বাঁচালো Apple Watch Series 5

আধুনিক যুগে প্রযুক্তির উন্নতি আমাদের জীবনযাপনকে অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে। বিশেষত স্বাস্থ্যক্ষেত্রে স্মার্ট ওয়াচের মতো ডিভাইস আবিষ্কারের ফলে হার্টের সমস্যার রোগীদের অনেক সুবিধা হয়েছে। সম্প্রতি ইন্দোরের একজন বাসিন্দা Apple Watch কীভাবে তাঁর জীবন বাঁচিয়েছে তা জানিয়ে Apple-এর CEO টিম কুককে একটি ইমেল করেন। টিম কুক সেই মেলের জবাব দিয়েছেন। আর. রাজহংস (৬১) নামক ওই ব্যক্তি একজন অবসরপ্রাপ্ত ফার্মাসিস্ট। তার ছেলে তাকে Apple Watch Series 5 ব্যবহারের জন্য দিয়েছিল। মার্চ মাস নাগাদ তিনি অসুস্থ থাকায় Apple Watch-এর মাধ্যমে তাঁর ECG পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেন।

Apple Watch তাঁর ECG-তে একটি আর্টিয়াল ফাইব্রিলেশন দেখিয়েছিল। আর্টিয়াল ফাইব্রিলেশন বা সংক্ষেপে Afib সিরিয়াস অ্যারিথমিয়া, বা হার্টের অনিয়মিত গতির একটি রূপ। তিনি আরো কয়েকবার এটি Apple Watch-এর মধ্যে পরীক্ষা করে নেন। বারবার একই ফলাফল দেখে তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। যদিও তিনি হাইপারটেনশনের রোগী ছিলেন, কিন্তু তাঁর কোন হার্টের সমস্যা আগে ছিল না।

আরো পরীক্ষা করে দেখা যায় যে, তার লো ইজাকুলেশন ফ্র্যাকশন রয়েছে অর্থাৎ হার্ট ঠিক মতো কাজ করছে না এবং দ্রুত হার্ট সার্জারি প্রয়োজন। প্যানডেমিকের কারণে সার্জারি করতে দেরি হলেও রাজহংসবাবু Apple Watch-এর মাধ্যমে তাঁর ECG-র উপর নজর রাখতে থাকেন। জুলাই মাসে তাঁর সার্জারি হয় এবং খুব সফলভাবেই সার্জারি সম্পন্ন হয়।

এরপর তার ছেলে সিদ্ধার্থ রাজহংস Apple-এর CEO টিম কুককে ইমেল করার সিদ্ধান্ত নেন। তিনি ইমেলে জানান কীভাবে এই Apple Watch তার বাবার জীবন বাঁচাতে সাহায্য করেছে। Apple টিম এরপর সিদ্ধার্থের সাথে যোগাযোগ করে তার বাবার স্বাস্থ্য সম্পর্কে খবর নেয়। সিদ্ধার্থ বলেছেন, Apple Watch মানুষের জীবনে প্রযুক্তি ও স্বাস্থ্যসচেতনতার মধ্যে একটা সমন্বয় তৈরি করেছে। এজন্যই তিনি তাঁর বাবাকে এই ঘড়িটি দিয়েছিলেন।

I'm magnetically attracted to everything that implies innovation... And Rock 'N Roll!