বিপাকে হোয়াটসঅ্যাপ, লক্ষ লক্ষ ইউজারের মোবাইল নম্বর ফাঁস‌ হল ইন্টারনেটে

প্রচুর WhatsApp ইউজারের নম্বর ফাঁস হয়েছে অনলাইনে, তালিকায় আপনিও নেই তো?

WhatsApp new Bug lakhs Indian users Mobile Number leaked in Internet

দিনে একবার হলেও WhatsApp ব্যবহার করেননা, হালফিল সময়ে এমন স্মার্টফোন ইউজার খুঁজে পাওয়া ভার। শুধুমাত্র একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে রেজিস্টার করে এবং ইন্টারনেট ব্যবহার করে খুব সহজে এই প্ল্যাটফর্মটির মাধ্যমে চ্যাটিং, ইন্টারনেট কলিং ইত্যাদি সুবিধা উপভোগ করা যায় – তাও আবার বিনামূল্যেই। আর ইউজারদের খুশি রাখতে WhatsApp-ও প্রায়ই নানাবিধ ফিচার নিয়ে হাজির হয়। কিন্তু তাই বলে এর থেকেও যে কোনো অসুবিধা হয়না, তা নয়; অন্যান্য অ্যাপ বা সাইটের মত মাঝেমধ্যে এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং মাধ্যমটিতেও কিছু বাগ বা ত্রুটি দেখা যায়। বিশেষ করে অতিসম্প্রতি WhatsApp-এর একটি এমন ত্রুটির কথা সামনে এসেছে, যার কথা শুনলে আপনারও চিন্তায় চোখ কপালে উঠতে পারে! কারণ এবার ইন্টারনেটে ফাঁস হয়েছে লক্ষ লক্ষ ভারতীয় WhatsApp ইউজারের মোবাইল নম্বর। হ্যাঁ ঠিকই পড়েছেন।

এই সমস্ত WhatsApp ইউজারের নম্বর ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি

আসলে সম্প্রতি এথিক্যাল হ্যাকার অবিনাশ জৈন দাবি করেছেন যে, প্রচুর সংখ্যক হোয়াটসঅ্যাপ ইউজারের রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বর এখন অন্তর্জালে সর্বজনীনভাবে উপলব্ধ; ফলে যে কেউ (স্ক্যামাররাও) সেগুলি অ্যাক্সেস করতে পারে। এক্ষেত্রে যারা হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ক্রিয়েট কল লিঙ্ক ফিচার ব্যবহার করেছেন, তাদের নম্বরই সহজে ছড়িয়ে পড়েছে/পড়ছে বলে অবিনাশ জানিয়েছেন। তাঁর মতে, হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে শেয়ার করা এই জাতীয় লিঙ্কসহ মোবাইল নম্বরটি গুগলে (Google) সহজেই সার্চ করা যেতে পারে।

মিডিয়াকে অবিনাশ বলেছেন যে, এই ত্রুটি সম্পর্কে তিনি সংস্থাকে মেল পাঠিয়েছেন। কিন্তু সমস্যার বিষয় এটাই যে, হোয়াটসঅ্যাপ এটিকে সুরক্ষা ত্রুটি হিসাবে বিবেচনা করেনি। মেটা (Meta) মালিকানাধীন কোম্পানিটির মতে, এই সমস্যা স্বাভাবিক ত্রুটি, যার ফলে এতে কোনো বাগ বাউন্টি পুরষ্কার মিলবে না। এদিকে অবিনাশ ইতিমধ্যেই গুগল, ইয়াহু (Yahoo), নাসা (NASA)-র মত জায়গায় বাগ রিপোর্ট করে পুরস্কার জিতেছেন।

তবে কি এবার ঠিক হবে না WhatsApp-এর এই সমস্যা?

আপাতত সমস্যাটি নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ কোম্পানি যে গুরুত্ব দিচ্ছেনা, সে কথা বেশ স্পষ্ট। তবে বিষয়টি নিয়ে হইচই হলে আশা করা যায় যে, কোম্পানি এটি ঠিক করবে। কিন্তু ততটা সময় অবধি যে, হোয়াটসঅ্যাপের এই ত্রুটির কারণে লক্ষ লক্ষ মানুষের গোপনীয়তা নষ্ট হতে পারে এবং তারা কোনো অযাচিত স্ক্যামে জড়িয়ে পড়তে পারেন, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই!