নতুন গেমিং হেডফোন খুঁজছেন? Philips আনল একঝাঁক ফিচারে ঠাসা হেডফোন

Philips TAH8560BK, TAH6506BK, TAA4216BK, TAH4205XTBK এবং TAUH201BK মডেলের হেডফোন ভারতে লঞ্চ হল

Philips Launches Headphone in India

ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস প্রস্তুতকারী সংস্থা Philips ভারতে উন্মোচন করলো তাদের নতুন হেডফোন সিরিজ। প্রিমিয়াম ফিচারযুক্ত এই হেডফোন মডেলগুলি হল TAH8560BK, TAH6506BK, TAA4216BK, TAH4205XTBK এবং TAUH201BK। দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফযুক্ত এই হেডফোনগুলি এনভারমেন্টাল নয়েজ ক্যান্সেলেশন ফিচার অফার করবে বলে দাবি করেছে সংস্থাটি। তাছাড়া হেডফোনগুলিতে রয়েছে এডজাস্টেবল এবং ফোল্ডেবল ইয়ার কাপ। চলুন দেখে নেওয়া যাক নতুন Philips TAH8560BK, TAH6506BK, TAA4216BK, TAH4205XTBK এবং TAUH201BK মডেলের হেডফোনগুলির দাম, ফিচার এবং স্পেসিফিকেশন।

Philips এর নতুন হেডফোনগুলির দাম ও লভ্যতা

ভারতীয় বাজারে Philips TAH8560BK মডেলের হেডফোনের দাম রাখা হয়েছে ১০,৯৯৯ টাকা। পাশাপাশি TAH6506BK, TAA4216BK, TAH4205XTBK এবং TAUH201BK মডেলের হেডফোনগুলির দাম থাকছে যথাক্রমে ১১,৯৯৯ টাকা, ৮,৯৯৯ টাকা, ৪,৯৯৯ টাকা এবং ১,৯৯০ টাকা। এই পাঁচটি হেডফোনই দেশের জনপ্রিয় অনলাইন এবং অফলাইন স্টোর থেকে কিনতে পাওয়া যাবে।

Philips হেডফোনগুলির ফিচার ও স্পেসিফিকেশন

নবাগত Philips TAH8560BK, TAH6506BK এবং TAA4216BK হেডফোন তিনটি ওভার ইয়ার ডিজাইনে এবং TAH4205XTBK এবং TAUH201BK মডেল দুটি অন ইয়ার ডিজাইনে এসেছে। এর মধ্যে TAH8560BK মডেলে ফিজিক্যাল বাটনের পরিবর্তে টাচ কন্ট্রোল বাটন বর্তমান। তাছাড়া নবাগত পাঁচটি হেডফোনেই রয়েছে এডজাস্টেবল এবং ফোল্ডেবল ইয়ার কাপ।

অন্যদিকে, ইয়ারফোনগুলির অডিও প্রসঙ্গে বলতে গেলে TAH8560BK মডেলটি মনোরম হিয়ারিং এক্সপেরিয়েন্স প্রদান করার সাথে অ্যাডাপ্টিভ অ্যাক্টিভ নয়েজ ক্যান্সলেশন ফিচার অফার করবে। তাছাড়া এতে একটি হাই রেস অডিও সার্টিফিকেট যুক্ত ৪০এমএম স্পিকার উপস্থিত। শুধু তাই নয়, এতে রয়েছে কাস্টমাইজেবল অ্যাম্বিয়েন্ট মোড এবং চারটি প্রি সেট ইকুইলাইজার লেভেল। এমনকি হেডফোনটি একবার চার্জে ৬০ ঘন্টা পর্যন্ত এবং এএনসি ফিচার চালু থাকলে ৪৫ ঘণ্টা পর্যন্ত পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে সক্ষম। পাশাপাশি Philips TAH6506BK মডেলের হেডফোনে রয়েছে ৩২ এমএম ড্রাইভার এবং অ্যাক্টিভ নয়েজ ক্যান্সলেশন ফিচার। এমনকি অডিও ইন পোর্টের সাথে আসা হেডফোনটি একবার চার্জে ৩০ ঘণ্টা এবং এএনসি ফিচার চালু থাকলে ২৫ ঘন্টা পর্যন্ত পাওয়ার ব্যাকআপ দেবে। তবে উভয় হেডফোনই ব্লুটুথ কানেক্টিভিটির মাধ্যমে মাল্টি পয়েন্ট পেয়ারিং টেকনোলজি সাপোর্ট করবে।

এবার আসা যাক Philips TAA4216BK হেডফোন প্রসঙ্গে। সহজে পরিষ্কার করার জন্য এতে রয়েছে ডিটাচেবল ইয়ারকাপ। তাছাড়া দীর্ঘক্ষণ ব্যবহার করার জন্য ইয়ারকাপগুলিতে থাকছে কুলিং জেল। শুধু তাই নয়, এতে মাল্টি ফাংশনাল বাটন এবং বিল্ট-ইন মাইক বর্তমান। এমনকি হেডফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ৪০ এমএম নিও ডাইনিয়াম ড্রাইভার। তদুপুরি একবার চার্জে হেয়ারেবলটি ৩৫ ঘন্টা ব্যবহারযোগ্য।

এরপর আলোচনা করা যাক Philips TAH4205XTBK হেডফোন নিয়ে। নবাগত এই হেডফোনে থাকছে একটি মাল্টি ফাংশনাল বাটন। এছাড়া দ্রুততার সাথে বেস এবং বিট বাড়ানোর জন্য হেডফোনটিতে দেওয়া হয়েছে একটি নির্দিষ্ট বেস বুষ্ট বাটন। তাছাড়া হেডফোনটিতে ৩২ এমএম ড্রাইভার উপলব্ধ এবং একবার চার্জে হেডফোনটি ২৯ ঘণ্টার ব্যাটারি লাইফ অফার করবে।

সবশেষে জানিয়ে রাখি, Philips TAUH201BK মডেলে রয়েছে ইনলাইন রিমোট এবং বিল্ট-ইন মাইক। তাছাড়া হেডফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ৩২ এমএম ড্রাইভার এবং এনভারমেন্টাল নয়েজ ক্যান্সলেশন ফিচার।