গাড়ি

20 জানুয়ারি ভারতে গ্র্যান্ড লঞ্চ নতুন Hyundai Grand i10 Nios এর, যাত্রী সুরক্ষায় বিশেষ ফিচার

বর্তমানে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম গাড়ির বাজার ভারতে লঞ্চের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে Hyundai Grand i10-এর নতুন সংস্করণ। চলতি মাসেই গাড়িটি বাজারে হাজির হতে পারে বলে জল্পনা দানা বেঁধেছিল। কারণ কিছুদিন আগে নয়া মডেলটির ছবি-সহ সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন দক্ষিণ কোরিয়ান সংস্থাটি তাদের ভারতীয় ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছিল। এবারে সকল জল্পনা সত্যি প্রমাণিত করে হুন্ডাই (Hyundai) তাদের এন্ট্রি-লেভেল গাড়িটির লঞ্চের তারিখ ঘোষণা করল। আগামী ২০ জানুয়ারি ভারতে পা রাখছে Grand i10 Facelift

উল্লেখ্য, বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে হন্ডাই নিজেদের ছুলিতে গ্র্যান্ড আই১০ গাড়িটি স্বমহিমায় সাজিয়ে রেখেছে। এমনকি হালফিলে এদেশে এসইউভি (SUV) স্টাইলের গাড়ির প্রতি ক্রেতাদের ঝোঁক বাড়লেও Grand i10-এর জনপ্রিয়তায় এতোটুকু ভাটা পড়েনি। যে কারণে এটিকে নতুন অবতারে হাজির করতে চলেছে বর্তমানে দেশের তৃতীয় বৃহত্তম গাড়ি নির্মাণকারী সংস্থাটি।

ইতিমধ্যেই, Hyundai Grand i10 Nios facelift এডিশনটির ১১,০০০ টাকায় বুকিং গ্রহণ শুরু হয়েছে। বহিরঙ্গের ডিজাইনে কিছু আপডেট এবং নতুন ফিচার দ্বারা সজ্জিত হয়ে আসছে এটি। যেমন গাড়িটির সামনে একটি নতুন ব্ল্যাক রেডিয়েটর গ্রিল এবং এলইডি ডিআরএল দেওয়া হয়েছে। ১৫ ইঞ্চি অ্যালয় হুইল এবং টেল গেটের ডিজাইনে বদল আনা হয়েছে। আবার বিদ্যমান মডেলটির সাথে টেল লাইটেও সামান্য ফারাক নজরে পড়বে।

গাড়িটির কেবিন আপডেটের মধ্যে রয়েছে ৮ ইঞ্চি মেইন ইনফোটেনমেন্ট স্ক্রিন, ওয়্যারলেস ফোন চার্জিং সিস্টেম এবং আপডেটেড ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার। এছাড়া এতে অফার করা হচ্ছে ক্রুজ কন্ট্রোল, ইএসসি, হিল স্টার্ট অ্যাসিস্ট কন্ট্রোল, টায়ার প্রেসার মনিটরিং সিস্টেম সহ আরও অন্যান্য বৈশিষ্ট্য। তবে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল যাত্রী সুরক্ষায় স্ট্যান্ডার্ড ফিচার হিসেবে গাড়িটির সকল ভ্যারিয়েন্টে দেওয়া হচ্ছে চারটি এয়ারব্যাগ।

নতুন প্রজন্মের (২০২৩) Grand i10 Nios ছয়টি বডি কালার সহ হাজির হবে। যার মধ্যে থাকছে নতুন স্পার্ক গ্রীন শেড। এগিয়ে চলার শক্তি জোগাতে একটি ১.২ লিটার কাপ্পা পেট্রোল ইঞ্জিনে আসছে গাড়িটি। যাতে থাকছে ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশন ইউনিট। এছাড়াও অটোমেটিক ট্রান্সমিশন বিকল্পে উপলব্ধ হবে। এদিকে সংস্থা জানিয়েছে গাড়িটির কোম্পানি ফিটেড সিএনজি মডেলের বিক্রি জারি থাকবে। এর প্রতিপক্ষ হিসেবে বাজারে রয়েছে Maruti Suzuki Swift, Tata Tiago, Citroen C3 ও Renault Triber।

Back to top button