গাড়ি

Maruti Jimny বাজারে আসার আগেই রেকর্ড গড়ছে, 7 দিনে 5 হাজারের বেশি বুকিং

মাত্র সাত দিন হল ভারতবাসী চিনেছে তাকে, আর এরই মধ্যে যেন ভারতবাসীর নয়নের মনি হয়ে গিয়েছে মারুতি সুজুকির (Maruti Suzuki) পাঁচ দরজা বিশিষ্ট অফ-রোড এসইউভি Jimny। দিল্লির বুকে সদ্য সমাপ্ত হওয়া অটো এক্সপো ২০২৩ এ আত্মপ্রকাশ করেছিল এটি। শুধুমাত্র প্রদর্শন হলেও আনুষ্ঠানিক ভাবে লঞ্চ হতে এপ্রিল মাস পর্যন্ত অপেক্ষা। তার আগে ২৫,০০০ টাকা টোকেন জমা রেখে উৎসাহী ক্রেতারা সংস্থার প্রিমিয়াম ডিলারশিপ নেটওয়ার্ক Nexa-র মাধ্যমে এটি বুক করতে পারছেন। প্রদর্শিত হওয়ার দ্বিতীয় দিন থেকেই বুকিং গ্রহণ করা হচ্ছে। আর সেটা থেকেই মিলছে জনপ্রিয়তার আভাস।

আগে খবর এসেছিল, দুই দিনের মধ্যেই জিমনির ঝুলিতে জমা পড়েছিল ৩০০০ এর বেশি অগ্রিম বুকিং। আর এখন দাবি করা হয়েছে, এক সপ্তাহ না পেরোতেই ৫,০০০ এর বেশি বুকিং চলে এসেছে। গাড়িটির দাম ১০ লক্ষ টাকার আশেপাশেই হবে বলে মনে করা হচ্ছে। Zeta ও Alpha নামে দুটি ভ্যারিয়েন্টে বাজারে উপলব্ধ হবে Marut Jimny।

মারুতি জিমনিতে ১.৫ লিটারের K15B পেট্রোল ইঞ্জিন যার সাথে আইডল স্টার্ট/স্টপ ফাংশন উপলব্ধ রয়েছে। ফোর-হুইল ড্রাইভ (4WD) ফিচারের এই গাড়িতে ফাইভ স্পিড মানুয়াল এবং ফোর স্পিড টর্ক কনভার্টার অটোমেটিক গিয়ার বক্স অপশন মিলবে। ইঞ্জিনটি থেকে সর্বোচ্চ ১০৪.৮ পিএস শক্তি এবং ১৩৪.২ এনএম টর্ক জেনেরেট হয়। মাইলেজ নিয়ে অবশ্য কোনও তথ্য এখনো পর্যন্ত প্রকাশ করা হয়নি।

জিমনির দৈর্ঘ্য মাহিন্দ্রা থরের (Thar) মতই- ৩,৯৮৫ মিমি। প্রস্থ ও উচ্চতা যথাক্রমে ১,৬৪৫ মিমি ও ১,৭২০ মিমি। মারুতির এই নতুন এসইউভিটিতে সবচেয়ে বড় হুইলবেস ২,৫৯০ মিমি দেওয়া হয়েছে। গাড়িটির গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ২১০ মিমি, যা এর অন্যতম বড় প্রতিদ্বন্দ্বী Force Gurkha-র চেয়ে সামান্য বেশি। ল্যাডার অন ফ্রেম চ্যাসিসের উপর নির্মিত হওয়ায় এই ৫ দরজা বিশিষ্ট গাড়িটির অ্যাপ্রোচ অ্যাঙ্গেল ৩৬ ডিগ্রি, ডিপারচার অ্যাঙ্গেল ৫০ ডিগ্রি এবং ব্রেক ওভার অ্যাঙ্গেল ২৪ ডিগ্রি।

এর আলফা ভ্যারিয়েন্টে বেশ কিছু এক্সক্লুসিভ ফিচার সংযুক্ত করা হয়েছে। যেগুলির মধ্যে রয়েছে ৯ ইঞ্চির স্মার্ট প্লে প্রো প্লাস টাচ স্ক্রিন যুক্ত ইনফোটেনমেন্ট সিস্টেম, Arkayms এর সাউন্ড সিস্টেম, লেদার যুক্ত স্টিয়ারিং হুইল, অটোমেটিক ক্লাইমেট কন্ট্রোল, স্মার্ট কিলেস এন্ট্রি, ইঞ্জিন স্টার্ট/স্টপ বোতাম, ইলেকট্রিক ফোল্ডেবল সাইড মিরর, অটোমেটিক হেডল্যাম্প, হেডল্যাম্প ওয়াসার, ডিআরএল সহ এলইডি হেডল্যাম্প, ফগ ল্যাম্প, অ্যালয় হুইল, ডার্ক গ্রীন গ্লাস এবং বডির কালারের ORVM।

মারুতি সুজুকি জিমনির সেফটি ফিচারের প্রসঙ্গে বলতে গেলে এতে রয়েছে ছয়টি এয়ার ব্যাগ, হিল হোল্ড অ্যাসিস্ট, ইলেকট্রনিক্স স্টেবিলিটি কন্ট্রোল, হিল ডিসেন্ট কন্ট্রোল, ব্রেক লিমিটেড স্লিপ ডিফারেন্সিয়াল, ৩- পয়েন্ট ELR সিট বেল্ট, রিয়ার ভিউ ক্যামেরা, রিয়ার ডিফগার, EBD সহ ABS, ব্রেক অ্যাসিস্ট, সেন্ট্রাল ডোর লকিং এবং আইসোফিক্স চাইল্ড সিট মাউন্ট।

Back to top button