কেনার এক সপ্তাহও হয়নি, নতুন ইলেকট্রিক স্কুটার ভেঙে মুখ থুবড়ে পড়ল! ফের অভিযোগে বিদ্ধ Ola

New Ola S1 Pro Electric Scooter Breaks Down
New Ola S1 Pro E-Scooter Broke

খারাপ গুণগত মানের কারণে ফের একবার কাঠগড়ায় ওলা ইলেকট্রিক (Ola Electric)-এর ফ্ল্যাগশিপ বৈদ্যুতিক স্কুটার S1 Pro। ডেলিভারি পাওয়ার ছ’দিনের মাথায় ঘটলো বিপত্তি। সামনের সাসপেনশন ভেঙে চাকা বেরিয়ে এল। মুখ থুবড়ে পড়ল ই-স্কুটার। সঞ্জীব জৈন নামে এক ব্যক্তি এমনটাই অভিযোগ করেছেন।  একটি ফেসবুক গ্রুপে ক্ষতিগ্রস্ত স্কুটারের ছবি পোস্ট করে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তিনি।

ছবিতে দেখা যায় লাল রঙের নতুন Ola S1 Pro স্কুটারটির সামনের চাকা ভেঙে পড়ে আছে। তিনি জানান, স্কুটারটি নিয়ে বাড়ির কাছেই চালাচ্ছিলেন। আর সেসময় আচমকাই অঘটনটি ঘটে। এদিকে বর্তমানে ব্যাটারি চালিত টু-হুইলারের বাজারে যথেষ্ট সুনাম কামিয়েছে ওলা। S1 ও S1 Pro মডেল দুইয়ের কাঁধে ভর করে তরতরিয়ে এগিয়ে চলেছে সংস্থার সাফল্যের জয়ধ্বজা। কিন্তু এক বালতি সাফল্য আখ্যায়িত দুধে একফোঁটা গোচনা হয়ে বারংবার সংস্থার নাম কলঙ্কিত করছে এহেন অপ্রীতিকর ঘটনা।

এর আগেও এহেন বিপত্তির কথা সামনে এসেছিল। সেবার রাস্তায় স্পিড ব্রেকারে সামনের চাকা উঠতেই ফ্রন্ট সাসপেনশন ভেঙে বেরিয়ে আসে। তেমন কোনো বড়সড়ো দুর্ঘটনা না ঘটলেও, সম্ভাব্য ভয়াবহতা সম্পর্কে আঁচ করলেই গায়ে শিহরণ জাগে। যে কারণে ওলা ইলেকট্রিক সম্পর্কে নিন্দার ঝড় ওঠে। বহু মানুষ এই সংস্থার ইলেকট্রিক স্কুটার কেনা থেকে বিরত থাকতে পরামর্শ দেন। স্কুটারের সফটওয়্যারেও গোলযোগ দেখা দিয়েছিল। কিন্তু MoveOS 2.0 আপডেট পাওয়ার পর তা বন্ধ হয়।

সঞ্জীবের এই অভিযোগ ওলা কর্তৃপক্ষের নজরে পড়েছে কিনা তা জানা যায়নি। যদি পড়েও থাকে তাও সংস্থার তরফে এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া আসেনি। এদিকে সংস্থাটির বর্তমানে তাদের সফটওয়্যারের আপডেটেড ভার্সন MoveOS 3.0 রোলআউটে ব্যস্ত। এ বছর দিওয়ালির সময় এটি লঞ্চ করা হবে। আবার S1 Pro-এর ছোট ব্যাটারি ভার্সনের স্কুটার আনতেও কোমর বেঁধেছে ওলা ইলেকট্রিক। যার দাম ৮০,০০০ টাকার কম রাখা হবে।