ইলেকট্রিক গাড়ি

মরচে পড়বে না, সহজে ভাঙবেও না, ব্যাটারি স্কুটার, ই-বাইক সহ নানা চমক নিয়ে আসছে এই সংস্থা

২০২৩ এর অটো এক্সপো মেলায় অংশগ্রহণ করবে ভারতবর্ষ সহ সমগ্র বিশ্বের গাড়ি শিল্পের সঙ্গে যুক্ত ছোট-বড় বিভিন্ন নির্মাতা। এবারের অটো এক্সপোর সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হল বিভিন্ন ধরনের বৈদ্যুতিক যানবাহন। এক্ষেত্রে সবার নজর থাকবে এদেশের বুকে জন্ম নেওয়া বেশ কিছু স্টার্টআপ সংস্থার দিকেও।

যেমন ছত্তিশগড়ের রায়পুর ভিত্তিক এক সংস্থা Godawari Electric Motors। মূলত ব্যাটারি চালিত দুই চাকা ও তিন চাকার গাড়ি তৈরি হয় তাদের হাত ধরে। এবার নতুন বছরে আয়োজিত অটো এক্সপোতে নিজেদের তৈরি বৈদ্যুতিক অটো (L5M) এবং ইলেকট্রিক বাইসাইকেল লঞ্চ করবে এই স্টার্টআপ সংস্থা। আবার ওই মেগা ইভেন্টে তারা বৈদ্যুতিক স্কুটার, ব্যাটারী চালিত রিকশা এবং ইলেকট্রিক লোডারের প্রোটোটাইপ সংস্করনের উপর থেকে পর্দা সরাবে।

চলতি বছরের নভেম্বরেই তারা ঘোষণা করেছিল যে এই নতুন ব্যাটারি চালিত অটোর সর্বত্র এমন এক বিশেষ ধরনের বডি প্যানেল লাগানো হয়েছে যা DCPD উপাদান দিয়ে তৈরি। DCPD অর্থাৎ ডাইসাইক্লোপেন্টাডিন, এটি বিশেষ ধরনের যৌগিক উপাদান যা মূলত এক ধরনের রেজিন হিসাবে ব্যবহৃত হয়। বর্তমানে অত্যাধুনিক প্লাস্টিক প্রযুক্তিতে ব্যবহৃত হয় এই যৌগটি। বেশকিছু অতিরিক্ত সুবিধা মেলে এর ব্যবহারে।

Godawari Electric Motors-র দাবি অনুযায়ী এই বিশেষ যৌগ বাইরের ঘাত প্রতিরোধ সহন করার জন্য উপযুক্ত। তাই একে “ভার্চুয়ালি আনব্রেকেবেল” বলেও ডাকা হয়। এর ফলে অতিরিক্ত চরমভাবাপন্ন পরিবেশেও তাদের তৈরি যানবাহনের সমস্ত যন্ত্রপাতি সুরক্ষিত থাকবে এবং মরচে পড়ার হাত থেকে বাঁচবে।

উপরন্তু, অটো এক্সপো ২০২৩-এ তাদের তৈরি ব্যাটারি চালিত স্কুটার, লোডার এবং রিকশোর প্রাথমিক সংস্করণ অর্থাৎ প্রটোটাইপ মডেলের আত্মপ্রকাশ করবে তারা। এই সবকটি মডেলের বাস্তবিক রূপদানের কাজ সম্পন্ন হবে তাদের রায়পুরের ফ্যাক্টরিতেই। আগামী বছরেই (২০২৪) সম্ভবত লঞ্চ করবে এগুলি।
ইতিমধ্যেই তাদের উংপাদন কেন্দ্র গড়ে তুলতে ১৫০ কোটি টাকা লগ্নি হয়েছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

Back to top button