Homeঅটোকারইলেকট্রিক গাড়িস্ট্যান্ড ছাড়াই সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে, Auto Expo 2023-এ তাক লাগাল বিশ্বের প্রথম স্ট্যান্ডলেস স্কুটার

স্ট্যান্ড ছাড়াই সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে, Auto Expo 2023-এ তাক লাগাল বিশ্বের প্রথম স্ট্যান্ডলেস স্কুটার

মুম্বাইয়ের ইলেকট্রিক ভেহিকেল স্টার্টআপ লাইগার মোবিলিটি (Liger Mobility) ২০২৩ অটো-এক্সপোতে একজোড়া ইলেকট্রিক স্কুটারের উপর থেকে পর্দা সরালো। সংস্থার দাবি তাদের এই স্কুটারে বিশ্বের প্রথম সেলফ ব্যালান্সিং টেকনোলজির সুবিধা মিলবে। অর্থাৎ এতে ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য পা ফেলার বা স্ট্যান্ডের প্রয়োজন পড়বে না। কোনওরকম সেন্ট্রাল কিংবা সাইড স্ট্যান্ড ছাড়াই নিজে থেকেই দাঁড়িয়ে থাকতে পারবে। Liger X এবং X+ ই-স্কুটার দুটির ২০২৩-এর মাঝামাঝি থেকে বুকিং গ্রহণ শুরু হবে। আশা করা হচ্ছে চলতি বছরের শেষের দিকে আনুষ্ঠানিক ভাবে লঞ্চের ঘোষণা করবে লাইগার।

পাশাপাশি সংস্থাটি ২০২৫-এর মাঝামাঝি থেকে তাদের এই ইলেকট্রিক স্কুটার দুটি বিদেশের বাজারের রপ্তানির পরিকল্পনা করছে। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় সরকারের ফেম-২ ভর্তুকি ধরে এদের দাম ৯০,০০০ টাকার (এক্স-শোরুম) কাছাকাছি ধার্য করা হতে পারে। মুম্বাইয়ের সংস্থাটি দাবি করেছে, তাদের এই বিশ্বমানের সেল্ফ-ব্যালান্সিং প্রযুক্তি চালককে সুরক্ষা, আরাম এবং সুবিধা প্রদান করবে।

তবে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ধীর গতিতে চলার সময় এই অটো-ব্যালান্সিং প্রযুক্তিটি রাইডার নিজের ইচ্ছে মতো একটি বাটনের মাধ্যমে সক্রিয় অথবা নিষ্ক্রিয় করে রাখতে পারবেন। দাঁড় করানোর জন্য ফ্লোরবোর্ড থেকে পা নামানোর দরকার হবে না।

Liger X ও Liger X+ একটি লিকুইড কুল্ড লিথিয়াম ব্যাটারি প্যাকযুক্ত। যেগুলি ভারতের আবহাওয়ার সাথে খাপ খাইয়ে বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে। ব্যাটারিতে উপলব্ধ অত্যাধুনিক প্রযুক্তি যা বেশি তাপমাত্রায় সুরক্ষা এবং আনুমানিক রক্ষণাবেক্ষণের হদিশ দেবে। ঘন্টা প্রতি সর্বোচ্চ গতিবেগ উঠবে ৬৫ কিমি। স্কুটার দুটি এক চার্জে যথাক্রমে ৬০ কিমি ও ১০০ কিমি রেঞ্জ প্রদান করবে।

লাইগার এক্স-এ দেওয়া হয়েছে ডিটাচেবল ব্যাটারি প্যাক। অর্থাৎ ব্যাটারি খুলে যে কোন স্থানে যেকোনো সময় চার্জে বসানো যাবে। এটি তিন ঘন্টারও কম সময়ে ফুল চার্জ হয়ে যাবে। লাইগার এক্স+ এ রয়েছে নন ডিটাচেবল ব্যাটারি প্যাক। যেটি সম্পূর্ণ চার্জ হতে প্রায় ৪.৫ ঘন্টা সময় নেবে। আবার অতিরিক্ত মূল্যের বিনিময়ে উভয় মডেলে ফার্স্ট চার্জিংয়ের অপশন যোগ করা যাবে। ফিচারের তালিকায় রয়েছে রিভার্সিং বাটন, লার্নিং মোড এবং ওভার দ্য এয়ার সফ্টওয়্যার আপডেট।

স্কুটার দুটি পাঁচটি রঙের বিকল্পে বেছে নেওয়া যাবে। লাইগার এক্স ও লাইগার এক্স+ ডিজাইনগত দিক থেকে অনুরূপ। এতে রয়েছে ইনভার্টেড ডেল্টা আকৃতির এলইডি হেড ল্যাম্প, এলইডি ডিআরএল, এলইডি টেললাইট এবং এলইডি টার্ন ইন্ডিকেটর, ফুল ডিজিটাল টিএফটি ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, চালক এবং যাত্রীর জন্য চওড়া সিট, গ্র্যাব রেল সহ আরও অন্যান্য বৈশিষ্ট্য। এছাড়া স্কুটার দুটিতে ৪জি, জিপিএস, টার্ন বাই টার্ন নেভিগেশনের সুবিধা মিলবে। দুটি স্কুটারেই অ্যালয় হুইলের সাথে চওড়া টায়ার দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন