Ola ভারতের বাজার কাঁপিয়ে এবার প্রতিবেশী দেশে ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চের ঘোষণা করল

Ola Electric to launch S1 and S1 Pro E-Scooter in Nepal
Ola Electric S1 S1 Pro E-Scooter

স্বল্প সময়ের মধ্যে ভারতে আলোড়ন সৃষ্টি করা বৈদ্যুতিক স্কুটার নির্মাতা ওলা ইলেকট্রিক (Ola Electric) এবারে বিদেশের বাজারে ব্যবসা শুরু করতে চলেছে। যার শুভারম্ভ হতে চলেছে নেপাল থেকে। আজ ওলার কর্ণধার ভাবিশ আগরওয়াল টুইট বার্তায় একথা জানিয়েছেন। নেপালের বাজার ধরতে ইতিমধ্যেই স্থানীয় সংস্থা সিজি মোটরস (CG Motors)-এর সঙ্গে মৌ স্বাক্ষর করেছে ওলা। যারা হিমালয়ের কোলে অবস্থিত ছোট্ট দেশটিতে ওলার ইলেকট্রিক স্কুটারের ডিস্ট্রিবিউটরের দায়িত্ব সামলাবে। সেখানকার সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে আজ থেকে শুরু হয়ে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলা NADA EV Auto Show-তে Ola S1 ও S1 Pro আত্মপ্রকাশ করবে। আর লঞ্চ হবে নভেম্বর-ডিসেম্বর নাগাদ। তখনই সেগুলি কেনা যাবে।

আজ টুইটারে ভাবিশ লিখেছেন, “ভারত Ola S1 স্কুটার ভালোবেসে আমাদের ইভি বিপ্লবের সূচনা করেছে। এখন আমরা এটি বিশ্বের দরবারে হাজির করতে চলেছি। নেপালে আমাদের প্রবেশের ঘোষণা করছি। ২০২২ এর শেষার্ধ থেকে নেপালের গ্রাহকরা এই নবজাগরণ অংশগ্রহণ করতে পারবেন।” ভাবিশ আরও জানান, তারা ভবিষ্যতে লাতিন আমেরিকা, আসিয়ান গোষ্ঠীভুক্ত দেশ এবং ইউরোপের বাজারেও তাদের ওই ব্যাটারি চালিত দু’চাকার গাড়ি হাজির করবে।

স্পেসিফিকেশনগুলির কথা বললে Ola S1-এ উপস্থিত একটি ২.৯৮ কিলোওয়াট ব্যাটারি প্যাক। যা একটি সাধারণ চার্জারে সম্পূর্ণ চার্জ হতে ৪.৪৮ ঘন্টা সময় লাগবে। আবার ফাস্ট চার্জার দিয়ে ১৮ মিনিটের চার্জ ৭৫ কিলোমিটার পথ চলার শক্তি জোগাবে। ফুল চার্জে ১২১ কিমি রেঞ্জ দেবে এটি। ইলেকট্রিক মোটর থেকে ৮.৫ কিলোওয়াট শক্তি এবং ৫৮ এনএম টর্ক উৎপন্ন হবে। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৯০ কিমি। এতে উপস্থিত নর্মাল এবং স্পোর্টস রাইডিং মোড।

অন্যদিকে, আরও উন্নত Ola S1 Pro-তে দেওয়া হয়েছে ৩.৯৭ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি প্যাক। এটিও ফাস্ট চার্জার দিয়ে ১৮ মিনিটের চার্জে ৭৫ কিলোমিটার পথ চলার শক্তি উৎপন্ন হবে। তবে একটি চিরাচরিত চার্জার দ্বারা সম্পূর্ণ চার্জ হতে ৬:৩০ ঘন্টা অপেক্ষা করতে হবে। সিঙ্গেল চার্জে এর রেঞ্জ ১৮১ কিমি। এতে উপস্থিত ৮.৫ কিলোওয়াট ইলেকট্রিক মোটর। যা ঘন্টায় ১১৫ কিমি সর্বোচ্চ গতি তুলতে সক্ষম। এতে তিনটি রাইডিং মোড উপলব্ধ – নর্মাল, স্পোর্টস এবং হাইপার।

প্রসঙ্গত, ওলার তরফে ভারতে হাইপার চার্জার নেটওয়ার্কের বিষয়ে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ঘোষণা আসতে পারে। এদেশে সংস্থাটি ফাস্ট চার্জিং স্টেশন পরিকাঠামোর উন্নয়নের পরিকল্পনার কথা এর আগে প্রকাশ করেছিল। গত বছর ডিসেম্বর থেকেই তারা নিজেদের ইলেকট্রিক স্কুটারের জন্য চার্জার বসানোর কাজে হাত লাগিয়েছে। যেখান থেকে ৮০ মিনিটে ৫০% শতাংশ চার্জ করানো যাবে বলে দাবি ওলার।

এ বছরের মধ্যে সমগ্র ভারতে ৪,০০০ হাইপার চার্জার বসানোর লক্ষ্য স্থির করেছে তারা। আবার দীর্ঘদিন অনলাইনে ব্যবসার পর গ্রেটার নয়ডাতে তাদের প্রথম শোরুমের উদ্বোধন করা হয়েছে। ২০২৩-এর মার্চের মধ্যে গোটা দেশে তারা ২০০টি এক্সপেরিয়েন্স সেন্টার বা ডিলারশিপ খোলার লক্ষ্যে এগিয়ে চলেছে।

শুভদীপ টেকগাপে অটোকার বিষয়ক লেখালিখি করে। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, অটোকার নিয়ে টেকগাপে তার হাতেখড়ি। দিনকে দিন সে টেকগাপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেছে।