Tata Motors এর উদ্যোগে ভারতে গড়ে উঠতে পারে বৈদ্যুতিক গাড়ির ব্যাটারি সেলের কারখানা

Tata Motors build EV cell Manufacturing Plant India

যত দিন যাচ্ছে বৈদ্যুতিক যানবাহনের চাহিদাও তত বাড়ছে। কিন্তু বর্তমানে এদেশের বেশিরভাগ পরিবেশবান্ধব গাড়ি নির্মাতাদের ব্যাটারি সেলের বিষয়ে চীন ও কোরিয়ার মত দেশগুলির মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হয়। যেগুলি ভারতের চরমভাবাপন্ন আবহাওয়ার সাথে আদৌ খাপ খায় কিনা, সে বিষয়ে সন্দেহ একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না। তাই এদেশে ব্যবসা করে, এমন বহু সংস্থা ধীরে ধীরে ব্যাটারি সেল উৎপাদনে স্বাবলম্বী হওয়ার পথে হাঁটা শুরু করেছে। এবার সে পথের পথিক হল টাটা গোষ্ঠী (Tata Group)। তাদের প্রধান অর্থনৈতিক আধিকারিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে সংশ্লিষ্ট বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, টাটা ইলেকট্রিক ভেহিকেলের ব্যাটারি সেল উৎপাদনের জন্য ইউরোপ এবং ভারতে কারখানা তৈরির পরিকল্পনা করছে।

এদেশে এখনও পর্যন্ত ৫০,০০০-এর বেশি ইলেকট্রিক গাড়ি বিক্রিয়কারী টাটা মোটরস (Tata Motors) বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজারে রাজ করছে। ২০২৬-এর মধ্যে তারা ১০টি নতুন মডেল লঞ্চের পরিকল্পনা করছে। সংস্থাটি ২০২৫-এর মধ্যে তাদের মোট গাড়ি বিক্রির ৮% ব্যাটারি চালিত করার লক্ষ্যে দৌড়চ্ছে। ব্যাটারি সেলের স্থানীয়করণের ফলে গাড়ির দাম সাধ্যের মধ্যে রাখা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন টাটা মোটরসের এক আধিকারিক।

বর্তমানে টাটা দুটি কারখানা তৈরির ব্যাপারে ভাবছে। একটি এদেশে এবং অপরটি ইউরোপের মাটিতে গড়ে তোলা হবে। যাতে তাদের লাক্সারি গাড়ি সংস্থা Jaguar ও Land Rover-এর ব্যাটারি সেলের চাহিদা পূরণ করা যায়। ব্যাটারি সেল ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ যোগাবে টাটা মোটরসের অভিভাবক সংস্থা টাটা সন্স (Tata Sons)। তবে কারখানা তৈরির সময়কাল সম্পর্কে কিছু জানানো হয়নি।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে বিশ্বের মধ্যে সর্বাধিক গাড়ি বিক্রির দেশগুলির তালিকার তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারতের নাম। যদিও এদেশে জনসংখ্যার বিচারে যানবাহন কেনার অনুপাত নগণ্য বলা যায়। গত বছরে মোট ভেহিকেল বিক্রির মাত্র এক শতাংশ অবদান রেখেছে বৈদ্যুতিক। যার পরিমাণ প্রায় ৩৮ লক্ষ। কিন্তু ২০৩০ এর মধ্যে ভারত সরকার চাইছে এই হার ৩০ শতাংশে পৌঁছাতে।