Homeঅটোকারপ্রথম ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চের আগে বড় পদক্ষেপ, Hero MotoCorp দেশজুড়ে পেট্রল পাম্পে চার্জার বসাবে

প্রথম ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চের আগে বড় পদক্ষেপ, Hero MotoCorp দেশজুড়ে পেট্রল পাম্পে চার্জার বসাবে

ভারতে দু’চাকা বৈদ্যুতিক গাড়ির চার্জিং স্টেশন পরিকাঠামোর উন্নয়নে এবার এগিয়ে এলো দুই প্রসিদ্ধ সংস্থা। বিশ্বের বৃহত্তম টু-হুইলার নির্মাতা হিরো মোটোকর্প (Hero MotoCorp) এবং তেল ও গ্যাস সংশোধনকারী হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড বা এইচপিসিএল (HPCL) এবার কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দেশে চার্জিং স্টেশন নির্মাণের উদ্দেশ্যে গাঁটছড়া বাঁধলো। চুক্তির শর্ত অনুযায়ী, সংস্থাদ্বয় দেশজুড়ে ইলেকট্রিক টু-হুইলারের চার্জিং পরিকাঠামো গড়ে তুলবে। যেগুলি প্রথমে এইচপিসিএল-এর পেট্রল পাম্পে বসানো হবে।

প্রাথমিক পর্যায়ে বাছাই করা কয়েকটি শহরে চার্জিং স্টেশন নির্মাণ করা হবে। ইভি চার্জিং স্টেশন নেটওয়ার্কের ব্যাপক সম্প্রসারণের উদ্দেশ্যে পরবর্তীকালে সমগ্র দেশেই এগুলি স্থাপন করা হবে বলে জানানো হয়েছে। এগুলি বসানোর দায়িত্বে থাকবে হিরো মোটোকর্প। স্টেশনগুলিতে ডিসি এবং এসি কারেন্টের একাধিক স্মার্ট এবং ফাস্ট চার্জার উপলব্ধ থাকবে। যেখান থেকে যে কোনো বৈদ্যুতিক দু’চাকার গাড়ি চার্জ করানো যাবে। চার্জিংয়ের সমগ্র অভিজ্ঞতা হিরো মোটোকর্পের মোবাইল অ্যাপ মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এমনকি এখান থেকে ক্যাশলেস পেমেন্টের পরিষেবাও মিলবে।

এই প্রসঙ্গে হিরো মোটোকর্পের চেয়ারম্যান এবং সিইও পবন মুঞ্জল বলেন, “আমরা এদেশে একটি বলিষ্ঠ ইভি ইকো সিস্টেম গড়ে তুলতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা বিশ্বাস করি যে, বৈদ্যুতিক যানবাহনের মসৃণ এবং দ্রুত গ্রহণযোগ্যতা তখনই সম্ভব, যখন গ্রাহকরা নিজেদের সুবিধা মত সমর্থনযোগ্য পরিকাঠামোর সুবিধা পাবেন, বিশেষত পাবলিক চার্জিং। এবং এইচপিসিএল-এর সাথে আমাদের সম্মিলিত প্রয়াস গ্রাহকদের সেই চাহিদা পূরণ করবে।”

অন্যদিকে হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেডের চেয়ারম্যান এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর পুষ্প কুমার জোশি বলেন, “আমাদের ২০,০০০-এর বেশি রিটেইল আউটলেট এবং হিরো মোটোকর্পের বৃহত্তর নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সমগ্র ভারতে ইলেকট্রিক চার্জিং পরিকাঠামোর শক্তিশালী উপস্থিতি তৈরি করতে পারবো। ইভি চার্জিংয়ের সার্বিক সমাধানের জন্য একটি অনন্য কৌশলগত অংশীদারিত্ব নিয়ে আসা হয়েছে। এটি তাৎপর্যপূর্ণ কারণ ভারতে বিক্রি হওয়া ইলেকট্রিক যানবাহনের মধ্যে ৬০ শতাংশের বেশি হল টু-হুইলার। সেজন্য একটি শক্তিশালী চার্জিং ইকোসিস্টেমের প্রয়োজন, যা গ্রাহকদের উদ্বেগ দূর করবে।”

প্রসঙ্গত, হিরো মোটোকর্প তাদের নতুন সাবসিডিয়ারি বা শাখা সংস্থা ভিডা (Vida)-র অধীনে প্রথম মডেলটি আগামী ৭ অক্টোবর প্রকাশ্যে আনতে চলেছে। সেটি যে একটি ইলেকট্রিক স্কুটার হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। রাজস্থানের রাজধানী শহর জয়পুরে লঞ্চ ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। ডিলার, বিনিয়োগকারী, এবং বিশ্বব্যাপী সরবরহারকারীদের সেখানে যোগদান করতে আমন্ত্ৰণ জানিয়েছে হিরো। সূত্রের দাবি, ইভেন্টে ই-স্কুটার জনসমক্ষে আনার পাশাপাশি দামও ঘোষণা হয়ে যেতে পারে। 

আরও পড়ুন