Homeঅটোকারবাইক ও স্কুটারকে বলেছে Honda Activa-র বিকল্প নেই? সুন্দর স্পেসিফিকেশন ও ফিচারের এই স্কুটারগুলি কিনতে পারেন

কে বলেছে Honda Activa-র বিকল্প নেই? সুন্দর স্পেসিফিকেশন ও ফিচারের এই স্কুটারগুলি কিনতে পারেন

ভারতের বাজারে সর্বাধিক জনপ্রিয় স্কুটার নির্মাতার তকমা দীর্ঘদিন ধরেই নিজের অধিকারে রেখেছে হোন্ডা (Honda)। সংস্থাটির সর্বাধিক বিক্রিত মডেল Activa আজও তার গুণে স্বমহিমায় বিরাজমান। প্রায় কুড়ি বছরেরও বেশি সময় ধরে চলে আসা স্কুটারটি প্রতি মাসে দু’লাখ ইউনিটের বেশি বিক্রি হয়। বর্তমানে এটি দুই ভার্সনে উপলব্ধ- 6G এবং 125। Honda Activa-র কোনও বিকল্প হয় না এমন কথা প্রচলিত থাকলেও, বাজারে এর প্রতিপক্ষ কিছু স্কুটার রয়েছে, যাদের স্পেসিফিকেশন ও ফিচার খুব সুন্দর। এই প্রতিবেদনে তেমনই পাঁচ সেরা স্কুটারের খোঁজ রইল।

TVS Jupiter

Activa এর প্রতিপক্ষ হিসাবে প্রথমেই যার নাম আসে সেটি হল ২০১৩ সালে পদার্পণ করা TVS Jupiter। বাহ্যিক ফুয়েল ক্যাপ, ইঞ্জিন কিল সুইচ, এলইডি হেডলাইট, ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার সহ বহু ফিচার্সে সুসজ্জিত মডেলটি নিঃসন্দেহে অ্যাক্টিভার বিকল্প হতে পারে। রেট্রো ডিজাইনের মিরর, বিভিন্ন রং এর কম্বিনেশন এবং পরিষ্কার ফ্রন্ট ভাইজার যুক্ত এর ক্লাসিক সংস্করণটিও আপনি কিনতেক্ষপারেন। মডেলটি ১০৯ সিসি ক্ষমতা সম্পন্ন ইঞ্জিন বিশিষ্ট যা ৭.৩ বিএইচপি শক্তি ও ৮.৪ এনএম টর্ক উৎপাদন করতে পারে। লিটার প্রতি প্রায় ৬৪ কিমি মাইলেজ প্রদানকারী স্কুটারটির এক্স-শোরুম মূল্য ৭৩,১৯২ টাকা।

Suzuki Access 125

সুজুকির পক্ষ থেকে রয়েছে তাদের জনপ্রিয় স্কুটার -Access 125, যা তিনটে সংস্করণে উপলব্ধ- স্ট্যান্ডার্ড, স্পেশাল এবং রাইড কানেক্ট। এর উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য যা একে বাজারের অন্যান্য স্কুটারগুলির মধ্যে অন্যতম করে তোলে তা হল- এলইডি হেডলাইট, ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাসটার, ইউএসবি সকেট যুক্ত ফ্রন্ট অ্যাপ্রন, স্টোরেজ, ব্যাটারি ভোল্টেজ মিটার ইত্যাদি। এটিতে ৮.৫ বিএইচপি ক্ষমতা এবং ১০ এনএম টর্ক উৎপাদনকারী ১২৫ সিসির ইঞ্জিন বিদ্যমান। সাথে রয়েছে পাঁচ লিটারের ফুয়েল ট্যাঙ্ক। অধিক তেল সাশ্রয়ী হিসাবে পরিচিত এই স্কুটারটি ১ লিটার পেট্রোলে প্রায় ৫৭.২২ কিমি চলতে সক্ষম। এই শহরে ৮০,০০০ টাকা (এক্স-শোরুম) থেকে দাম শুরু।

Yamaha Fascino

অ্যাক্টিভার প্রতিদ্বন্দ্বীদের তালিকায় থাকা পরবর্তী মডেলটি হল Yamaha Fascino। রেট্রো লুকের স্কুটারটিতে রয়েছে অটো স্টার্ট-স্টপ সিস্টেম, ২১ লিটারের স্টোরেজ, লাইট ওয়েট বডি, ডিআরএল যুক্ত এলইডি হেড ল্যাম্প, স্টার্টার মোটর জেনারেটর ইত্যাদি ফিচার্স। এতে উপস্থিত হাইব্রিড প্রযুক্তি স্কুটারটিকে ৬৮.৭৫ কিমি/লিটার মাইলেজ প্রদান করতে সাহায্য করে। সর্বোপরি অত্যন্ত উচ্চমানের এই স্কুটারের দাম ৭৯,৪৩০ টাকা (এক্স-শোরুম, কলকাতা) ।

Hero Maestro Edge

এই জাপানি নির্মাতার পরবর্তী প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে রয়েছে Hero Maestro Edge 125। এতে ১২৪.৬ সিসি ইঞ্জিন চালিকাশক্তি যোগায়। ইঞ্জিনটি ৯ বিএইচপি শক্তি এবং ১০.৪ এনএম টর্ক উৎপাদন করার ক্ষমতা রাখে। স্পোর্টি লুকস ও আকর্ষণীয় কালার ছাড়াও এতে রয়েছে এলইডি হেড ল্যাম্প, ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার ,স্মার্টফোন চার্জিং, বুট লাইটিং ইত্যাদি। দাম ৮১,৭৩৬ টাকা। আর ১১০ সিসি ভার্সনের মূল্য ৭২,৬৯৮ টাকা (এক্স-শোরুম)

Ola S1

হোন্ডা অ্যাক্টিভার পরিবর্তন হিসাবে পরিবেশবান্ধব স্কুটার যদি বেছে নিতে চান সেক্ষেত্রে Ola S1 অন্যতম ভালো অপশন। বৈদ্যুতিক স্কুটারের বাজারে নিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করতে সম্প্রতি এই মডেলটি ছোট সংস্করণ S1 Air লঞ্চ করেছে ওলা। বর্তমানে আপনি এর তিনটি সংস্করণ কিনতে পারেন। সেগুলি হল যথাক্রমে: S1 Air( ১০১কিমি/চার্জ), যার অন রোড প্রাইস ৯১,৭৫৪ টাকা। এরপর রয়েছে S1 (১৪১কিমি/চার্জ), যার দাম পড়বে ১.০৯ লাখ টাকা। আর টপ সংস্করণটি হল S1 Pro (১৮১কিমি/চার্জ)। এটি কিনতে খরচ হবে ১.৪৯ লাখ টাকা। কিলেস স্টার্ট, ড্রাইভিং মোড, অডিও সিস্টেম, টাচ স্ক্রিন, ডিজিটাল ক্লাসটার সহ চমকপ্রদ সব ফিচার্স পাবেন ওলার এই স্কুটারে।

আরও পড়ুন