Homeঅটোকারবাইক ও স্কুটারHero Xtreme 160R Stealth 2.0 Edition পুজোর বাজার কাঁপাতে লঞ্চ হল, ফিচার্সে ভরপুর, দেখতেও আকর্ষণীয়

Hero Xtreme 160R Stealth 2.0 Edition পুজোর বাজার কাঁপাতে লঞ্চ হল, ফিচার্সে ভরপুর, দেখতেও আকর্ষণীয়

ভারতের উৎসবের আমেজকে ধূমায়িত করতে আজ হিরো ইলেকট্রিক (Hero Electric) তাদের নেকেড মোটরসাইকেল Xtreme 160R Stealth Edition 2.0 লঞ্চ করল। নতুন সংস্করণের মোটরসাইকেলটি ১,২৯,৭৩৮ টাকা (এক্স-শোরুম) ধার্য মূল্যে বাজারে এসেছে। এদেশে বাইকটির মূল প্রতিপক্ষদের মধ্যে Apache RTR 160 4V, Honda X-Blade ও Bajaj Pulsar N160-এর নাম নেওয়া যায়।

সংস্থার বাকি 160R মডেলগুলির চাইতে কার্যত ভিন্ন লুক সহ হাজির হয়েছে Hero Xtreme 160R Stealth Edition 2.0। এতে দেওয়া হয়েছে একটি মিস্টেরিয়াস ম্যাট ব্ল্যাক শেড, যার সাথে আছে স্ট্রাইকিং রেড অ্যাকসেন্ট সহ টেলিস্কোপিক ফর্ক, ফ্রেম এবং পিলিয়ন গ্রিপ। উপরন্তু এতে দেওয়া হয়েছে একটি নতুন বেলি শ্রাউড, এবং অতিরিক্ত সুরক্ষার জন্য নাকেল গার্ড। যা কিনা 160R-এর অন্য মডেলগুলিতে অনুপস্থিত।

কারিগরি দিক থেকে Hero Xtreme 160R Stealth Edition 2.0-তে দেওয়া হয়েছে একটি ১৬৩ সিসি প্রোগ্রাম ফুয়েলড ইনজেকশন সহ এয়ার কুল্ড এবং XSens প্রযুক্তির ইঞ্জিন। যা থেকে ৬৫০০ আরপিএম গতিতে সর্বোচ্চ ১৫ বিএইচপি শক্তি এবং ১৪ এনএম টর্ক উৎপন্ন হবে। ইঞ্জিনের সাথে সংযুক্ত একটি ৫-স্পিড গিয়ারবক্স, যা বাইকটিকে ০-৬০ কিমি প্রতি ঘন্টার গতিবেগ ৪.৭ সেকেন্ডে তুলতে সহায়তা করবে।

সুরক্ষাজনিত ফিচারের মধ্যে রয়েছে জিও ফেন্সিং, স্পিড অ্যালার্ট, টপেল অ্যালার্ট এবং টো অ্যাওয়ে অ্যালার্ট। জিও ফেন্সিংয়ের কাজ বাইক যদি পূর্ব নির্ধারিত স্থানে প্রবেশ করে অথবা সেখান থেকে প্রস্থান করে, তবে মোবাইল অ্যাপে নোটিফিকেশন পাঠানো। স্পিড অ্যালার্টের কাজ, বাইক পূর্বনির্ধারিত গতিবেগ পার করলেই নোটিফিকেশন পাঠিয়ে চালককে সতর্ক করবে এটি।

টপেল অ্যালার্ট তখনই সক্রিয় হয়ে নোটিফিকেশন পাঠাবে, যদি বাইকটি পড়ে যায়। অন্যদিকে টো অ্যাওয়ে অ্যালার্টের কাজ অনুমোদিত নয় এমন কোন কার্যকলাপ টের পেলে তা রেজিস্টার্ড মোবাইল অ্যাপে নোটিফিকেশন পাঠানো। অন্যদিকে এতে উপস্থিত আনপ্লাগ অ্যালার্টের কাজ যদি ডিভাইসটি আনপ্লাগ থাকে তবে নোটিফিকেশন পাঠিয়ে রাইডারকে সতর্ক করা।

আরও পড়ুন