পুজোয় কোন বাইকে বেশি মানাবে আপনাকে, TVS Ronin নাকি Royal Enfield Hunter 350

Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin 225 compared
Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin 225

অধুনা কমিউটার সেগমেন্টের চাইতে তরুণ প্রজন্মের মন মজেছে পারফরম্যান্স প্রধান মোটরসাইকেলের প্রতি। যার মধ্যে রয়েছে রোডস্টার, স্ক্র্যাম্বলার, ক্রুজার, অ্যাডভেঞ্চার ইত্যাদি। তবে ভারতের বাজারে একই গোত্রের একাধিক মডেল উপলব্ধ থাকায় নিজের পছন্দের বাইকটি বেছে নিতে দ্বিধায় পড়তে হয় অনেক সময়। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় সদ্য লঞ্চ হওয়া Royal Enfield Hunter 350 এবং TVS Ronin। স্পেসিফিকেশন ও দামের বিচারে দুটি মডেলই খুব কাছাকাছি অবস্থান করছে। এবার পুজোয় নতুন টু-হুইলারে চেপে ঘোরার পরিকল্পনা থাকলেও, উক্ত মডেল দুটির কোনটি কিনলে বেশি লাভদায়ক হবে, তা বোঝা দায় হচ্ছে। এমন অবস্থা যদি আপনারও হয়, তবে এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য। Hunter 350 ও Ronin-এর তুলনা বিস্তারিতভাবে জানতে, শেষ পর্যন্ত চোখ রাখুন।

Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin ডিজাইন

প্রথমে আসা যাক Royal Enfield Hunter 350-এর ডিজাইনের প্রসঙ্গে। রোডস্টার গোত্রের বাইকটি গোলাকৃতি হ্যালোজেন হেডল্যাম্প, এলইডি টেলল্যাম্প, টার্ন ইন্ডিকেটর এবং সার্কুলার ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার সহ হাজির হয়েছে। ফুয়েল ট্যাঙ্কটি টিয়ারড্রপ আকৃতির। পেছনের চওড়া টায়ার Hunter 350-কে বেশ স্পোর্টি লুক দিয়েছে।

অন্যদিকে Ronin 225-এর ডিজাইন দেখে নির্দিষ্ট গোত্র সম্পর্কে আঁচ করা কষ্টসাধ্য। একদিকে এতে একদিকে যেমন স্ক্র্যাম্বলার স্টাইল পরিলক্ষিত হয়েছে, পাশাপাশি নিও-রেট্রো ডিজাইনের ক্রুজারের ছাপও স্পষ্ট। এতে রয়েছে একটি সার্কুলার হেডল্যাম্প, অফ-সেট ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, স্লিম এলইডি টেলল্যাম্প স্ট্রিপ, একটি রিব্ড সিট এবং মাসকুলার লুকিং ফুয়েল ট্যাঙ্ক।

Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin স্পেসিফিকেশন

Hunter 350 সংস্থার নতুন J প্ল্যাটফর্মের উপর ভিত্তি করে এসেছে। তাই এটিও ৩৪৯ সিসি এয়ার কুল্ড ইঞ্জিন পেয়েছে। এটি থেকে সর্বোচ্চ ২০ বিএইচপি শক্তি এবং ২৭ এনএম তর্ক উৎপন্ন হয়। লং-স্ট্রোক ইঞ্জিন এবং এর টিউনিংয়ের কারণে ধীর এবং মধ্য গতিতে চলার সময় এতে উৎপন্ন টর্ক সর্বদা কিছুটা সঞ্চিত অবস্থায় থাকে। ইঞ্জিনের পারফরম্যান্স ভালো থাকলেও উচ্চ গতিতে কিছুটা কম্পন অনুভূত হয়।

এদিকে Ronin-এ রয়েছে একটি ২২৫.৯ সিসি, অয়েল কুল্ড ইঞ্জিন, যা থেকে সর্বোচ্চ ২০.৪ এইচপি পাওয়ার এবং ১৯.৯৩ এনএম টর্ক পাওয়া যায়। বহু ক্রেতার বক্তব্য এর হ্যান্ডেলবারে সামান্য ভাইব্রেশন অনুভূত হয়।

Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin কমফোর্ট এবং হ্যান্ডলিং

রয়্যাল এনফিল্ডের ক্লাচ TVS Ronin-এর চাইতে শক্ত। Hunter 350-র সিটটি সামান্য শক্ত, তাই দীর্ঘক্ষণ চালানোর পর রাইডারের পিঠে ব্যথার কারণ হতে পারে এটি। সামনের সাসপেনশনটি বেশ ভালো, কিন্তু পেছনের সাসপেনশন রাইডারের আরামে সামান্য ব্যাঘাত সৃষ্টি করতে পারে।

Ronin-এর ক্লাচ বেশ হালকা, তাই শহরের রাস্তায় চলাচলের জন্য এটি নিজের দক্ষতা প্রমাণ করেছে। এতে ক্রুজারের মতো রাইডিং ট্রায়াঙ্গেল থাকার জন্য দীর্ঘ পথ চালালেও অসুবিধা হয় না। এর সাস্পেনশন রাস্তার ধকল সহ্য করার জন্য বেশ উপযোগী। কেবল স্পিড ব্রেকারের ক্ষেত্রে সামান্য ঝাঁকনি অনুভূত হয়।

Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin ফিচার্স

Ronin-এর সিজারের প্রসঙ্গে বললে এটি Hunter 350-র থেকে এগিয়ে। বাইকটি একটি স্লিপ এবং অ্যাসিস্ট ক্লাচ, হ্যাজার্ড লাইট, গ্লাইড থ্রু টেকনোলজি, ব্লুটুথ কানেক্টিভিটি, রাইডিং মোড, সাইলেন্ট স্টার্টার এবং এলইডি লাইটিং সহ হাজির হয়েছে। অন্যদিকে, Hunter 350-তে রয়েছে একটি ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, এলইডি টেলল্যাম্প, হ্যাজার্ড লাইট এবং ট্রিপার নেভিগেশন।

Royal Enfield Hunter 350 vs TVS Ronin দাম

Royal Enfield Hunter 350-র দাম ১.৫ লাখ থেকে ১.৬৬ লাখ টাকার (এক্স-শোরুম) মধ্যে। TVS Ronin-এর মূল্য তুলনামূলক কিছুটা বেশি। ১.৪৯ লাখ থেকে শুরু। এবং টপ এন্ড মডেলটির দাম ১.৭১ লাখ টাকা (এক্স-শোরুম)।

শুভদীপ টেকগাপে অটোকার বিষয়ক লেখালিখি করে। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, অটোকার নিয়ে টেকগাপে তার হাতেখড়ি। দিনকে দিন সে টেকগাপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেছে।