আসছে Bajaj এর Fluor এবং Fluir টু-হুইলার? জল্পনা তুঙ্গে

oneplus-nord-oxygenos-open-beta-5-update-roll-out-soon-with-many-fixes

সাম্প্রতিক সময়টা Bajaj-এর বেশ ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে কাটছে। কারণ খুব সময়ের মধ্যে Bajaj-এর বেশ কয়েকটি নতুন বাইক আমরা লঞ্চ হতে দেখেছি। এর মধ্যে প্রথমে CT 100X, তারপর Pulsar NS125, এবং গত সপ্তাহে Pulsar 150, 180, ও 220F-এর Dagger Edition বাজারে এসেছে। তবে এখানেই শেষ নয়, Bajaj এখন Fluor ও Fluir নাম দুটি ট্রেডমার্ক করেছে বলে জানা যাচ্ছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি নাম দুটি ট্রেডমার্ক করার জন্য বাজাজ আবেদন জানিয়েছিল।

যেহেতু ট্রেডমার্ক সার্টিফিকেশনে Fluor ও Fluir-এর ব্যাপারে তেমন কিছু তথ্য প্রকাশ হয়নি। তাই আপকামিং এই প্রোডাক্টের বিষয়ে মন্তব্য করা কঠিন। কিন্তু এটুকু বলা যায়, বাজাজ এই নাম ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল, আইসিই মোটরসাইকেল, বা নতুন কোনো পরিষেবার জন্য ব্যবহার করতে পারে।

Bajaj Fluor

যদিও ইলেকট্রিক স্কুটারের জন্য এই নাম ব্যবহারের চিন্তাভাবনা বাজাজের খুব একটা নেই বলা চলে। কারণ কোম্পানির পোর্টফোলিওতে ইতিমধ্যে Chetak ই-স্কুটার রয়েছে। এছাড়া Chetak-এর প্রোডাকশন নিয়ে আবার বাজাজ নানা সমস্যায় জর্জরিত। গত বছর থেকেই কোভিডের ধাক্কায় বাজাজের সাপ্লাই চেইন বেসামাল। ফলস্বরূপ, গত দু’মাসে Chetak-এর দাম অনেকটাই বাড়ানো হয়েছে।

অন্যদিকে, চেতক-এর চাহিদার যোগান দিতে গিয়ে বাজাজ এখন হিমশিম খাচ্ছে। সম্প্রতি বাজাজ, চেতক ইলেকট্রিক স্কুটারের বুকিং পুনরায় চালু করেছিল। কিন্তু অর্ডারের সংখ্যা এতটাই আসছিল যে বাজাজ দু’দিনের মধ্যেই বুকিং বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে চাহিদা বেশি, যোগান কম, এই দুইয়ের ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য বাজাজ, চেতক বৈদ্যুতিন স্কুটারের প্রোডাকশন লাইনের ওপর লাগাতার কাজ করছে। পাশাপাশি বিক্রি বাড়ানোর লক্ষ্যে পুনে ও বেঙ্গালুরুর পর আরও দুটি নতুন শহরে চেতক পা রাখছে। ফলে নতুন করে আর কোনো ইলেকট্রিক স্কুটার বাজাজ এই মুহূর্তে আনবে বলে মনে হয় না।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন