সস্তা বাইকেও এবিএস ফিচার, লঞ্চ হল Bajaj Platina 110 ABS

bajaj-platina-110-abs-launched-in-india-price-rs-at-65926-engine-details

খুব সম্প্রতি Bajaj Platina 110-র ABS (Anti Lock Braking Systen) ভ্যারিয়েন্টের স্পাই ছবি অনলাইনে ফাঁস হয়ে গিয়েছিল। তারপরেই বাইকটি উঠে আসে চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে। কারণ এর আগে কখনও কোনো টু-হুইলার ব্রান্ড এন্ট্রি লেভেল মোটরসাইকেলে ABS ফিচার ব্যবহার করেনি। এতদিন ধরে বিষয়টি অকল্পনীয় হলেও বাজাজ (Bajaj) আজ Platina 110 ABS বাইক লঞ্চ করে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখালো। এখন বাজাজ হল প্রথম কোম্পানি যারা ভারতে এন্ট্রি লেভেল ১১০ সিসি বাইকে সিঙ্গেল-চ্যানেল এবিএস অফার করছে।

Bajaj Platina 110 ABS এর দাম

Bajaj Platina 110 ABS মোটরবাইকের দাম পড়বে ৬৫,৯২৬ টাকা (এক্স-শোরুম দিল্লি)। Platina-র H-Gear ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় যা প্রায় ১,৩০০ টাকা বেশী। নতুন Platina 110 ABS চারকোল ব্ল্যাক, ভলক্যানিক রেড, এবং বিচ ব্লু কালার অপশনে ক্রয়ের জন্য উপলব্ধ।

Bajaj Platina 110 ABS এর ফিচার

বাজাজ প্ল্যাটিনা ১১০ এবিএসে ইন্ডিকেটর সহ অ্যানালগ ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার উপলব্ধ। যেখানে স্ট্যান্ডার্ড মডেলটিতে (প্ল্যাটিনা ১১০ এইচ-গিয়ার) সেমি-ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার রয়েছে। নতুন ভ্যারিয়েন্টে বাজাজ লক্ষ্যণীয় কিছু ডিজাইন আপডেট করেছে। যেমন উৎপাদনের খরচ কমাতে বাজাজ,   প্ল্যাটিনা ১১০ এবিএস বাইকের ফুয়েল ট্যাঙ্কে থ্রিডি লোগোর পরিবর্তে রেগুলার বডি স্টিকার দিয়েছে।

সবচেয়ে বেশী চোখে পড়বে সাদা রঙে পেইন্ট করা বাইকটির অ্যালয় হুইল৷ শেডটি Bajaj এর Pulsar NS200 এবং RS 200-কে নিশ্চিতভাবে স্মরন করাবে। বাইকটির টার্ন ইন্ডিকেটরের ওপর কাজ সুস্পষ্ট। আগের তুলনায় ইন্ডিকেটর এখন আরও তীক্ষ্ণ এবং মসৃণ মনে হবে।

স্ট্যান্ডার্ড মডেলের মতো নতুন Bajaj Platina 110 ABS চলবে ১১৫ সিসি এয়ার কুল্ড ইঞ্জিনে। এটি ৮.৪ এইচপি শক্তি ও ৯.৮১ এনএম টর্ক উৎপন্ন করার সক্ষমতা রাখে। বাইকের সামনের অংশে থাকবে টেলিস্কোপিক সাসপেনশন এবং পেছনে নাইট্রক্স শক অ্যাবজর্ভার। আবার এর সামনে দেওয়া আছে ২৪০ মিমি ডিস্ক ব্রেক এবং পিছনে ১১০ মিমি ড্রাম ব্রেক। সঙ্গে থাকছে সিঙ্গেল-চ্যানেল এবিএস।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন