Bajaj Pulsar 250: প্রতীক্ষার অবসান! এই দিন সবচেয়ে শক্তিশালী Pulsar বাইক লঞ্চ হবে

আগামী ২৮ অক্টোবর নতুন Pulsar 250 অফিসিয়ালি লঞ্চ হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে

bajaj-pulsar-ns250-250f-india-launch-date-set-28-october-expected-price-features

Pulsar সিরিজের নতুন মোটরসাইকেলকে ঘিরে গুঞ্জন চলছে তিন বছরের বেশি সময় ধরে। বিগত কয়েকমাসে সেই জল্পনা গতি পায়। সৌজন্যে ২৫০ সিসি ইঞ্জিনের নতুন Pulsar মোটরসাইকেলের ঘনঘন রোড টেস্টিং। রাস্তায় চালিয়ে পরীক্ষা করে দেখার নানা মুহূর্তের ছবি ইন্টারনেটে ফাঁস হয়ে পালসারপ্রেমীদের উদ্দীপনায় নতুন মাত্রা যোগ করেছিল। আবার সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বাজাজ অটো (Bajaj Auto)-র ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাজীব বাজাজ (Rajib Bajaj) জানিয়েছিলেন, সবচেয়ে বড় ইঞ্জিনের Pulsar এই নভেম্বরে (দিওয়ালি) আত্মপ্রকাশ করবে। অত:পর দিন গোনা শুরু হয়েছিল। এখন সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আগামী ২৮ অক্টোবর নতুন Pulsar 250 অফিসিয়ালি লঞ্চ হবে। ঘটনাচক্রে নভেম্বরেই Pulsar ব্র্যান্ডের ‘২০ তম’ বর্ষপূর্তি।

Bajaj Pulsar 250 কি নেকেড আর সেমি ফেয়ার্ড ভার্সনে আসছে?

সংস্থা খোলাখুলি না বললেও সেই দিন NS250 (NS -Naked Sports) ও 250F (F-Faired) বলে দু’টি ভার্সনে নতুন Pulsar 250-এর আত্মপ্রকাশ ঘটতে পারে।

Bajaj Pulsar NS250 ও 250F: ডিজাইন

বাজাজের নেকেড স্ট্রিটফাইটার মোটরবাইক NS160 ও NS200-এর ডিজাইনের সঙ্গে NS250 মডেলটির সাদৃশ্য থাকতে পারে। অনুরূপে, বাজাজের ফ্ল্যাগশিপ সেমি-ফেয়ার্ড বাইক 220F-এর স্টাইলিং এলিমেন্টের সাথে 250F-এর মিল দেখা যেতে পারে।

ফাঁস হওয়া ছবিগুলি বিশ্লেষণ করে বলা যায়, পালসার এনএস২৫০ ও ২৫০এফ-এর সামনে সিঙ্গেল এলইডি হেডল্যাম্প ক্লাস্টার এবং ইন্টিগ্রেটেড এলইডি ডিআরএল নিয়ে গঠিত অ্যাগ্রেসিভ প্যানেল থাকবে। আবার সেমি-ফেয়ার্ড ভার্সনে বড় হেডল্যাম্প কাউল এবং সাইড ফেয়ারিং ইন্টিগ্রেটেড ফ্লাইস্ক্রিনের উপস্থিতির কারণে লুকস হয়ে উঠবে আরও শার্প।

Bajaj Pulsar NS250 ও 250F: মেকানিক্যাল স্পেসিফিকেশন ও ফিচার (প্রত্যাশিত)

পালসার লাইনআপের বেশিরভাগ মডেল স্টিল পেরিমিটার ফ্রেমের উপর তৈরি। তবে পালসার এনএস২৫০ ও ২৫০এফ-এর ক্ষেত্রে নতুন ফ্রেম ব্যবহার করা হতে পারে, যা বাইকগুলিকে শক্তপোক্ত করবে। আবার সামগ্রিম ওজনও হ্রাস করতে সক্ষম হবে৷ বাইকগুলির দু’দিকেই সিঙ্গেল ডিস্ক ব্রেক ও ডুয়েল চ্যানেল এবিএস থাকবে। এছাড়া ফিচারের তালিকায় ব্লুটুথ কানেক্টিভিটির সাথে ডিজিটাল কনসোল এবং রাইডিং মোডস থাকবে বলে আশা করা যায়।

পালসার এনএস২৫০ ও ২৫০এফ-এ ২৪৯ সিসি-র এয়ার/অয়েল কুল্ড সিঙ্গেল সিলিন্ডার ইঞ্জিন দেওয়া হবে, যার আউটপুট হতে পারে সর্বোচ্চ ২৪ বিএইচপি ও ২০ এনএম টর্ক। এতে স্লিপার ও অ্যাসিস্ট ক্লাচ-সহ সিক্স-স্পিড গিয়ারবক্স থাকবে। এছাড়া ইঞ্জিনটি ভ্যারিয়েবল ভালভ অ্যাকচুয়েশন প্রযুক্তির সাথে আসবে বলেও জল্পনা শোনা যাচ্ছে।

Bajaj Pulsar NS250 ও 250F-এর দাম কিরকম হতে পারে?

বাজাজ পালসার এনএস২৫০-এর দাম হতে পারে ১.৬০ লক্ষ টাকা। আর সেমি-ফেয়ার্ড ২৫০এফ-এর মূল্য হাজার দশেক টাকা বেশি ধার্য করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷