বাজারে এল Bajaj Pulsar RS 200 এর নতুন কালার বিকল্প, গুনতে হবে না বাড়তি টাকা

bajaj-pulsar-rs-200-gets-new-colour-variant-in-india

আসন্ন ফেস্টিভ সিজন উপলক্ষে Bajaj তাদের সম্পূর্ণ ফেয়ারিং ডিজাইনের একমাত্র মোটরবাইক Pulsar RS 200-কে নিয়ে এল নতুন রঙের বিকল্পে। বাজাজ পালসার আরএস ২০০ মডেলকে তিনটি নতুন রঙের সাথে লঞ্চ করেছে৷ যা বাজাজের ডিলারদের কাছ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে উপলব্ধ হবে। এখন থেকে গ্রাহকরা Pulsar RS 200 বার্ন রেড (Burnt Red), মেটালিক পার্ল হোয়াইট (Metalic Pearl White) এবং পিউটার গ্রে (Pewter Grey) কালার অপশানে কিনতে পারবেন। যদিও এর জন্য অবশ্য বাড়তি কোনো টাকা গুনতে হবে না। এটি নতুন পেইন্ট স্কীমে পূর্ববর্তী ১,৫২,১৭৯ টাকাতেই পাওয়া যাবে (এক্স-শোরুম, দিল্লী)৷

বাজাজ পালসার আরএস ২০০ এর এই Burnt Red কালারে দেওয়া হয়েছে ম্যাট ফিনিশিং। এছাড়াও তিনটি ভ্যারিয়েন্টেই থাকছে সাদা রঙের অ্যালয় হুইল এবং চ্যাসিস। Pulsar NS200 এবং NS160 বাইকদুটির মতো RS 200 মডেলেরও অগ্রভাগে এবং পেছনের ফেন্ডারগুলিতে কার্বন ফাইভার টেক্সচার দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি সিটের ওপর থাকছে হট স্ট্যাম্পিং নামক প্যাটার্ন।

RS 200 মোটরবাইকে আপনি আগের মতোই পাবেন ফুয়েল ইঞ্জেকশন সিস্টেমযুক্ত ট্রিপল স্পার্ক প্রযুক্তির ২০০ সিসি ইঞ্জিন। যা ৯৭০০ আরপিএমে ২৪.৫ পিএস পাওয়ার এবং ৮০০০ আরপিএমে ১৮.৭ এনএম টর্ক উৎপন্ন করে। ইঞ্জিনের ট্রিপল স্পার্ক সিস্টেম, বাইককে দেয় আরো বেশি শক্তি, থ্রটল রেসপন্স এবং পিক-আপ। এছাড়া ইঞ্জিনের উন্নত কুলিং সিস্টেম অত্যন্ত উচ্চ তাপমাত্রায়ও সর্বোত্তম কার্যকারিতা সরবরাহ করে।

RS 200 বাইকের টুইন প্রোজেক্টার হেডলাইটের দৌলতে আপনি অন্ধকারতম রাস্তাতেও সাহসের সাথে সওয়ারি করতে পারবেন। হার্ডওয়্যার স্পেসিফিকেশনের প্রসঙ্গে আসলে এটি সামনে টেলিস্কোপিক ফোর্ক সাসপেনশন এবং পিছনে নাইট্রোক্স মনোশক অ্যাবজর্বারের সাথে এসেছে। এছাড়া এর চাকা ৩০০ এমএম ফ্রন্ট এবং ২৩০ এমএম রিয়র ডিক্স ব্রেক যুক্ত। সাথে আপনি পাচ্ছেন সিঙ্গল চ্যানেল এবিএস সেটআপ। ১৬৬ কেজির এই বাইকের ফুয়েল ট্যাঙ্কের ক্যাপাসিটি ১২ লিটার। এই বাইকে অবশ্য ফুল ডিজিটালের পরিবর্তে সেমি ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার পেয়েই রাইডারকে সন্তুষ্ট থাকতে হবে। পাওয়ার, পারফরম্যান্স এবং ডিজাইনের নিরিখে RS 200-এর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বাজারে আছে KTM RC 200 এবং Suzuki Gixer SF৷