Bitcoin: আগামী একবছরের মধ্যে বিটকয়েনের বাজারদর ৫৫ লক্ষ টাকার ‌অধিক হবে, মত অনেকের

অধিকাংশেরই অনুমান, আগামী ১২ মাসের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে দামি মুদ্রার বাজারদর ৭৫,০০০ ডলারের ( প্রায় ৫৫ লক্ষ টাকা) গন্ডি পেড়িয়ে যাবে

bitcoin-price-over-75000-dollar-within-a-year-say-25-percent-of-fund-managers-surveyed-by-bofa

এবার বিটকয়েনের (Bitcoin) বাজারমূল্যে ভবিষ্যতের আশার আলো দেখছেন তহবিল (ফান্ড) কর্মকর্তাদের একাংশ। BofA-এর দ্বারা আয়োজিত একটি সমীক্ষা তে প্রকাশ্যে এলো সেই তথ্যই।

Coindesk-এর তথ্য অনুযায়ী, সম্প্রতি, আমেরিকার একটি ব্যাংকের তরফে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে তহবিল কর্মকর্তাদের নিয়ে আয়োজিত একটি সমীক্ষাতে দেখা গেছে, বিনিয়োগ ক্ষেত্রে কর্মকর্তাদের প্রায় এক চতুর্থাংশই বিটকয়েন এর ভবিষ্যত নিয়ে আশাবাদী। অধিকাংশেরই অনুমান, আগামী ১২ মাসের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে দামি মুদ্রার বাজারদর ৭৫,০০০ ডলারের ( প্রায় ৫৫ লক্ষ টাকা) গন্ডি পেড়িয়ে যাবে। ২০ শতাংশ অংশগ্রহণকারীদের মনে হয়, আগামী ১ বছরে মূল্যের গ্রাফ তুলনায় সমতল থাকবে, মোটামুটি ৫০,০০০ ডলার থেকে ৭৫,০০০ ডলারের মধ্যে ঘোরাফেরা করবে। বাকি ১৯ শতাংশের মতে বিটকয়েনের বাজারমূল্য একেবারে ৫০,০০০ ডলার থেকে ২৫,০০০ ডলারের সীমায় নেমে যাবে।

দীর্ঘমেয়াদী বিটকয়েনের চাহিদা ESG ( Environmental, Social and governance) কয়েনের তুলনায় বেশী, সমীক্ষায় এমনটাই জানা যাচ্ছে। মে এবং জানুয়ারি মাসের সর্বাধিক চাহিদাসম্পন্ন ট্রেডের তালিকায় সর্বপ্রথমে রয়েছে দীর্ঘমেয়াদি বিটকয়েনের নাম। অক্টোবরে, ১০% ফান্ড কর্মকর্তা বিটকয়েনকে সর্বাধিক চাহিদাসম্পন্ন ট্রেড হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

২০২২ এর সর্বসেরা অ্যাসেটের তালিকায় মোট ১২% ভোট পেয়ে সোনা ও তেলকেও সামান্য ছাড়িয়ে গেছে বিশ্বের প্রাচীনতম এই ক্রিপ্টো টোকেন। যদিও, ৩৪% ভোট নিয়ে এই তালিকায় সবচেয়ে উপরে রয়েছে নতুন উদ্ভূত মার্কেট স্টকগুলি।

বিটকয়েন নিয়ে আয়োজিত উল্লিখিত এই সমীক্ষাটিতে মোট ৩৪৫ জন ফান্ড ম্যানেজার বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যোগ দিয়েছিলেন, যেটির কার্যক্রমের সর্বমোট তহবিল ছিল ১ ট্রিলিয়নেরও বেশী।

বিটকয়েনের ভবিষ্যৎ কি হবে তা জানা সময়সাপেক্ষ হলেও, বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীনতম এই মুদ্রার বর্তমান গ্রহণযোগ্যতা দেশীয় ও আন্তর্জাতিক, উভয় স্তরেই বেশ নজর কাড়ে। সম্প্রতি, অ্যামাজন (Amazon),পেটিএম‌ (Paytm) এর মতো ই-কমার্স জায়েন্টগুলি লেনদেনের ক্ষেত্রে বিটকয়েন পরিষেবা চালুর পরিকল্পনা করছে।এছাড়া,বিটকয়েন নিয়ে বেশ রক্ষণশীল মনোভাব পোষণ করেন বিনিয়োগকারীদের অধিকাংশও। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিটকয়েন বাজারে লেনদেনের জন্য ছাড়ার চেয়ে নিজেদের কাছে অ্যাসেট হিসেবে সঞ্চয় করে রাখতেই বেশী স্বাচ্ছন্দ্য বিটকয়েন বিনিয়োগকারীরা, এ তথ্যও একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষায় উঠে এসেছে। সমীক্ষা জানাচ্ছে, বাজারে মোট মুদ্রা সরবরাহের মাত্র ১২.৯% বিভিন্ন ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ মাধ্যমে লেনদেনের জন্য উপলব্ধ। প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, কিছুদিন পূর্বেই মধ্য আমেরিকার দেশ এল সালভাডোর (El- Salvador) সর্বপ্রথম দেশ হিসেবে বিটকয়েন কে দেশের বৈধ মুদ্রা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।