২০২১-এ সাম্রাজ্য হারাল মার্সেডিজ, প্রিমিয়াম গাড়ির বিক্রিতে শীর্ষস্থানে বিএমডব্লিউ

bmw-becomes-top-luxury-car-seller-globally-beating-mercedes-for-first-time-in-6-years

সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে যে সব জিনিস তার মধ্যে একটি হল বিলাসবহুল গাড়ি। আর এই ধরনের উচ্চম্যূল্যের গাড়ির বাজারে যুযুধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী মার্সেডিজ-বেঞ্জ (Mercedis-Benz) এবং বিএমডব্লিউ (BMW)। পরিষেবা কার সবচেয়ে ভাল, কে বেশি ফিচারের গাড়ি বাজারে আনতে পারে – সেই নিয়ে সংস্থাদ্বয়ের মধ্যে রেষারেষি চলছে প্রতিনিয়ত। মার্সেডিজ এতদিন বিএমডব্লুউ’কে টেক্কা দিয়ে এলেও, গত বছরে তার চিত্রপটে বদল এসেছে। ২০১৫-এর পর এই প্রথম গাড়ি বিক্রির নিরিখে বিএমডব্লিউ পিছনে ফেলে দিয়েছে মার্সেডিজ’কে।

২০২১-এ মার্সেডিজ ২০ লক্ষ ৫০ হাজার গাড়ি বেচেছে। সংস্থাটির যাত্রীবাহি গাড়ির বিক্রি ইউরোপের বাজারে সবচেয়ে বেশি সঙ্কুচিত হয়েছে। আমেরিকায় তাদের বিক্রি বেড়েছে খুবই সামান্য। মাত্র ০.৪ শতাংশ। রয়টার্স’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি সপ্তাহেই বিক্রির হিসাব সবিস্তারে প্রকাশ করবে মাসের্ডিজ। উল্লেখ্য, সার্বিক ভাবে বিক্রি কমলেও বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রির ক্ষেত্রে ৯০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি লক্ষ্য করেছে তারা। গত বছর সংস্থাটির ৯৯,৩০১টি ইভি গ্রাহকেরা বাড়ি নিয়ে গিয়েছেন।

অন্য দিকে, বিএমডব্লিউ গত বছরে ২২ লক্ষের উপরে গাড়ি বেচেছে। সংস্থাটির গাড়ি বিক্রি বেড়েছে ২১ শতাংশ। বিএমডব্লিউ’র এক মুখপাত্র বলেছেন, “ইতিহাসে এই প্রথম বিএমডব্লিউ ২২ লক্ষের বেশি গাড়ি বিক্রি করেছে। এমনকি, ২০২১-এ বিশ্বজুড়ে প্রিমিয়াম গাড়ির বাজারে এক নম্বর স্থান দখল করেছি আমরা।”

এদিকে ভারতের বাজারেও বিএমডব্লিউ’র জয়যাত্রা অব্যাহত৷ গত এক দশকের মধ্যে ২০২১ সালে সর্বাধিক গাড়ি বেচেছে তারা। গত বছর ভারতে মিনি এবং বিএমডব্লিউ’র মডেল ধরে ৮,৮৭৬ ইউনিট গাড়ি বিক্রি হয়েছে। যার মধ্যে মিনি ব্র্যান্ডের ৬৪০টি এবং বিএমডব্লিউ’র ৮,২৩৬টি।

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।