গ্রাহক টানতে ফের চমক; ৪৭ টাকার নতুন প্ল্যান আনল BSNL

bsnl-frc-47-prepaid-recharge-plans-with-28-days-validity-and-14gb-data.jpg

সরকার পরিচালিত টেলিকম সংস্থা থাকা সত্ত্বেও কেন অন্য টেলিকম সংস্থার পরিষেবা নিতে হয় – সে বিষয়ে বহুদিন ধরেই ভারতবাসীরা অভিযোগ-আক্ষেপ করে আসছেন। তবে বাজারে জনপ্রিয়তা হারিয়ে ফেলা রাষ্ট্রায়ত্ত টেলকো BSNL (ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড) তার গ্রাহকদের সন্তুষ্ট করতে কোনো চেষ্টার ত্রুটি রাখছে না! বিগত কয়েক মাস ধরেই সংস্থাটি একের পর এক আকর্ষণীয় অফার নিয়ে হাজির হচ্ছে, গ্রাহকদের জন্য আসছে নতুন প্ল্যানও। কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও গ্রাহকসংখ্যার নিরিখে টেলিকম সংস্থাগুলির মধ্যে চতুর্থ স্থানে রয়েছে BSNL। রিপোর্ট বলছে, তৃতীয় স্থানাধিকারী Vodafone-Idea (Vi)-এর সাথে রাষ্ট্র পরিচালিত সংস্থার গ্রাহকবেসের ফারাক অনেকটাই; ২০২০ সালের ৩১শে ডিসেম্বর অবধি যেখানে Vi-এর মোট গ্রাহক সংখ্যা ২৬৯.৮ মিলিয়ন, সেখানে BSNL-এর গ্রাহকসংখ্যা গড়ে ১১০ থেকে ১২০ মিলিয়নের মধ্যেই ঘোরাফেরা করেছে। সেক্ষেত্রে, বহু প্রতীক্ষিত 4G পরিষেবা চালু করার আগে গ্রাহকবেস বাড়াতে ফের একটি বিশেষ কম্বো প্যাক নিয়ে এল BSNL। ৪৭ টাকার এই নতুন কম্বো প্যাকে যাতে ২৮ দিনের ভ্যালিডিটিসহ নির্দিষ্ট কল, মেসেজ ও ডেটা বেনিফিট পাওয়া যাবে বলে জানা গিয়েছে। আসুন এই নতুন কম্বো প্যাক সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই।

সংস্থার ঘোষণা অনুযায়ী, এই FRC 47 নামের ফার্স্ট রিচার্জ কুপনটিতে হোম এলএসএ (LSA) এবং ন্যাশনাল রোমিংয়ে ফ্রি আনলিমিটেড ভয়েস কলিংয়ের সুবিধা পাওয়া যাবে। অন-নেট, অফ-নেট, লোকাল এবং এসটিডি – সমস্ত ক্ষেত্রেই এই সুবিধাটি প্রযোজ্য হবে। এছাড়া এই প্ল্যানে ২৮ দিনের জন্য ১৪ জিবি ডেটা আর রোজ ১০০ মেসেজও উপভোগ করা যাবে। আপাতত চেন্নাই এবং তামিলনাড়ু সার্কেলে এই প্যাকটি চালু করা হবে, তবে পরে ধাপে ধাপে সারা দেশের গ্রাহকেরা এই প্ল্যানের সুবিধা পাবেন বলে ঘোষণা করেছে বিএসএনএল।

এই প্রসঙ্গে বিএসএনএল আরো জানিয়েছে যে, আজ অর্থাৎ ২০শে ফেব্রুয়ারী থেকে চালু হওয়া প্রোমোশনাল অফারটি আগামী ৩১শে মার্চ, ২০২১ পর্যন্ত সময়ে অ্যাক্সেস করা যাবে। তবে কেবল সংস্থার নতুন গ্রাহকরাই এই প্ল্যানটির সুবিধা নিতে পারবেন। সেক্ষেত্রে এই প্ল্যানের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর গ্রাহকরা নতুন সিমটি চালু রাখলে বা অন্য রিচার্জ করলে মোট ১০০ দিনের ভ্যালিডিটি পাবেন।

এখন অনেকেই প্রশ্ন করতে পারেন যে এই FRC 47 প্যাকটি ব্যবহার করা নেওয়া উচিত কিনা; কারণ এই প্যাক ব্যবহার করতে হলে নতুন সিম নেওয়া আবশ্যক। সেক্ষেত্রে বলে রাখি, ভারতের টেলিকম জগতে ২৮ দিনের কম্বো প্যাক হিসেবে আপাতত এটাই সবচেয়ে সস্তা বিকল্প। এমনিতে Reliance Jio, Bharti Airtel বা Vi-এর মত অন্যান্য প্রাইভেট টেলিকম কোম্পানিগুলির এই ধরণের প্যাক ব্যবহার করতে ৯৭ টাকা থেকে ৯৯ টাকা অবধি খরচ করতে হয়, যার সুবিধাও বিএসএনএলের FRC 47-এর চেয়ে অনেকটাই কম। তবে দেখার বিষয় এটাই যে এই নতুন আকর্ষণীয় প্ল্যানকে সামনে রেখে দেশবাসীর কতটা মন জয় করতে পারে এই রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিকম সংস্থাটি।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন