বাজেট ২০২১: ভারতে দাম বাড়তে পারে স্মার্টফোন সহ ইলেকট্রনিক্স প্রোডাক্টের

budget-2021-govt-adds-2-5-percent-duty-on-mobile-accessories-become-costlier

বিগত কয়েক বছরের মতই ১লা ফেব্রুয়ারিতে অর্থাৎ আজ মাত্র কয়েক ঘন্টা আগেই সংসদে পেশ হয়েছে ভারতের ২০২১ অর্থবর্ষের সাধারণ বাজেট (Union Budget 2021)। তবে অন্যান্য বছরের থেকে এই বছরের পরিবেশ বা পরিস্থিতি অনেকটাই আলাদা। তাই করোনা অতিমারীর কথা মাথায় রেখে, খাতা-কাগজের পরিবর্তে লাল কভারে মোড়া ট্যাবের মাধ্যমে বাজেট পেশ করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। কিন্তু এই নতুন বাজেটের বিধি নিয়মগুলি দেশবাসীকে কতটা সন্তুষ্ট করতে পারবে – সেই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন! আসলে আজকের কেন্দ্রীয় বাজেটের প্রারম্ভিক ভাষণে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন যে, এবার থেকে মোবাইল উৎপাদন খাতে আড়াই শতাংশ শুল্ক আরোপ করা হবে। এরপর অধিবেশন চলাকালীন বাজেটের বিশ্লেষণের সময় দেখা যায়, শুধু মোবাইল উৎপাদনের ক্ষেত্রেই নয়, মোবাইলের বিভিন্ন কম্পোনেন্ট, আনুষঙ্গিক প্রোডাক্ট ইত্যাদির আয়করের সাথে কোনোরকম আপোষ করেনি মোদী সরকার।

এক্ষেত্রে, ভারতের মোবাইল উৎপাদন খাতে যে সমস্ত বিষয়ের জন্য কর সংশোধন করা হয়েছে তার মধ্যে মোবাইল ফোনের সার্কিট বোর্ড, ক্যামেরা মডিউল এবং কানেক্টরের মত প্রয়োজনীয় অংশ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এই গুরুত্বপূর্ণ কম্পোনেন্টগুলিকে পূর্ণ রূপ দিতে যে সমস্ত সাব-পার্টস অন্য দেশ থেকে থেকে আমদানি করা হয় তার জন্যই এবার থেকে ২.৫% ট্যাক্স দিতে হবে মোবাইল নির্মাতাদের।

শুধু তাই নয়, মোবাইল প্রস্তুতির জন্য প্রয়োজনীয় সার্কিট বোর্ড এবং মোবাইল ফোন চার্জারের প্লাস্টিকের ছাঁচ নির্মাণের ক্ষেত্রেও শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ ধার্য করা হয়েছে। এছাড়া, মোবাইলের চার্জার প্রস্তুতির জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য অংশগুলি এতদিন অবধি শুল্কমুক্ত ছিল, কিন্তু এবার থেকে এই উপাদানগুলি ভারতে ১০ শতাংশ শুল্কের মুখোমুখি হবে। শুধু তাই নয়, লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় পার্টস এবং সাব-পার্টসগুলির ওপরেও ২.৫% ফি চাপিয়েছে অর্থমন্ত্রক। ফলে আগামী দিনে দেশের বুকে মোবাইল ফোন তৈরি হলেও, তা সাশ্রয়ী মূল্যে পকেটস্থ করা যাবে কিনা তা এখনই বলা যাচ্ছে না!

এদিকে, মোবাইল উৎপাদন খাতের পাশাপাশি, ভারতে উৎপন্ন ইলেকট্রনিক্স প্রোডাক্টের ক্ষেত্রেও শুল্ক বৃদ্ধি করা হয়েছে নতুন বাজেটে। সেক্ষেত্রে, রেফ্রিজারেটর এবং এয়ার কন্ডিশনারের কমপ্রেসর, ইনস্যুলেটেড ওয়্যার (তার) এবং ট্রান্সফর্মার কম্পোনেন্টের ওপরে ২.৫% বর্ধিত কর বসানো হয়েছে। আবার এলইডি লাইট এবং এলইডি লাইট ফিক্সচার তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপাদানগুলির কর ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ ধার্য করা হয়েছে। তবে সবচেয়ে বড় মূল্যবৃদ্ধির মুখোমুখি হবে সোলার ইনভার্টর এবং ল্যাম্পগুলি, কারণ এগুলিতে আগে ৫% কর আরোপিত ছিল; কিন্তু এখন এগুলিতে যথাক্রমে ২০% এবং ১৫% শুল্ক লাগবে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

A person who enjoys creating, buying, testing, evaluating and learning about new technology.