সাবধান, অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য অ্যালার্ট জারি করলো সিইআরটি-ইন্ডিয়া

ভারতের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য একটি নতুন সিকিউরিটি ওয়ার্নিং এসে হাজির হয়েছে। ভারতের কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম বা সিইআরটি-ইন্ডিয়া কিছুদিন আগে এই ওয়ার্নিং ইস্যু করেছে। অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন ১০ -র কমে চালা ফোনগুলির জন্য এই নতুন সিকিউরিটি ওয়ার্নিং আনা হয়েছে।

ফোন কিনতে এখানে ক্লিক করুন।

গুগলের অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেম সম্প্রতি একটি নতুন সমস্যার কথা আমাদের সামনে নিয়ে এসেছে, যার নাম StrandHogg 2.0। মোবাইলের ActivityStartController.Java ফাইলে এই সমস্যার শুরু হলে তার মধ্যে থাকা Start activities() সেকশনটি কাজ করা বন্ধ করে দেয়। এর ফলে হ্যাকাররা খুবই সহজে ব্যবহারকারীর ফোন হাইজ্যাক করতে পারে।

ফোন কিনতে এখানে ক্লিক করুন।

এই সিকিউরিটি ত্রুটি সবথেকে বড় সমস্যা হলো যে, আপনার স্মার্টফোনে যে কোন মালওয়্যার প্রবেশ করানো খুবই সহজ হয়ে যায়। এগুলি হল কিছু বিশেষ অ্যাপ্লিকেশন যেগুলি হ্যাকাররা আপনার ফোন হ্যাকিং এর জন্য ব্যবহার করে। এই অ্যাপ্লিকেশন কোনরকম অ্যালার্ম অথবা নোটিফিকেশন পাঠায় না। ফলে ব্যবহারকারীরা বুঝতেও পারেনা যে তাদের ফোনে এই অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল হয়ে গিয়েছে। এবং যদি আপনি ওই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে শুরু করেন তাহলে হ্যাকাররা আপনার ফোনের সমস্ত ডেটা চুরি করে নিতে পারে। এমনকি আপনার মেসেজ, ফোনের কন্ট্যাক্ট লিস্ট সব হ্যাকারের হাতে পৌঁছে যায়।

ইতিমধ্যেই এই StrandHogg 2.0 -তে বহু মানুষের ফোন হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে। যে সমস্ত স্মার্টফোনের অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন ৩ থেকে ৯ অবধি কেবলমাত্র সেগুলোকেই এই হ্যাকিং এর আওতায় নিয়ে আসা গেছে। তবে এখনো অবধি ১০ অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন এর স্মার্টফোনগুলিতে এই অ্যাটাক করা যায়নি। ভারতে প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষ অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করেন। তাই হ্যাকাররা ভারতের অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলিকে টার্গেট করতে বেশি পছন্দ করবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

আমাদেরকে ফলো করুন ইনস্টাগ্রামে