করোনার টিকার জন্য Co-WIN অ্যাপে আর বাধ্যতামূলক নয় আধার: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী

coronavirus-vaccine-co-win-portal-website-registrations-aadhaar-not-mandatory

করোনা ভ্যাকসিনেশন বা টিকাকরণ প্রক্রিয়াটি পরিচালনার জন্য গত বছরের শেষের দিকে ভারত সরকার কো-উইন (Co-WIN) নামে একটি প্ল্যাটফর্ম চালু করেছিল, যেখানে ভ্যাকসিনেশন সম্পর্কিত সমস্ত তথ্যের আপডেট তো পাওয়াই যায়, সাথে ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশনও করা যায়। লঞ্চের সময় সরকারের তরফে জানানো হয়েছিল যে, এই অ্যাপে টিকা গ্রহণকারীর নাম, বয়স, ঠিকানা, ফোন নম্বর ইত্যাদি বিভিন্ন তথ্য সংরক্ষিত রাখা হবে এবং কো-উইন অ্যাপের সমগ্র ডেটাবেস পরিচালনার জন্য নাগরিকদের আধার নম্বর প্রয়োজন হবে। তবে এবার থেকে করোনার টিকার জন্য কো-উইন অ্যাপে রেজিস্ট্রেশনের সময় আধার নম্বর লাগবে না বলেই ঘোষণা করল কেন্দ্র।

রিপোর্ট অনুযায়ী, গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী অশ্বিনী চৌবে লোকসভায় জানিয়েছেন যে, Co-WIN পোর্টালে নিবন্ধনের জন্য আধার বাধ্যতামূলক নয়। তাই যারা উক্ত অ্যাপের সাথে আধার ডিটেইলস নথিভুক্ত করার বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করে আসছেন তাদের আর দুশ্চিন্তার কোনো প্রশ্ন থাকছে না!

চৌবে আরো বলেন, কো-উইন পোর্টাল বা অ্যাপ্লিকেশনটি ভারত সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রক এবং UNDP (ইউনাইটেড নেশনস ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম)-এর ভারতীয় শাখার যৌথ উদ্যোগে তৈরি করা হয়েছে। এটি ভ্যাকসিন সম্পর্কে বিশদ বিবরণ প্রদান করে এবং দেশের টিকাকরণ কর্মসূচির পরিচালনা ও প্রচার করে। তাছাড়া প্ল্যাটফর্মটিতে ইউজারের তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষার উপর বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে এবং এটি ন্যাশনাল ডিজিটাল হেল্থ মিশন (NDHM) বর্ণিত গোপনীয়তা নীতি অনুসরণ করে বলে জানান স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী। তাঁর মতে, অত্যন্ত উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে কো-উইনের ডেটাবেস এনক্রিপ্ট বা সুরক্ষিত রাখা হয়। সেক্ষেত্রে ১লা ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়ে এই প্ল্যাটফর্মটির পরিচালনার জন্য মোট ৫৮.৯০ লক্ষ টাকা ব্যয় করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রী চৌবে।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতে শুরু হয়েছে টিকাকরণ বা ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচি। এই কর্মসূচির অধীনে নাগরিকদের, কোভাক্সিন (Covaxin) এবং কোভিশিল্ড (Covishield) নামে দুটি ভ্যাকসিনের সুবিধা দিচ্ছে ভারত সরকার। ইতিমধ্যে ৪০ লাখের বেশি মানুষ এই টিকা নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। এদিকে শোনা যাচ্ছে যে পশ্চিমবঙ্গসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে উক্ত কো-উইন প্ল্যাটফর্মের সার্ভারে সমস্যা হচ্ছে, যার ফলে সঠিক সময়ে সবাইকে টিকা দেওয়া যাচ্ছে না।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন