গুগল সার্চে ছোট্ট একটি ভুলে সর্বস্বান্ত বহুমানুষ, আপনিও এই ভুল করছেন না তো

  

আমরা সকলেই গুগলে যেকোনো কাস্টমার সাপোর্টের প্রয়োজনের জন্য ব্যবসায়িক এবং কাস্টমার কেয়ার নম্বর সার্চ করতে অভ্যস্ত। কিন্তু এই ধরনের সার্চ অনেক সময় আপনার জন্য অনেক বড় ক্ষতি ডেকে আনতে পারে। কোন কোন সময় কিছু ফেক কাস্টমার কেয়ার নম্বরও গুগলে ছড়িয়ে থাকে। যার পিছনে থাকে একজন হ্যাকার যে আপনাদের মত সাধারণ মানুষের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খালি করার ফন্দি এঁটে সব সময় বসে আছে।

সম্প্রতি বেঙ্গালুরুর একজন মহিলা তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সমস্ত টাকা হারিয়ে বসেছেন কারণ তিনি একটি নকল জোমাটো কাস্টমার কেয়ার নম্বরে ফোন করে তার খাবারের রিফান্ড চেয়েছিলেন। তিনি জোমাটোর অ্যাপে কাস্টমার কেয়ারের নম্বর খুঁজছিলেন কিন্তু না পাওয়ায় তিনি গুগল থেকে সার্চ করে একটি নকল নম্বর পান। এবং সেই নকল নম্বরে ফোন করার কয়েক মিনিটের মধ্যেই তার পুরো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খালি হয়ে যায়।

ঠিক এরকমই একটি ঘটনা কিছুদিন আগে চেন্নাইয়েও ঘটেছিল। চেন্নাইয়ের এক ক্রেতাও নকল কাস্টমার কেয়ার নম্বরের ফাঁদে পা দিয়ে তার টাকা খুইয়েছেন। রিফান্ড এর জন্য ফোন করায় জালিয়াতরা তার কাছ থেকে তার ইউপিআই পিন, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ডিটেইলস এবং পাসওয়ার্ড চায় রিফান্ড দেওয়ার জন্য। একটি জালিয়াতির সন্দেহ হওয়ার ফলে সেই ব্যক্তি তাদেরকে একটি ভুল পিন নম্বর দেয়। কথোপকথন শেষ হবার কিছুক্ষণের মধ্যেই তার কাছে ব্যাংক থেকে দুটি মেসেজ আসে যাতে লেখা আছে 5,000 টাকা এবং 10 টাকার দুটি ট্রানজাকশন ভুল পিন দেওয়ার জন্য বাতিল হয়ে গেছে।

জোমাটো এই নকল কল সেন্টারগুলির বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযোগ দায়ের করেছে। বিগত কয়েক মাসে এই ধরনের অনেকগুলি জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। এগুলিতে নকল কল সেন্টারের জালিয়াতরা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে তাদের সমস্ত ডিটেলস পিন নম্বর এমনকি কাস্টমারদের ফোনে আসা ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড ওটিপি ও জেনে নিয়ে তাদের সর্বস্বান্ত করছে।

ঠিক এরকমই একটি ঘটনা একটি ইএফপিও প্রোভিডেন্ট ফান্ড কোম্পানির সাথেও ঘটেছে। এক্ষেত্রে একজন জালিয়াত মুম্বাইয়ের একটি প্রভিডেন্ট ফান্ড কোম্পানির কন্টাক্ট ডিটেইলস বদলে দেয়। এবং যখনি কোন সাধারন মানুষ সেই নম্বরে কল করে তখন সেই জালিয়াত তাদের কাছ থেকে তাদের ব্যক্তিগত তথ্য জেনে নিয়ে তাদের প্রতারিত করে।

কিছুদিন আগে ভারতের অন্যতম বৃহৎ ডেয়ারি কোম্পানি আমূল গুগলকে একটি আইনি নোটিশ পাঠায়, যাতে তারা গুগলের বিরুদ্ধে দাবি করে যে বিগত সেপ্টেম্বর 2018 থেকে কয়েকটি আমূল পার্লার এবং ডিস্ট্রিবিউটরদের নামে কয়েকটি নকল ওয়েবসাইট থেকে কিছু নকল বিটুবি ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে গুগল সার্চ অ্যাডের মাধ্যমে।

পড়ুন : SBI গ্রাহকরা এই নতুন পদ্ধতিতে হচ্ছে সর্বস্বান্ত, সতর্ক করলো ব্যাংক

সব খবর পড়তে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন

টেক ভিডিও দেখার জন্য আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন – এখানে ক্লিক করুন