সুরাপ্রেমীদের প্রবল চাপে অনলাইনে মদ বিক্রি শুরু হতেই ক্র্যাশ করলো ওয়েবসাইট

কিছুদিন আগেই কেন্দ্র সরকার থেকে প্রত্যেকটি রাজ্যকে মদ বিক্রির অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এরপরেই মদ কেনার জন্য সুরাপ্রেমীদের লম্বা লাইন লক্ষ্য করা যায় মদের দোকানে সামনে। এই নিয়ে অনেকেই অভিযোগ করেছিল যে, এই সিদ্ধান্ত লকডাউনের নিয়মকে নষ্ট করছে। এই কারণেই অনলাইনে ই-টোকেনের ব্যবস্থা করেছিল দিল্লি সরকার। যাতে সুরাপ্রেমীরা নির্দিষ্ট একটি সময়ে গিয়ে দোকান থেকে মদ কিনতে পারে।

কিন্তু বৃহস্পতিবার এই পরিষেবা চালু করতেই ক্র্যাশ করেছে ওয়েবসাইট। দিল্লি সরকার থেকে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে জানানো হয়েছে, একসাথে এত পরিমান মানুষ qtoken.in ওয়েবসাইটে চলে এসেছে, যে ওয়েবসাইট বন্ধ হয়ে গেছে। শুধু তাই নয়, যে ই-টোকেনগুলি জেনেরেট হয়েছিল সেগুলো কাজ করছিল না।

হাজার হাজার মানুষ অভিযোগ করেছে, তারা কম্পিউটার দিয়ে ওয়েবসাইটে ঢুকতে পারলেও মোবাইল থেকে ঢুকতে পারছিলো না। অনেকে এও জানিয়েছে ঘন্টার পর ঘন্টা চেষ্টা করেও তারা ওয়েবসাইটে গিয়ে ই-টোকেন জোগাড় করতে পারিনি। প্রণব গুপ্তা নামে এক সুরাপ্রেমী অভিযোগ করেছে, ‘ কম করে ১০০ বার আমি মোবাইল ও কম্পিউটার থেকে ওয়েবসাইটে ঢোকার চেষ্টা করেছি। তবে সব বারই ব্যর্থ হয়েছি। শেষমেশ আগের মত লাইনে দাঁড়িয়ে মদ কিনে বাড়ি ফিরেছি।’

এদিকে পিআইএল (PIL) সুপ্রিম কোর্টে মদ বিক্রি বন্ধ করার আবেদন করলেও, সে আবেদনে সাড়া দিল না শীর্ষ আদালত। বরং সুপ্রিম কোর্ট রাজ্যগুলিকে ভেবে দেখতে বলেছে যাতে অনলাইন মদ বিক্রি বা হোম ডেলিভারি করা যায়। অশোক ভূষণ, সঞ্জয় কৃষ্ণ কোউল, বিআর গাভাইয়ের বেঞ্চ রাজ্যগুলিকে এও নিৰ্দেশ দিয়েছে যে, মদ কেনার সময় যেন সামাজিক দূরত্ব সঠিকভাবে বজায় থাকে তার উপর নজর রাখা হয়।