এপ্রিলে লঞ্চ হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা ইলেকট্রিক টু হুইলার Detel Easy Plus

detel-unveils-easy-plus-electric-car-in-india-auto-show

Detel নামটির সাথে আমরা সবাই কমবেশী পরিচিত। এর আগে মাত্র ২৯৯৯ টাকায় ফিচার ফোন এবং ৩৯৯৯ টাকায় টেলিভিশন লঞ্চ করে সাড়া ফেলে দেওয়ার পর, ভারতীয় সংস্থাটি গতবছর মাত্র ২০ হাজার টাকায় Detel Easy নামে দু’চাকার বৈদ্যুতিন গাড়ি বাজারে এনে বহুল চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছিল। এখন মুম্বইতে অনুষ্ঠিত হওয়া ‘ইন্ডিয়া অটো শো,-তে সংস্থাটি গতবছর লঞ্চ করা Easy মডেলটির আপগ্রেড ভার্সন Easy Plus প্রদর্শন করেছে। Easy Plus ইলেকট্রিক টু-হুইলারকে ‘বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা ইলেকট্রিক ভেহিকেল” হিসেবে অভিহিত করে Detel বলেছে, তারা এপ্রিল মাসে B2C (Business to Customer) সেগমেন্টে এটি লঞ্চ করার পরিকল্পনা করছে।

ডেটেলের আপকামিং ইলেকট্রিক মোপেড ইজি প্লাস-এর প্রসঙ্গে বললে, এতে ২০Ah ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। ফুল চার্জের পর এই গাড়ি ৬০ কিলোমিটার অবধি চলতে পারবে।  ইজি প্লাস মিলবে চারটি আকর্ষণীয় রঙের বিকল্পে – ইয়েলো, রেড, টিল ব্লু, এবং রয়্যাল ব্লু। ডেটেলের প্রতিষ্ঠাতা যোগেশ ভাটিয়া বলেছেন,  “আমরা ভারতে বৈদ্যুতিক যানবাহন বিপ্লবে ইন্ধন জোগানোর জন্য সব রকম চেষ্টা করছি। এই অটো শো আমাদেরকে ডেটেলের জেনেটিক্সের চমৎকার সৃষ্টি প্রদর্শনের সেরা মঞ্চ প্রদান করেছে”।

ডেটেল চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই প্যাসেঞ্জার ইলেকট্রিক টু-হুইলারের পাশাপাশি ডেটেল কমার্শিয়াল ইলেকট্রিক ভেহিকেল বাজারে আনার পরিকল্পনা করছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, সংস্থাটি ডেটেল ইস্ট লোডার নামে একটি কমার্শিয়াল বৈদ্যুতিন গাড়ি ২০২২-এর আগেই লঞ্চ করবে। পাশাপাশি ডেটেল তার গ্রাহক সংখ্যা বাড়ানোর জন্য ভারতের টিয়ার-২ এবং টিয়ার-৩ শ্রেণীর শহরগুলিকেও টার্গেট করছে।

এছাড়াও, মানুষকে বৈদ্যুতিন গাড়ি কিনতে আরও উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে ডেটেল একটি অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে। ডেটেল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা গীতিকা ভাটিয়া বলেছেন, “ডেটেলের প্রতিটি বৈদ্যুতিন গাড়ি বিক্রি হওয়ার সাথে আমরা উপহার হিসেবে গ্রাহকদের একটি করে গাছ দেবো। ধন্যবাদান্তে তাদেরকে একটি পার্সোনোলাইজড সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। গাছটি চিহ্নিত করার জন্য সার্টিফিকেটে জিওট্যাগ লাগানো থাকবে। ফলে গ্রাহকদের নামে কোথায় আমরা গাছ লাগিয়েছি, সেটা তারা খুঁজে ভার্চুয়ালি দর্শন করতে পারবেন।”

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপে শুভ্রর প্রথম প্রযুক্তি বিষয়ক লেখায় হাতেখরি৷ স্নাতক স্তরের পড়াশোনার পাশাপাশি এখানেই চলতে থাকে শুভ্রর লেখালেখি৷ কলেজের অধ্যায় শেষ হওয়ার পর শুভ্র এখন টেকগাপের কনটেন্ট টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য৷