নতুন নিয়ম মানতে ৬ মাস সময় চাইলো আমাজন-ফ্লিপকার্ট, কি আছে নতুন নিয়মে ? সেলের ভবিষৎ কি ?

ফ্লিপকার্ট হতে জানানো হয়েছে যে নতুন নিয়মগুলি সম্পূর্নরূপে পালনের জন্য তাদের কমপক্ষে ৬ মাস প্রয়োজন

  

ওয়ালমার্টের মালিকানাধীন বর্তমানের প্রধান ই কমার্স কম্পানি ফ্লিপকার্ট এফ ডি আই এর নিয়মগুলির পালনের জন্য সরকারের থেকে ৬ মাসের সময় চেয়ে নিয়েছে।প্রসঙ্গত কয়েকমাস আগে সরকার ই কমার্স কোম্পানির জন্য নতুন কিছু নিয়ম নিয়ে আসে। বর্তমানে ফ্লিপকার্ট হতে জানানো হয়েছে যে নতুন নিয়মগুলি সম্পূর্নরূপে পালনের জন্য তাদের কমপক্ষে ৬ মাস প্রয়োজন।ভারত সরকার থেকে নতুন নিয়ম ১ লা ফেব্রুয়ারি হতে শুরু হবে বলে পূর্বে জানানো হয়েছিল।

ভারতীয় শিল্প বিভাগকে চিঠির মাধ্যমে ফ্লিপকার্ট সি ই ও কল্যান কৃষ্ণমূর্তি বলেছেন নিয়ম মেনে চলার জন্য কোম্পানির প্রযুক্তি ব্যবস্থায় বেশ কয়েকটি পরিবর্তন করতে হবে। এত অল্প সময়ের মধ্যে এই ধরনের পরিবর্তন করতে ফ্লিপকার্টকে বহু সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে”। তিনি আরও বলেছেন যে -” ব্যাবসা ঠিক রাখতে এফ ডি আই এর নতুন নিয়ম গুলিকে বিশ্লেষণ করা প্রয়োজন ”

কৃষ্ণমূর্তি নিয়মটি সম্পূর্নরুপে প্রচলিত করতে ৬ মাস সময় দেওয়ার অনুরোধ রেখেছে। তার মতে এত কম সময়ে এরম পরিবর্তনের জন্য গ্রাহকের সংখ্যা বিপুল পরিমানে কমবে, যা তাদের ব্যাবসার জন্য বহুল ক্ষতিকর।

এফ ডি আই এর এই নতুন নিয়মের প্রভাব :

এফ ডি আই এর এই নতুন নিয়ম ১ লা ফেব্রুয়ারি হতে শুরু হওয়ার কথা ছিল।যেখানে বলা হয়েছিল অনলাইন কোম্পানিগুলি তাদের নিজস্ব কোনো প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারবেনা। কিছু দিন আগে এক মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে,যদি কোনো ই-কমার্স সাইট নিজস্ব প্রোডাক্ট বানায় তবে তা সে নিজের সাইটে বিক্রি করতে পারবেনা।এছাড়া তারা সে সমস্ত কোম্পানির প্রোডাক্ট ও বিক্রি করতে পারবেনা যে কোম্পানিতে কিছু পরিমাণ ভাগ তাদের নিজস্ব আছে।

নতুন নিয়মের দরুন সেলের পরিমাণ কমার সাথে সাথে ছাড় এবং দ্রব্যাদির দাম বৃদ্ধির ও সম্ভাবনা আছে।

পড়ুন : আমাজন-ফ্লিপকার্টে বন্ধ হতে পারে সেল, ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে আসছে নতুন নিয়ম